kalerkantho

মঙ্গলবার  । ২০ শ্রাবণ ১৪২৭। ৪ আগস্ট  ২০২০। ১৩ জিলহজ ১৪৪১

মৎস্য খাত

বরিশাল-খুলনায় আম্ফানে ক্ষতি ৩০৫ কোটি টাকা

নিজস্ব প্রতিবেদক   

২৩ মে, ২০২০ ০০:০০ | পড়া যাবে ২ মিনিটে



সুপার সাইক্লোন ‘আম্ফান’-এর প্রভাবে বরিশাল ও খুলনা বিভাগে মৎস্য খাতে ক্ষতির পরিমাণ ৩০৫ কোটি ৫০ লাখ টাকা আর প্রাণিসম্পদ খাতে এক কোটি চার লাখ ৪০ হাজার টাকা। এর মধ্যে ক্ষতিগ্রস্ত মৎস্য খামারের সংখ্যা ২৪ হাজার ৩৫০টি, ক্ষতিগ্রস্ত গবাদি পশু ও হাঁস-মুরগির খামারের সংখ্যা ৫০ হাজার ১৩৮টি।

মৎস্য ও প্রাণিসম্পদ খাতের এই ক্ষয়ক্ষতি কাটিয়ে আবারও স্বাভাবিক অবস্থায় ফিরতে সংশ্লিষ্ট চাষি, খামারি ও উদ্যোক্তাদের জরুরি ভিত্তিতে নগদ আর্থিক সহায়তাসহ সহজ শর্তে ঋণ দিতে দুর্যোগ ব্যবস্থাপনা ও ত্রাণ মন্ত্রণালয়কে অনুরোধ জানিয়েছে মৎস্য ও প্রাণিসম্পদ মন্ত্রণালয়।

মৎস ও প্রাণিসম্পদ মন্ত্রণালয়ের সচিব রওনক মাহমুদ কালের কণ্ঠকে বলেন, ‘আমরা ক্ষয়ক্ষতির পুরো ৩০৫ কোটি টাকাই সরকারের কাছে চেয়েছি। আশা করি এ বিষয়ে প্রধানমন্ত্রীর নির্দেশে ত্রাণ মন্ত্রণালয় বিশেষ বরাদ্দের ব্যবস্থা নেবে।

গত বৃহস্পতিবার মৎস্য ও প্রাণিসম্পদ সচিব স্বাক্ষরিত এ সংক্রান্ত চিঠি দুর্যোগ ব্যবস্থাপনা ও ত্রাণ মন্ত্রণালয়ে পাঠানো হয়েছে।

চিঠিতে বলা হয়েছে, উপকূলীয় অঞ্চলে আম্ফানের প্রভাবে মাছ, গবাদি পশু ও হাঁস-মুরগির ক্ষয়ক্ষতির প্রাথমিক বিবরণ পাওয়া গেছে। তবে ক্ষয়ক্ষতির চূড়ান্ত তালিকা প্রস্তুত করতে যাচাই-বাছাই চলছে। চিঠিতে আরো বলা হয়েছে, করোনা মহামারির বিরূপ প্রভাবে মৎস্য ও প্রাণিসম্পদ খাতে বিনিয়োগকারীরা চরম আর্থিক ক্ষতির মুখে পড়েছেন। তার ওপর আম্ফানের আঘাত এ খাতসংশ্লিষ্টদের আরো হতাশায় ফেলেছে।

মন্তব্য