kalerkantho

রবিবার । ২৮ আষাঢ় ১৪২৭। ১২ জুলাই ২০২০। ২০ জিলকদ ১৪৪১

ছাত্রী ও গৃহবধূকে ধর্ষণের অভিযোগে গ্রেপ্তার ৪

লক্ষ্মীপুর ও মানিকগঞ্জ প্রতিনিধি   

২ জুন, ২০২০ ০০:০০ | পড়া যাবে ২ মিনিটে



লক্ষ্মীপুরের রামগতিতে এক মাদরাসাছাত্রীকে ধর্ষণের অভিযোগে হাবিবুর রহমান আশিক নামের এক যুবককে গ্রেপ্তার করা হয়েছে। এ ছাড়া মানিকগঞ্জের ঘিওর উপজেলায় এক গৃহবধূকে ধর্ষণের অভিযোগে তিনজনকে গ্রেপ্তার করেছে পুলিশ। গতকাল সোমবার ও আগের দিন এসব ঘটনা ঘটে।

লক্ষ্মীপুরে ধর্ষণের অভিযোগে গ্রেপ্তার আশিক রামগতি পৌরসভার চর হাসান হোসেন এলাকার হুমায়ুন কবিরের ছেলে। পুলিশ জানায়, অনেক দিন ধরে আশিক ওই ছাত্রীকে উত্ত্যক্ত করছিল। গত রবিবার রাতে আশিক কৌশলে ওই ছাত্রীকে ঘর থেকে ডেকে বাগানে নিয়ে যায় এবং ধর্ষণ করে। এ সময় ওই ছাত্রীর চিৎকার শুনে স্বজনরা এগিয়ে গেলে আশিক পালিয়ে যায়। পরে ভুক্তভোগী ছাত্রীর বাবা গতকাল সকালে রামগতি থানায় আশিকের বিরুদ্ধে মামলা করেন। পরে অভিযান চালিয়ে গতকাল বিকেলে আশিককে গ্রেপ্তার করা হয়।

রামগতি থানার ওসি মোহাম্মদ সোলাইমান জানান, মামলার পরপরই ডাক্তারি পরীক্ষার জন্য ছাত্রীকে সদর হাসপাতালে পাঠানো হয়েছে। অভিযুক্ত যুবককেও গ্রেপ্তার করা হয়েছে। তাকে লক্ষ্মীপুর আদালতের মাধ্যমে জেলা কারাগারে পাঠানো হয়েছে।

অন্যদিকে মানিকগঞ্জের ঘিওরে গৃহবধূকে ধর্ষণের অভিযোগে গ্রেপ্তার করা হয়েছে ওয়াসিম, রাকিব হোসেন এবং রোদেয়ান নামে তিনজনকে। গ্রেপ্তারকৃতরা উপজেলার বড়টিয়া ইউনিয়নের বিভিন্ন গ্রামের বাসিন্দা।

ভুক্তভোগীর মা জানান, ঈদের দিন বাবার বাড়িতে বেড়াতে আসেন ওই গৃহবধূ। বুধবার তিনি বাজারে মোবাইল ফোনে ফ্লেক্সিলোড দিতে যান। এ সময় পূর্বপরিচিত ওয়াসিম এবং রফিকের সঙ্গে গৃহবধূর দেখা হয়। পরে তারা কথা বলতে বলতে ওই নারীকে একটি নির্জন স্থানে নিয়ে যায়। এ সময় সেখানে আগে থেকেই অপেক্ষা করছিল ওয়াসিমের আরো কয়েকজন বন্ধু। পরে তারা সবাই মিলে গৃহবধূকে ধর্ষণ করে। তিনি আরো জানান, পরে লোকমুখে জানতে পেরে তিনি ঘটনাস্থলে গিয়ে মেয়েকে উদ্ধার করেন এবং বাড়িতে নিয়ে আসেন। কিন্তু এলাকার প্রভাবশালীরা মীমাংসা করে দেওয়ার কথা বলে মামলা করতে নিষেধ করেন। পরে পুলিশের হস্তক্ষেপে গত রবিবার ১১ জনের বিরুদ্ধে তিনি মামলা করেন।

মন্তব্য



সাতদিনের সেরা