kalerkantho

মঙ্গলবার । ১২ জ্যৈষ্ঠ ১৪২৭ । ২৬  মে ২০২০। ২ শাওয়াল ১৪৪১

ঢাকায় এলো চীনের তিন লাখ মাস্ক

কূটনৈতিক প্রতিবেদক   

৩০ মার্চ, ২০২০ ০০:০০ | পড়া যাবে ২ মিনিটে



নভেল করোনাভাইরাস (কভিড-১৯) প্রাদুর্ভাবের পরিপ্রেক্ষিতে চীনের আলিবাবা ফাউন্ডেশন ও জ্যাক মা ফাউন্ডেশনের পাঠানো তিন লাখ মাস্ক গতকাল রবিবার ঢাকায় পৌঁছেছে। সেগুলোর মধ্যে ৩০ হাজার এন৯৫ মাস্ক এবং বাকি দুই লাখ ২৭ হাজার সার্জিক্যাল মাস্ক। ঢাকায় চীনের উপমিশন প্রধান হুয়ালং ইয়ান গতকাল চীনা ওই সহায়তাসামগ্রীগুলো বাংলাদেশ সরকারের প্রতিনিধিদের কাছে হস্তান্তর করেন। এর আগে গত কয়েক দিনে বাংলাদেশকে ৪০ হাজার ৫০০ টেস্ট কিট দিয়েছে চীন।

ঢাকায় চীনা দূতাবাস জানায়, আরো রোগীর নভেল করোনাভাইরাস সংক্রমণের পরীক্ষা করতে বাংলাদেশের সক্ষমতা জোরদারের লক্ষ্যে চীন টেস্ট কিটগুলো প্রদান করেছে। চীন বাংলাদেশ সরকারকে সরাসরি দিয়েছে ১০ হাজার টেস্ট কিট, এক হাজার ইনফ্রারেড থার্মোমিটার, ১৫ হাজার এন৯৫ মাস্ক ও ১০ হাজার ‘পার্সোনাল প্রটেক্টিভ ইকুইপমেন্ট (পিপিই)’। অন্যদিকে চীনের অনুরোধে দেশটির আলিবাবা ফাউন্ডেশন ও জ্যাক মা ফাউন্ডেশন দিয়েছে ৩০ হাজার টেস্ট কিট ও তিন লাখ মাস্ক।

এদিকে ঢাকায় চীন দূতাবাস বাংলাদেশকে দেওয়া টেস্ট কিট নিয়ে উদ্বেগ নাকচ করেছে। দূতাবাস বলেছে, চীন থেকে কেনা টেস্ট কিট স্পেনে ঠিকভাবে কাজ না করার পরিপ্রেক্ষিতে বাংলাদেশের জনগণের মধ্যে কিছুটা উদ্বেগের খবর তারা দেখেছে। স্পেন টেস্ট কিট কিনেছে শেনঝেন বায়োটেকনোলজি কম্পানি লিমিটেড থেকে। ওই কম্পানি চীনের ‘ন্যাশনাল মেডিক্যাল প্রডাক্টস অ্যাডমিনিস্ট্রেশনের (এনএমপিএ)’ কাছ থেকে বিক্রির অনুমতি পায়নি। যোগ্যতাসম্পন্ন মেডিক্যাল পণ্য সরবরাহকারী হিসেবে ওই কম্পানি চীনের বাণিজ্য মন্ত্রণায়ের তালিকাভুক্ত নয়।

অন্যদিকে চীন বাংলাদেশকে যে টেস্ট কিটগুলো সরবরাহ করেছে সেগুলো শেনঝেন বায়োটেকনোলজির কোনো পণ্য নয়। মানসম্মত প্রক্রিয়ায় এবং যোগ্যতাসম্পন্ন সরবরাহকারীদের কাছ থেকে সেগুলো কেনা হয়েছে।

মন্তব্য



সাতদিনের সেরা