kalerkantho

রবিবার । ২২ চৈত্র ১৪২৬। ৫ এপ্রিল ২০২০। ১০ শাবান ১৪৪১

১৬৫০ কৃষি কর্মকর্তা নিয়োগে হাইকোর্টের স্থিতাবস্থার আদেশ আপিলে বহাল

নিজস্ব প্রতিবেদক   

১৩ মার্চ, ২০২০ ০০:০০ | পড়া যাবে ২ মিনিটে



কৃষি সম্প্রসারণ অধিদপ্তরের এক হাজার ৬৫০ জন উপসহকারী কৃষি কর্মকর্তা নিয়োগের ওপর স্থিতাবস্থা বজায় রাখতে হাইকোর্টের দেওয়া আদেশ বহাল রেখেছেন আপিল বিভাগ। প্রধান বিচারপতি সৈয়দ মাহমুদ হোসেনের নেতৃত্বে আপিল বিভাগ গতকাল বৃহস্পতিবার হাইকোর্টের আদেশ স্থগিত চেয়ে রাষ্ট্রপক্ষের করা পৃথক দুটি আবেদন খারিজ করে দিয়েছেন।

আদালতে রাষ্ট্রপক্ষে ছিলেন অ্যাটর্নি জেনারেল মাহবুবে আলম ও অতিরিক্ত অ্যাটর্নি জেনারেল মুরাদ রেজা। রিট আবেদনকারী পক্ষে ছিলেন অ্যাডভোকেট সালাহউদ্দিন দোলন ও ব্যারিস্টার সুব্রত কুমার কুণ্ডু।

হাইকোর্ট পৃথক দুটি রিট আবেদনে গত ১৬ ফেব্রুয়ারি এক আদেশে কৃষি সম্প্রসারণ অধিদপ্তরের এক হাজার ৬৫০ জন উপসহকারী কৃষি কর্মকর্তা নিয়োগের ওপর স্থিতাবস্থা বজায় রাখার নির্দেশ দেন। একই সঙ্গে কোটা পদ্ধতি অনুসরণ না করার অভিযোগ নিষ্পত্তিতে সংশ্লিষ্টদের নিষ্ক্রিয়তা কেন অবৈধ ঘোষণা করা হবে না এবং কোটা পদ্ধতি অনুসরণ না করার অভিযোগ তদন্ত করে ফল পুনঃপ্রকাশ করতে কেন নির্দেশ দেওয়া হবে না, তা জানতে চেয়ে রুল জারি করেন আদালত। জনপ্রশাসন ও কৃষিসচিব, সরকারি কর্ম কমিশন (পিএসসি) চেয়ারম্যান ও কৃষি সম্প্রসারণ অধিদপ্তরের মহাপরিচালককে চার সপ্তাহের মধ্যে রুলের জবাব দিতে বলা হয়। আরিফ হোসেন ও আনন্দ কুমার চন্দসহ ৩৩৬ জনের একটি এবং রাশেদুল ইসলামসহ ৩৩ জনের আরেকটি একটি রিট আবেদনে এই আদেশ দেওয়া হয়।

এক হাজার ৬৫০ জন উপসহকারী কৃষি কর্মকর্তা নিয়োগের জন্য ২০১৮ সালের ২৩ জানুয়ারি বিজ্ঞপ্তি প্রকাশ করা হয়। এর ভিত্তিতে অনুষ্ঠিত লিখিত পরীক্ষায় পাঁচ হাজার ১১৪ জনকে উত্তীর্ণ দেখিয়ে ২০১৮ সালের ১৩ সেপ্টেম্বর ফল প্রকাশ করা হয়। এরপর ২০১৯ সালের ১৮ ডিসেম্বর থেকে চলতি বছরের জানুয়ারি পর্যন্ত তাঁদের মৌখিক পরীক্ষা নেওয়া হয়। এই পরীক্ষা শেষে সবাইকে উত্তীর্ণ দেখিয়ে গত ১৭ জানুয়ারি ফল প্রকাশ করা হয়। এ অবস্থায় চাকরিপ্রার্থীরা ওই ফল প্রকাশে কোটা পদ্ধতি অনুসরণ করা হয়নি মর্মে অভিযোগ এনে কৃষিসচিব ও কৃষি সম্প্রসারণ অধিদপ্তরের মহাপরিচালকের কাছে আবেদন করেন।

মন্তব্য



সাতদিনের সেরা