kalerkantho

শুক্রবার । ১৫ জ্যৈষ্ঠ ১৪২৭ । ২৯  মে ২০২০। ৫ শাওয়াল ১৪৪১

কেরানীগঞ্জে পিটিয়ে বৃদ্ধের হাত ভেঙে দিলেন ইউপি চেয়ারম্যান, বিক্ষোভ

কেরানীগঞ্জ (ঢাকা) প্রতিনিধি   

৫ মে, ২০২০ ০০:০০ | পড়া যাবে ২ মিনিটে



কেরানীগঞ্জের কালিন্দী ইউনিয়নের মাদারীপুর এলাকায় লোহার পাইপ দিয়ে পিটিয়ে নাজিম উদ্দিন (৭০) নামের এক মুদি ব্যবসায়ীর হাত ভেঙে দেওয়ার অভিযোগ উঠেছে ইউপি চেয়ারম্যান মোজাম্মেলের বিরুদ্ধে। গতকাল সোমবার দুপুর ১২টার দিকে দোকান খোলা রাখার অভিযোগে মোজাম্মেল এ ঘটনা ঘটান বলে জানায় প্রত্যক্ষদর্শীরা। ঘটনার প্রতিবাদে এলাকাবাসী লকডাউন ভেঙে রাস্তায় নেমে আসে। উত্তেজিত এলাকাবাসী মোজাম্মেল চেয়ারম্যানের বিরুদ্ধে বিক্ষোভ মিছিল করে তাঁর গ্রেপ্তার ও দৃষ্টান্তমূলক শাস্তির দাবি জানায়।

এ বিষয়ে স্থানীয় বাসিন্দা রফিক অভিযোগ করে বলেন, ‘গত তিন-চার দিন আগে কালিন্দী ইউনিয়নের ৪ নম্বর ওয়ার্ডের সাবেক মেম্বার বুলবুলকে বরিশুর বাজারে লাঞ্ছিত করেন মোজাম্মেল চেয়ারম্যান। এরও আগে একই বাজারের চায়ের দোকানদার খোকন, সবজি বিক্রেতা মনির ও দর্জি আবুলসহ অনেককেই মারধর করেছেন তিনি।’

আহত নাজিম উদ্দিন বলেন, ‘সরকারের নির্ধারিত সময়ের মধ্যেও দোকান খোলা রাখায় মোজাম্মেল চেয়ারম্যান আমাকে গালাগাল দেন। এর প্রতিবাদ করলে তিনি আমাকে দোকান থেকে নামিয়ে জিআই পাইপ দিয়ে পিটিয়ে হাত ভেঙে দিয়েছেন। আমি এর সুষ্ঠু বিচার চাই।’

তবে অভিযোগ অস্বীকার করে মোজাম্মেল বলেন, ‘ঘটনা সত্য নয়। আমি ওই ব্যবসায়ীকে সময়মতো দোকান বন্ধ রাখার কথা বলে চলে এসেছি। কোনো মারধর করা হয় নাই। আমি কি পাগল যে বাবার বয়সী একজন মুরব্বির গায়ে হাত তুলব? আর ওই এলাকায় মাদক ব্যবসায়ী ও সেবনকারীদের বিরুদ্ধে আমি সব সময় সোচ্চার হওয়ায় মাদক ব্যবসায়ীরাই আমার বিরুদ্ধে ষড়যন্ত্র করছে।’

কেরানীগঞ্জ মডেল থানার ওসি কাজী মাইনুল ইসলাম বলেন, ‘বিক্ষোভ মিছিলের সংবাদ পেয়ে দ্রুত ঘটনাস্থলে যাই। সেখানে গিয়ে কাউকে পাওয়া যায়নি। তবে এ ব্যাপারে কেউ অভিযোগ করলে আইন অনুযায়ী ব্যবস্থা নেওয়া হবে।’

মন্তব্য



সাতদিনের সেরা