kalerkantho

বুধবার । ১৩ জ্যৈষ্ঠ ১৪২৭ । ২৭  মে ২০২০। ৩ শাওয়াল ১৪৪১

পাটুরিয়ায় ও মাওয়ায় ফেরি চলাচল শুরু, যাত্রী কম

ছোট-বড় মিলে দৌলতদিয়া-পাটুরিয়া নৌ রুটে ১২টি ফেরিতে বিভিন্ন গাড়ি ও যাত্রী পারাপার করা হচ্ছে

কালের কণ্ঠ ডেস্ক   

২৩ মে, ২০২০ ০০:০০ | পড়া যাবে ৩ মিনিটে



পাটুরিয়ায় ও মাওয়ায় ফেরি চলাচল শুরু, যাত্রী কম

মুন্সীগঞ্জের শিমুলিয়া ফেরিঘাটে ঘরমুখো মানুষের ঢল। ছবিটি গতকাল সকালে তোলা। ছবি : কালের কণ্ঠ

লকডাউন এবং ঘূর্ণিঝড় আম্পানের কারণে চার দিন বন্ধ থাকার পর শিমুলিয়া-কাঁঠালবাড়ী নৌ রুটে ফেরি চলাচল শুরু হয়েছে। জরুরি অ্যাম্বুল্যান্স, ব্যক্তিগত পরিবহন, কাঁচামালবাহী ও পণ্যবাহী ট্রাক পারাপার করা হচ্ছে এই নৌপথ দিয়ে। অন্যদিকে দৌলতদিয়া-পাটুরিয়া নৌ রুটে গতকাল শুক্রবার দুপুরের পর থেকে দক্ষিণাঞ্চলগামী ঘরমুখো মানুষের ঢল নামে। আমাদের প্রতিনিধিদের পাঠানো খবরে বিস্তারিত :

গোয়ালন্দ (রাজবাড়ী) : দৌলতদিয়া-পাটুরিয়া রুটে ফেরি সার্ভিস পুনরায় চালু হওয়ায় দুপুরের পর থেকে ঢাকা ছেড়ে আসা দক্ষিণাঞ্চলগামী ঘরমুখো মানুষের ঢল নামে। বিকেলে সরেজমিন গিয়ে দেখা যায়, ছোট-বড় মিলে ১২টি ফেরি চলাচল করছে। এতে পাটুরিয়া ঘাট থেকে পণ্যবাহী ট্রাক, রোগীবাহী অ্যাম্বুল্যান্স, মাইক্রোবাসসহ ব্যক্তিগত বিভিন্ন গাড়ির পাশাপাশি ঘরমুখো যাত্রীরা ফেরিতে পার হয়ে দৌলতদিয়া ঘাটে এসে নামছে। সরকারি নির্দেশনা উপেক্ষা করে জীবনের ঝুঁঁকি নিয়ে ঢাকা থেকে ভেঙে ভেঙে আসা যাত্রীরা দৌলতদিয়া ঘাট থেকে মাহেন্দ্র, অটোরিকশা, ভ্যান ও ভাড়ায়চালিত মোটরসাইকেলে করে পরে নিজ নিজ গন্তব্যের উদ্দেশে রওনা দেয়।

বিআইডাব্লিউটিসির দৌলতদিয়া ঘাট ব্যবস্থাপক মো. আবু আব্দুল্লাহ জানান, তিন দিন বন্ধের পর ঊর্ধ্বতন কর্তৃপক্ষের নির্দেশে গত বৃহস্পতিবার মধ্যরাত থেকে নৌপথে সব ফেরি সার্ভিস চালু করা হয়। বর্তমান ছোট-বড় মিলে দৌলতদিয়া-পাটুরিয়া নৌ রুটে ১২টি ফেরিতে বিভিন্ন গাড়ি ও যাত্রী পারাপার করা হচ্ছে।

দৌলতদিয়া ঘাট নৌ পুলিশ ফাঁড়ির ইনচার্জ পুলিশ পরিদর্শক মো. আব্দুল মুন্নাফ জানান, ট্রলার ও নৌকায় যাত্রী পারাপার বন্ধে লঞ্চ ও স্পিড বোট নিয়ে এই নৌপথে নিয়মিত টহল দিচ্ছে নৌ পুলিশ।

মুন্সীগঞ্জ : অন্যদিকে শিমুলিয়া-কাঁঠালবাড়ী নৌরুটে ফেরি চলাচল শুরু হয়েছে। ফেরিগুলোতে ব্যক্তিগত পরিবহন, কাঁচামালবাহী ও পণ্যবাহী ট্রাক এবং সাধারণ যাত্রীদের পারাপার করা হচ্ছে।

বিআইডাব্লিউটিসি শিমুলিয়া ঘাটের সহকারী মহাব্যবস্থাপক মো. শফিকুল ইসলাম জানান, করোনা সংক্রমণ রোধে গত ১৮ মে থেকে শিমুলিয়া-কাঁঠালবাড়ী নৌ রুটে ফেরি সার্ভিস বন্ধ করে দেওয়া হয়। ঘরমুখো মানুষের কারণে শিমুলিয়া ঘাট পরিণত হয়েছিল জনসমুদ্রে। সামাজিক দূরত্ব বজায় রাখা সম্ভব হচ্ছিল না। লোকজন গাদাগাদি করে ফেরি পারাপার হচ্ছিল। তাই ফেরি বন্ধ করে দেওয়া হয়। কিন্তু বৃহস্পতিবার রাতে কর্তৃপক্ষের নির্দেশে ফেরি সার্ভিস সচল করা হয়েছে। বর্তমানে ১২টি ফেরি সকাল থেকে চলাচল করছে।

মাওয়া নৌ পুলিশের আইসি সিরাজুল কবির জানান, ফেরি চলাচল স্বাভাবিক হয়েছে। তবে যাত্রীর চাপ নেই। ঘাটে কিছু পণ্যবাহী ট্রাক রয়েছে। অগ্রাধিকার ভিত্তিতে যাত্রীবাহী প্রাইভেট কার পার করা হচ্ছে। একই সঙ্গে কিছু ট্রাকও পার করা হচ্ছে।

বিআইডাব্লিউটিসি কাঁঠালবাড়ী ঘাট সহকারী ম্যানেজার ভজন সাহা জানান, সকালে ১২টি ফেরি চলাচল শুরু হলেও যানবাহনের চাপ না থাকায় দুপুরের পর থেকে আটটি ফেরি ধারণক্ষমতার অনেক কম যানবাহন নিয়ে পারাপার হচ্ছে।

মন্তব্য



সাতদিনের সেরা