kalerkantho

শুক্রবার । ১৯ আষাঢ় ১৪২৭। ৩ জুলাই ২০২০। ১১ জিলকদ  ১৪৪১

আক্ষেপ নিয়েই মারা গেলেন ঢাবি শিক্ষার্থী

নিজস্ব প্রতিবেদক ও ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় প্রতিনিধি   

৭ এপ্রিল, ২০২০ ০০:০০ | পড়া যাবে ২ মিনিটে



ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের (ঢাবি) শিক্ষা ও গবেষণা ইনস্টিটিউটের শিক্ষার্থী সুমন চাকমা আক্ষেপ করে গত ২৬ মার্চ সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম ফেসবুকে লিখেছিলেন, ‘আমার করোনা হয়নি, অথচ পরিস্থিতি দেখে মনে হচ্ছে করোনার জন্যেই আমার মারা যেতে হবে।’ তার ঠিক ১০ দিনের মাথায় চিকিৎসা না পাওয়ার আক্ষেপ নিয়েই পৃথিবী ছেড়ে যেতে হলো সুমনকে।

ক্যান্সারে আক্রান্ত এই শিক্ষার্থী ফুসফুসের রোগে গতকাল সোমবার সকালে মারা গেছেন। তাঁর সহপাঠীরা বলেছেন, বিভিন্ন হাসপাতালে গেলেও করোনাভাইরাস সংক্রমিত সন্দেহে এই শিক্ষার্থীকে চিকিৎসা দেয়নি কোনো হাসপাতাল।

সুমনের সহপাঠী ও বৃহত্তর পার্বত্য চট্টগ্রাম পাহাড়ি ছাত্র পরিষদ (পিসিপি) সূত্রে জানা গেছে, ২০১৫-১৬ শিক্ষাবর্ষে ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ে ভর্তি হন সুমন। জগন্নাথ হলের আবাসিক শিক্ষার্থী ছিলেন তিনি। দীর্ঘ তিন বছর ধরে ফুসফুসের জটিল রোগে ভুগছিলেন সুমন। দুই বছর আগে তাঁর ক্যান্সার ধরা পড়ে। দীর্ঘদিন ভারতে চিকিৎসা করানোর পর এক বছর আগে মোটামুটিভাবে সুস্থ হয়ে দেশে ফিরে আসেন এবং পড়াশোনা চালিয়ে নিয়ে যাওয়ার জন্য ঢাকায় অবস্থান করেন।

সুমনের সহপাঠীদের অভিযোগ, গত ১১ মার্চ সুমন অসুস্থ বোধ করলে চিকিৎসার জন্য তাঁকে তাঁর বন্ধুরা বিভিন্ন হাপাতালে নিয়ে যান। কিন্তু শ্বাসজনিত সমস্যা থাকায় কোনো পরীক্ষা ছাড়াই করোনাভাইরাসজনিত কভিড-১৯ রোগী সন্দেহে কোনো হাসপাতাল তাঁকে ভর্তি করেনি বলে অভিযোগ করেন সুমনের সহপাঠীরা। এরপর গত ১৮ মার্চ হোমিওপ্যাথি চিকিৎসার জন্য গ্রামের বাড়িতে নিয়ে যাওয়া সুমনকে।

মন্তব্য