kalerkantho

বুধবার । ২০ জ্যৈষ্ঠ ১৪২৭ । ৩ জুন ২০২০। ১০ শাওয়াল ১৪৪১

প্রতিবন্ধী মেয়ে ধর্ষণ

মামলা হয়নি বিয়ের জন্য পণের চাপ

নিজস্ব প্রতিবেদক, হাওরাঞ্চল   

২৪ ফেব্রুয়ারি, ২০২০ ০০:০০ | পড়া যাবে ১ মিনিটে



কিশোরগঞ্জের নিকলীতে এক প্রতিবন্ধী মেয়েকে (১৮) ধর্ষণ ঘটনার ১০ দিন পার হলেও থানায় মামলা হয়নি। সহায়হীন পরিবারটির গৃহকর্ত্রী জানেন না কোথায় কিভাবে বিচারপ্রার্থী হতে হবে। তিনি এলাকার চেয়ারম্যান ও মাতব্বরদের কাছে বারবার ছুটে গিয়েও সুবিচার পাননি।

মেয়েটির মাসহ পরিবারের সদস্যরা জানান, মাতব্বররা চাইছেন, তাঁদের কাছ থেকে যৌতুক নিয়ে বিচারের নামে নির্যাতনের শিকার প্রতিবন্ধী মেয়েটিকে আপাতত অভিযুক্ত ধর্ষকের কাছে গছিয়ে দিয়ে অপরাধ আড়াল করতে। পরিবারের অভিযোগ, ধর্ষককে রক্ষায় গ্রামের মাতব্বররা ভূমিকা রাখছেন।   

গত ১৪ ফেব্রুয়ারি জারইতলা ইউনিয়নে খালি বাসায় একা পেয়ে সাজনপুর দক্ষিণহাটির রাহিম মিয়ার বখাটে ছেলে সাত্তার মিয়া মেয়েটিকে ধর্ষণ করেন।

অভিযুক্ত সাত্তার প্রথমে প্রতিবন্ধী মেয়েটিকে ধর্ষণের কথা অস্বীকার করেন। পরে বলেন, মেডিক্যাল পরীক্ষায় প্রমাণ হলে মেয়েটিকে গ্রহণ করতে তাঁর আপত্তি নেই।

জারইতলা ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান কামরুল ইসলাম মানিক বলেন, মেয়েটির পরিবার এখনো বিচার পায়নি। তবে মেয়েটির মায়ের কাছে ধর্ষকের কাছে বিয়ে দেওয়ার জন্য চার কড়া (সাত শতক) বাড়ি ও এক লাখ টাকা চাওয়া হয়েছে বলে তিনি শুনেছেন।

মন্তব্য



সাতদিনের সেরা