kalerkantho

মঙ্গলবার । ৩০ আষাঢ় ১৪২৭। ১৪ জুলাই ২০২০। ২২ জিলকদ ১৪৪১

রিজভী বললেন

সরকার পরিসংখ্যান ‘গুম’ করছে

নিজস্ব প্রতিবেদক   

২৩ মে, ২০২০ ০০:০০ | পড়া যাবে ২ মিনিটে



বিএনপির সিনিয়র যুগ্ম মহাসচিব রুহুল কবীর রিজভী বলেছেন, সরকারি হিসাবে ২৮ হাজারের ওপরে মানুষ করোনায় আক্রান্ত, ৪০২ মারা গেছেন। আর যাঁরা মেডিক্যাল গবেষণা করেন, বড় বড় ডাক্তার, তাঁরা বলেছেন, সরকার যে হিসাব দিচ্ছে তার থেকে ১০-৪০ গুণ বেশি মানুষ আক্রান্ত হচ্ছেন এবং মারা যাচ্ছেন। সরকার অনেক পরিসংখ্যান গুম করছে, প্রকাশ হতে দিচ্ছে না। এটা আমার কথা নয়, যাঁরা এসব নিয়ে গবেষণা করছেন তাঁদের কথা।

গতকাল শুক্রবার সকালে রাজধানীর উত্তরার ৪৭ নং ওয়ার্ডে মহানগর উত্তরের যুগ্ম সম্পাদক এম কফিলউদ্দিনের উদ্যোগে দুস্থ ও দরিদ্র মানুষের মধ্যে ঈদ উপহার বিতরণ অনুষ্ঠানে রিজভী এ কথা বলেন। এ সময় মহানগর উত্তরের নেতা আহসানউল্লাহ হাসান, এ বি এম এ রাজ্জাক, মোতালেব হোসেন রতন, মমতাজ উদ্দিন প্রমুখ উপস্থিত ছিলেন।

রিজভী বলেন, আজকে করোনায় আক্রান্ত যেসব রোগী, তাঁদের চিকিৎসার জন্য হাসপাতালে কোনো বেড নেই। বাংলাদেশের এক প্রান্ত থেকে অন্য প্রান্তে চিকিৎসার জন্য মানুষ হাহাকার করছে। আক্রান্ত হলেও ডাক্তারের কাছে যাচ্ছে না। যদি পজিটিভ হয় কোথায় চিকিৎসা নেবে তারা। সরকার ফ্লাইওভার করেছে কিন্তু একটা হাসপাতালও নির্মাণ করেনি। হাসপাতালে প্রয়োজনীয় যে আধুনিক সরঞ্জাম দরকার সেটা দেয়নি।

তিনি বলেন, আপনারা (সরকার) উন্নয়ন দেখাচ্ছেন। এসব করে আপনার নেতাকর্মীদের পকেট ফুলতে ফুলতে একেবারে বেলুনের মতো হয়ে গেছে। অক্সিজেন সিলিন্ডার বাংলাদেশের ৯০ শতাংশ হাসপাতালে নেই, অক্সিজেন মাস্ক ৮০ শতাংশ হাসপাতালে নেই, অক্সিজেন লাঞ্চে নিয়ে যাওয়ার জন্য যে মেশিনটি দরকার সেটা ৬৯ শতাংশ হাসপাতালে নেই। এ দেশের মানুষ কুকুর-বিড়ালের মতো নির্মমভাবে মৃত্যুবরণ করছে।

তিনি আরো বলেন, এবার এডিপিতে স্বাস্থ্য খাতের বরাদ্দ ৭ নম্বরে। গত বছর ছিল ১০ হাজার কোটি টাকার একটু বেশি। এবার ১৩ হাজার কোটি টাকা। মানুষকে বাঁচানো, মানুষের কল্যাণের কোনো কাজ এই সরকার করেনি, ওই দিকে কোনো নজর নেই। কিভাবে টাকা বেশি আসবে এবং কিভাবে দলের নেতাকর্মীদের পকেট ভরবে এই হচ্ছে তাদের মূল উদ্দেশ্য।

এরপর নয়াপল্টনে বিএনপির কেন্দ্রীয় কার্যালয়ে ছাত্রদল পূর্ব শাখার উদ্যোগে দুস্থ ও দরিদ্র মানুষের মধ্যে ঈদ উপহার বিতরণ করেন রিজভী।

মন্তব্য



সাতদিনের সেরা