kalerkantho

শনিবার । ২৩ জ্যৈষ্ঠ ১৪২৭ । ৬ জুন ২০২০। ১৩ শাওয়াল ১৪৪১

বিপর্যস্ত ইতালিতে সহায়তা বাংলাদেশ কমিউনিটির

সুস্থ হয়ে বাড়িতে ফেরার সংখ্যা দিন দিন বাড়ছে

জাকির হোসেন সুমন, ইতালি থেকে   

৫ এপ্রিল, ২০২০ ০০:০০ | পড়া যাবে ৩ মিনিটে



বিপর্যস্ত ইতালিতে সহায়তা বাংলাদেশ কমিউনিটির

বিশ্বে করোনার ছোবলে এখন সবচেয়ে ক্ষতবিক্ষত দেশ ইতালি। তবে এ মুহূর্তে ইতালি নিয়ে ইতিবাচক খবর হচ্ছে, আক্রান্ত রোগীদের সুস্থ হয়ে বাড়িতে ফেরার সংখ্যা দিন দিন বাড়ছে। গত এক দিনে দেশটিতে এক হাজার ৪৮০ জন চিকিৎসার মাধ্যমে সুস্থ হয়ে বাড়ি ফিরেছে। সব মিলিয়ে এখন পর্যন্ত দেশটিতে করোনা থেকে সুস্থ হয়েছে ১৯ হাজার ৭৫৮ জন। গত শুক্রবার (৩ এপ্রিল) নিয়মিত প্রেস ব্রিফিং করে এসব তথ্য জানিয়েছেন নাগরিক সুরক্ষা সংস্থার প্রধান অ্যাঞ্জেলো বোরেল্লি।

এ সময় তিনি আরো জানান, ইতালিতে বিগত ২৪ ঘণ্টায় করোনায় প্রাণ হারিয়েছে ৭৬৬ জন ও নতুন করে আক্রান্ত হয়েছে চার হাজার ৫৮৫ জন। দেশটিতে করোনা সংক্রমণে এখন পর্যন্ত প্রাণ হারানো মানুষের সংখ্যা ১৪ হাজার ৬৮৪ এবং আক্রান্ত এক লাখ ১৯ হাজার ৮২৭ জন। এদিকে করোনায় আক্রান্ত হয়ে দেশটিতে তিন বাংলাদেশির মৃত্যু এখানকার বাংলা কমিউনিটিকে শোক ও শঙ্কার ছায়ায় ঢেকে দিয়েছে। তবে দেশটিতে বসবাসরত কতজন বাংলাদেশি করোনায় আক্রান্ত হয়েছে, তার সঠিক তথ্য এখনো জানা যায়নি।

অন্যদিকে ইতালিতে জরুরি অবস্থা জারির শেষ দিন ছিল গত শুক্রবার। তবে ফের ১৩ এপ্রিল পর্যন্ত বাড়ানো হয়েছে লকডাউনের সময়। কভিড-১৯-এর করালগ্রাস থেকে ইতালিকে বাঁচাতে সরকার সর্বোচ্চ চেষ্টা করছে। দেশটির প্রায় ছয় কোটি নাগরিকের সব ধরনের সুযোগ-সুবিধা, খাদ্যসামগ্রীর নিশ্চয়তার জন্য সামরিক বাহিনীর সদস্যরা কাজ করে যাচ্ছেন। প্রধানমন্ত্রী জোসেপ্পে কন্তের আহ্বানে সাড়া দিয়ে দেশের এই দুর্দিনে সাত হাজার ২২০ জন অবসরপ্রাপ্ত ডাক্তার, নার্স ও অ্যাম্বুল্যান্সকর্মী স্বাস্থ্যসেবা দিতে করোনা আক্রান্তদের পাশে এসে দাঁড়িয়েছেন। এই ক্রান্তিকালে ইতালি সরকার সবাইকে ঘরে থাকার আহ্বান জানিয়েছে। বিভিন্ন সংস্থা সিটি করপোরেশনগুলোতে বিনা মূল্যে মাস্ক বিতরণ কার্যক্রম চালিয়ে যাচ্ছে। এদিক দিয়ে পিছিয়ে নেই বাংলাদেশিরাও। অল ইউরোপিয়ান বাংলা প্রেস ক্লাবের সভাপতি মনিরুজ্জামান মুনিরের উদ্যেগে করোনাভাইরাস আক্রান্তদের সাহায্যার্থে রোম ডোনেশন ফর কভিড-১৯ ইতালি বাংলাদেশ অর্থ উত্তোলন শুরু করেছে। এ ছাড়া ভেনিস শহরে প্রবাসী বাংলাদেশিরা অর্থ উঠানো শুরু করেছে, যে অর্থ ভেনোতোর প্রেসিডেন্ট লুকা জায়ার হাতে তুলে দেওয়া হবে করোনাভাইরাস আক্রান্তদের চিকিৎসার জন্য। শিপিং ব্যবসায়ী মনিরুজ্জামান বাবু ভেনিসের একটি হাসপাতালে ডাক্তারদের জন্য ২০০ পিস করোনা প্রতিরোধক কাপড় ও জুতার কাভার, সিটি করপোরেশন পুলিশের জন্য ১০০ পিস কাপড় ও আনকোনা শহরের তরেত্বে হাসপাতালের ডাক্তারদের জন্য ৭৫ পিস কাপড় ও ৫০ পিস জুতার কাভার বিতরণ করেন। এ ছাড়া ইতালির বিভিন্ন শহরে প্রবাসী বাংলাদেশিরা করোনাভাইরাসে আক্রান্তদের চিকিৎসায় সহায়তার জন্য অর্থ উঠানো কার্যক্রম চালিয়ে যাচ্ছে বলে জানা গেছে।

মন্তব্য



সাতদিনের সেরা