kalerkantho

মঙ্গলবার । ১২ জ্যৈষ্ঠ ১৪২৭ । ২৬  মে ২০২০। ২ শাওয়াল ১৪৪১

ফুলছড়িতে ইউএনওর নেতৃত্বে ফুডব্যাংক

গাইবান্ধা প্রতিনিধি   

১ এপ্রিল, ২০২০ ০০:০০ | পড়া যাবে ২ মিনিটে



ফুলছড়িতে ইউএনওর নেতৃত্বে ফুডব্যাংক

করোনাভাইরাসের কারণে সংকটময় পরিস্থিতিতে গাইবান্ধার ফুলছড়ি উপজেলায় কর্মহীন হয়ে পড়া মানুষের জন্য একটি ফুড ব্যাংক গড়ে তোলা হচ্ছে। সমাজের বিত্তবান শ্রেণি থেকে শুরু করে যে কেউ এই ব্যাংকে যেকোনো সামগ্রী দিয়ে সহযোগিতা করতে পারবে। সেটি হতে পারে চাল, আলু, ভোজ্য তেল, ডাল, লবণ, পেঁয়াজ, শিশুখাদ্যসহ অন্যান্য খাদ্যসামগ্রী। উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তার (ইউএনও) নেতৃত্বে এই ফুড ব্যাংকের পাশাপাশি ফেসবুকের মাধ্যমে একটি স্বেচ্ছাসেবক দলও গঠন করা হচ্ছে, যার সদস্যদের মাধ্যমে দান গ্রহণ ও তা বণ্টন করা হবে।

এই কার্যক্রমে ব্যাপক সাড়া মিলছে বলে জানা গেছে। ফুড ব্যাংকের জন্য গ্রহণ করা খাদ্যশস্য একটি কেন্দ্রীয় ভাণ্ডারে রেখে সমন্বয়ের মাধ্যমে প্রয়োজন অনুযায়ী বণ্টন করা হবে। এর মাধ্যমে শ্রমজীবী ও কর্মহীন মানুষের খাদ্য নিরাপত্তা অনেকটাই নিশ্চিত করা যাবে বলে মনে করছেন সংশ্লিষ্ট ব্যক্তিরা।

ফুলছড়ি উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা আবু রায়হান দোলন বলেন, ফুলছড়ি উপজেলার মোট জনসংখ্যার একটি বড় অংশ অকৃষি পেশায় নিয়োজিত; যাদের মধ্যে রিকশা-ভ্যানচালক, রেস্টুরেন্ট শ্রমিক, নৌকা শ্রমিক ও দিনমজুর বেশি হওয়ায় এ সময়ে তারা বেকার হয়ে পড়েছে। মূলত এ শ্রেণির মানুষের খাদ্য নিরাপত্তা নিশ্চিত করার জন্য ফুড ব্যাংক সৃষ্টির এই উদ্যোগ। তিনি বলেন, ‘সর্বস্তরের মানুষ এই কার্যক্রমে সহযোগিতার হাত বাড়িয়ে দিচ্ছে, যা আমাদের আশাবাদী করে তুলেছে।’

প্রশাসন সূত্র জানায়, নদীভাঙন কবলিত ফুলছড়িতে করোনা পরিস্থিতির কারণে সৃষ্টি হয়েছে কর্মহীনতা। অসহায় মানুষের পাশে দাঁড়াতে সরকারি উদ্যোগের পাশাপাশি ফুলছড়ি উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তার নেতৃত্বে উপজেলা প্রশাসন সর্বস্তরের মানুষের সামাজিক নিরাপত্তা নিশ্চিত করতে একটি ফেসবুক গ্রুপের মাধ্যমে স্বেচ্ছাসেবক দল গঠনের কাজও শুরু করেছে। এ গ্রুপের মাধ্যমে প্রতিটি ওয়ার্ডে স্বেচ্ছাসেবক নিয়োগের প্রক্রিয়া চলছে। স্বেচ্ছাসেবক দলে উপজেলার সাতটি ইউনিয়নের ৬৩ ওয়ার্ডের আগ্রহী যে কেউ অংশগ্রহণ করতে পারবে। তাদের মাধ্যমে জরুরি তথ্য, ত্রাণ ও প্রয়োজনে ওষুধ সরবরাহসহ অন্যান্য সহায়তা গ্রহণ ও প্রদান করা হবে।

উদাখালী ইউনিয়নের দক্ষিণ বুড়াইল গ্রামের শিক্ষক শামসুজ্জোহা বাবলু এ সম্পর্কে বলেন, এতে প্রকৃত গরিব, অসহায় ও কর্মহীন মানুষ উপকৃত হবে।

মন্তব্য



সাতদিনের সেরা