kalerkantho

সোমবার । ১১ জ্যৈষ্ঠ ১৪২৭ । ২৫  মে ২০২০। ১ শাওয়াল ১৪৪১

আম্ফানের তাণ্ডবে এক কোটি গ্রাহক বিদ্যুৎহীন

নিজস্ব প্রতিবেদক   

২২ মে, ২০২০ ০০:০০ | পড়া যাবে ২ মিনিটে



আম্ফানের তাণ্ডবে এক কোটি গ্রাহক বিদ্যুৎহীন

ঘূর্ণিঝড় আম্ফানের তাণ্ডবে দেশের প্রায় এক কোটি গ্রাহক বর্তমানে বিদ্যুত্হীন অবস্থায় আছে। বিশেষত উপকূলীয় অঞ্চলের বিদ্যুত্ব্যবস্থা পুরোপুরি বিপর্যস্ত হয়ে পড়েছে। ঘূর্ণিঝড়ে উপকূলীয় অঞ্চলসহ দেশের বিদ্যুত্ব্যবস্থা বিপর্যস্ত হয়ে পড়ার মধ্যেই গতকাল বৃহস্পতিবার ভোর থেকে বিদ্যুৎকর্মীরা মেরামতের কাজ শুরু করেছেন। ফলে ধীরে ধীরে দেশের বিভিন্ন অঞ্চলে বিদ্যুৎ সরবরাহ স্বাভাবিক হতে শুরু করেছে। বিভিন্ন স্থানে গাছ উপড়ে বিদ্যুতের তারের ওপর পড়ায় তার ছিঁড়ে যায়। আবার কোথাও কোথাও উপড়ে পড়েছে বা ভেঙে গেছে বিদ্যুতের খুঁটি।

পল্লী বিদ্যুৎ বোর্ডের (আরইবি) সদস্য (পরিকল্পনা ও উন্নয়ন) অঞ্জন কান্তি দাশ বলেন, ‘আম্ফানের আঘাতে আমরা সবচেয়ে বেশি ক্ষতিগ্রস্ত হয়েছি। আমাদের অনেক গ্রাহক। উপকূলের বেশির ভাগ জেলা এখন বিদ্যুৎ বিচ্ছিন্ন। তবে আমরা সকাল থেকে মেরামতের কাজ শুরু করেছি। পুরোপুরি স্বাভাবিক হতে কয়েক দিন সময় লাগবে।’

তিনি আরো বলেন, ‘আরইবির গ্রাহকদের মধ্যে ঢাকার আশপাশ ছাড়া কমবেশি সবাই ক্ষতিগ্রস্ত হয়েছে। চাঁদপুর, চট্টগ্রাম, কক্সবাজার, যশোর, খুলনা, বরিশাল অঞ্চলে ক্ষতির পরিমাণ সবচেয়ে বেশি। বিদ্যুতের খুঁটি ভেঙেছে প্রায় ২০০-র মতো। আর অসংখ্য স্থানে বিদ্যুতের তার ছিঁড়ে গেছে গাছ পড়ে। আরইবির প্রায় দুই কোটি ৮৫ লাখ গ্রাহক রয়েছে। আম্ফানের প্রভাবে এর মধ্যে অন্তত ৮০ থেকে ৯০ লাখ গ্রাহকের বিদ্যুৎ সরবরাহ বন্ধ রয়েছে।’

উপকূলীয় এলাকায় বিদ্যুৎ সরবরাহকারী সংস্থা ওয়েস্ট জোন পাওয়ার ডিস্ট্রিবিউশন কম্পানির (ওজোপাডিকো) ব্যবস্থাপনা পরিচালক শফিক উদ্দিন বলেন, ‘আমাদের প্রায় ১২ লাখ গ্রাহক ক্ষতিগ্রস্ত হয়েছে। অসংখ্য খুঁটি ভেঙে গেছে, বহু স্থানে ছিঁড়ে গেছে বিদ্যুতের তার। বৃহস্পতিবার সকাল থেকে আমাদের অনেক টিম বিভিন্ন অঞ্চলে কাজ শুরু করেছে। আস্তে আস্তে বিদ্যুৎ সরবরাহ স্বাভাবিক করার চেষ্টা করা হচ্ছে।’

এর বাইরে পিডিবিরও বেশ কিছু লাইন ক্ষতিগ্রস্ত হয়েছে বলে জানা গেছে। পিডিবিও গতকাল বৃহস্পতিবার সকাল থেকে বিদ্যুৎ সংযোগ পুনরায় স্থাপনের কাজ শুরু করেছে।

মন্তব্য



সাতদিনের সেরা