kalerkantho

বুধবার । ১০ অগ্রহায়ণ ১৪২৭। ২৫ নভেম্বর ২০২০। ৯ রবিউস সানি ১৪৪২

খণ্ডিত দেহের পর দক্ষিণখানে মাথা উদ্ধার

বিরোধের জেরে খুন মোবাইল রিচার্জের ব্যবসায়ী হেলাল

নিজস্ব প্রতিবেদক   

১৭ জুন, ২০২০ ০০:০০ | পড়া যাবে ২ মিনিটে



রাজধানীর বিমানবন্দর এলাকা ও দক্ষিণখান থেকে এক যুবকের মস্তকবিহীন ক্ষতবিক্ষত মরদেহের অংশ উদ্ধারের এক দিন পর গতকাল মঙ্গলবার দক্ষিণখান থেকে খণ্ডিত মস্তক উদ্ধার করেছে পুলিশ। গতকালই নিহতের পরিচয় শনাক্ত করেছে পুলিশ। হেলাল উদ্দিন (২৫) নামের ওই যুবক ছিলেন দক্ষিণখানের আজমপুরের মুক্তিযোদ্ধা সরণির মোবাইল ফোন রিচার্জের ব্যবসায়ী। গত রবিবার রাত থেকে নিখোঁজ ছিলেন হেলাল। তদন্তকারীদের ধারণা, ওই রাতেই তাঁকে হত্যা করা হয়। ব্যক্তিগত বিরোধের জেরেই এই হত্যাকাণ্ড ঘটেছে। হত্যাকারীদের শনাক্তে ছায়া তদন্তে নেমেছে গোয়েন্দা পুলিশ (ডিবি)।

এ বিষয়ে দক্ষিণখান থানার পরিদর্শক (অপারেশন) ও মামলার তদন্ত কর্মকর্তা সারোয়ার আলম খান বলেন, ‘থানা পুলিশের পাশাপাশি ডিবি পুলিশ তদন্তে নেমে অনেকদূর এগিয়ে গেছে। গোয়েন্দা তথ্যে গতকাল বিকেল সাড়ে ৩টার দিকে গাওয়াইর ইসলামিয়া জামিয়া মাদরাসার কাছে ভুঁইয়া বাড়ির কবরস্থানের পাশ থেকে মাথাটি উদ্ধার করা হয়। একই সঙ্গে নিহতের পরিচয়ও শনাক্ত করা গেছে। আশা করছি দু-এক দিনের মধ্যে হত্যার পুরো রহস্য উদ্ঘাটন হয়ে যাবে।’

বিমানবন্দর থানার এসআই আবু তাহের বলেন, সোমবার দুপুর ১২টার দিকে এলাকাবাসী বিমানবন্দর থানার হাজি ক্যাম্পের উত্তর পাশে এশার কলোনি রাস্তায় একটি স্কুলব্যাগ পড়ে থাকতে দেখে থানায় খবর দেয়। পরে পুলিশ গিয়ে ব্যাগটি খুললে তা থেকে একটি মরদেহের অংশ উদ্ধার হয়। কোমর থেকে গলা পর্যন্ত দেহাংশটি ব্যাগের ভেতর পাতলা কম্বলে মোড়ানো ছিল। বিমানবন্দর জোনের সহকারী কমিশনার খন্দকার রেজাউল হাসান বলেন, সোমবার দুপুরেই দক্ষিণখানের মুক্তিযোদ্ধা রোডে বস্তাবন্দি মরদেহ দেখার পর প্রত্যক্ষদর্শীরা থানায় খবর দেন। পরে পুলিশ মরদেহের কোমরের নিচের অংশ ও দুটি পা উদ্ধার করে। দুটি অংশ মিলেছে। 

তদন্তকারীরা বলছেন, রবিবার রাতেই হেলালকে হত্যা করে লাশ খণ্ডিত করা হয়েছে বলে ধারনা করা হচ্ছে। ব্যক্তিগত বিরোধের জেরে এই হত্যাকান্ড ঘটেছে বলেও কিছু তথ্য মিলেছে। ডিবির ঢাকা উত্তর বিভাগের একটি দল তদন্তে অনেক দূর এগিয়ে গেছে। এরই মধ্যে কয়েকজনকে জিজ্ঞাসাবাদ করা হয়েছে বলে জানায় সূত্র।

মন্তব্য



সাতদিনের সেরা