kalerkantho

বুধবার । ২০ জ্যৈষ্ঠ ১৪২৭ । ৩ জুন ২০২০। ১০ শাওয়াল ১৪৪১

সাফারি পার্কে নীলগাই

আঞ্চলিক প্রতিনিধি, গাজীপুর    

২৩ ফেব্রুয়ারি, ২০২০ ০০:০০ | পড়া যাবে ২ মিনিটে



সাফারি পার্কে নীলগাই

চাঁপাইনবাবগঞ্জের শিবগঞ্জ উপজেলার মনাকষা ইউনিয়নের মাসুদপুর ঠুঠাপাড়া সীমান্ত এলাকা থেকে গত শুক্রবার ভারত থেকে আসা বিরল প্রজাতির নীলগাই উদ্ধার করেছে বিজিবি। ছবি : কালের কণ্ঠ

চাঁপাইনবাবগঞ্জের শিবগঞ্জ থেকে উদ্ধার হওয়া দেশের বিলুপ্ত প্রজাতির একটি নীলগাইয়ের বাস হয়েছে গাজীপুরের বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিব সাফারি পার্ক। গতকাল শনিবার সকালে সেখানে হরিণের ছোট বেষ্টনীতে অবমুক্ত করা হয় নীলগাইটি।

সাফারি পার্কের কর্মকর্তারা জানিয়েছেন, অবমুক্ত করা নীলগাইটি মাদি। অবমুক্তকালে আহত আর দুর্বল ছিল এটি। তাঁরা ধারণা করছেন, উদ্ধারের আগেই কোনো কারণে আহত হয়েছিল প্রাণীটি।

টানা ২১ দিন নিবিড় পর্যবেক্ষণে রাখার পর নীলগাইটি হরিণের বড় বেষ্টনীতে স্থানান্তর করা হবে।

গত শুক্রবার চাঁপাইনবাবগঞ্জের শিবগঞ্জ উপজেলার মনাকষা ইউনিয়নের মাসুদপুর ঠুঠাপাড়া সীমান্ত এলাকা থেকে এই নীলগাইটি উদ্ধার করে বিজিবি। চাঁপাইনবাবগঞ্জ ৫৩ বিজিবির অধিনায়ক লেফটেন্যান্ট কর্নেল মাহবুবুর রহমান খান জানান, ওই দিন সকাল ১০টার দিকে স্থানীয় কয়েকজন কৃষক পদ্মা নদীর পারে কাঁদায় আটকে থাকা নীলগাইটি দেখতে পায়। খবর পেয়ে নীলগাইটি উদ্ধার করেন তাঁরা। পরে ওই দিন রাতেই বন বিভাগের কাছে এই প্রাণীটিকে হস্তান্তর করা হয়।

রাজশাহী বন্য প্রাণী ব্যবস্থাপনা ও প্রকৃতি সংরক্ষণ বিভাগের ফরেস্টার আশরাফুল ইসলাম জানান, নীলগাইটি গতকাল সকাল সাড়ে ১০টার দিকে গাজীপুর বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিব সাফারি পার্কের কর্মকর্তাদের কাছে হস্তান্তর করা হয়। তিনি জানান, এটি ভারতীয় নীলগাই।

সাফারি পার্কের বন্য প্রাণী তত্ত্বাবধায়ক আনিসুর রহমান জানান, নীলগাই বিরল প্রজাতির বিলুপ্তপ্রায় বন্য প্রাণী। ১০০ বছর আগে ভারত, পাকিস্তান ও বাংলাদেশের বিভিন্ন এলাকায় নীলগাই দেখা যেত।

২০১৮ সালের ৪ সেপ্টেম্বর ঠাকুরগাঁওয়ের রাণীশংকৈল উপজেলার যদুয়ার গ্রামের পাশে উদ্ধার হওয়া নীলগাইটি দিনাজপুরের রামসাগর জাতীয় উদ্যানের মিনি চিড়িয়াখানায় অবমুক্ত করা হয়েছিল। এরপর ২০১৯ সালের ২২ জানুয়ারি নওগাঁর জোতবাজার এলাকা থেকে উদ্ধার করা হয়েছিল একটি মর্দা নীলগাই। সেটিকেও রামসাগর জাতীয় উদ্যানে অবমুক্ত করা হয়। প্রজননের উদ্দেশ্যে তাদের একত্রে রাখলেও কিছুদিন পরই আহত মাদি নীলগাইটি মারা যায়। সেই থেকে সেখানে একা রয়েছে মর্দা নীলগাইটি।

সাফারি পার্কের বন্য প্রাণী তত্ত্বাবধায়ক আনিসুর রহমান জানান, রামসাগর জাতীয় উদ্যানে থাকা মর্দা নীলগাইটি এই সাফারি পার্কে আনা হলে সঙ্গী পাবে অবমুক্ত হওয়া এই নীলগাইটি।

মন্তব্য



সাতদিনের সেরা