kalerkantho

বুধবার । ৬ ফাল্গুন ১৪২৬ । ১৯ ফেব্রুয়ারি ২০২০। ২৪ জমাদিউস সানি ১৪৪১

বাংলাদেশ-সৌদি আরব যৌথ কমিশনের দুই দিনের বৈঠক শেষ

সম্পর্ক জোরদারের অঙ্গীকার

কালের কণ্ঠ ডেস্ক   

১৪ ফেব্রুয়ারি, ২০২০ ০০:০০ | পড়া যাবে ৩ মিনিটে



সম্পর্ক জোরদারের অঙ্গীকার

জনশক্তি, বিদ্যুৎ, জ্বালানি, টেলিযোগাযোগসহ বিভিন্ন ক্ষেত্রে সহযোগিতা বাড়ানোর পাশাপাশি বিদ্যমান দ্বিপক্ষীয় সম্পর্ক আরো জোরদার করার অঙ্গীকারের মধ্য দিয়ে দুই দিনের বাংলাদেশ ও সৌদি আরবের ১৩তম যৌথ কমিশনের (জেসি) বৈঠক গতকাল বৃহস্পতিবার শেষ হয়েছে। বাংলাদেশের পক্ষ থেকে প্রয়োজনীয় সব ধরনের সহযোগিতার আশ্বাসের পরিপ্রেক্ষিতে সৌদি আরবের বড় কম্পানিগুলো এখানে ব্যাপক বিনিয়োগের সম্ভাবনা নিয়েও জেসি আলোচনা করেছে। আলোচনায় বাংলাদেশ প্রতিনিধিদলের নেতৃত্ব দেন অর্থনৈতিক সম্পর্ক বিভাগের (ইআরডি) সচিব মনোয়ার আহমেদ। অন্যদিকে সৌদি আরবের পক্ষে নেতৃত্ব দেন সে দেশের শ্রম ও সামাজিক উন্নয়ন মন্ত্রণালয়ের আন্তর্জাতিকবিষয়ক উপমন্ত্রী মাহির আব্দুল রহমান গসিম।

ইআরডির আয়োজনে জেসির বিভিন্ন অধিবেশনে উভয় দেশের সংশ্লিষ্ট মন্ত্রণালয়, বিভাগ ও সংস্থার ঊর্ধ্বতন কর্মকর্তারা অংশ নেন। দুই দেশের মধ্যকার দীর্ঘদিনের বন্ধুত্বপূর্ণ ও পারস্পরিক সম্পর্ক সমুন্নত রাখার লক্ষ্যে অত্যন্ত আন্তরিক পরিবেশে এ আলোচনা অনুষ্ঠিত হয়। যৌথ কমিশন শেষে গতকাল এনইসি সম্মেলনকক্ষে ইআরডি সচিব ও সৌদি উপমন্ত্রী চুক্তিতে সই করেন।

সচিব মনোয়ার আহমেদ বলেন, জেসি দ্বিপক্ষীয় সম্পর্ককে এক নতুন উচ্চতায় নিয়ে গেছে। এটা আমাদের বন্ধুত্ব ও সহযোগিতার নতুন যুগের সূচনা।’ তিনি জানান, সৌদিপক্ষ অনেক প্রকল্পে বিনিয়োগে সম্মত হয়েছে এবং এ ব্যাপারে শিগগিরই দুটি সমঝোতা স্মারক সই হবে।

সৌদি উপমন্ত্রী মাহির আব্দুল রহমান গসিম বলেন, সৌদি এই দ্বিপক্ষীয় সম্পর্ককে আরো উচ্চতর পর্যায়ে নিয়ে যেতে চায়।

দ্বিপক্ষীয় বৈঠকে বাংলাদেশ থেকে সৌদি আরবে মাছ-মাংস আমদানি করার ওপর সে দেশে বিদ্যমান অস্থায়ী নিষেধাজ্ঞা প্রত্যাহারের জন্য বাংলাদেশ অনুরোধ জানিয়েছে। উভয় পক্ষই সৌদি আরবে বাংলাদেশি মেডিক্যাল কর্মী নিয়োগ করার ব্যাপারে তাদের সদিচ্ছা প্রকাশ করেছে। তারা মেডিক্যাল পরামর্শদাতা, নার্স এবং ধাত্রী নিয়োগপ্রক্রিয়া শুরু করতেও সম্মত হয়েছে।

পররাষ্ট্র, স্বরাষ্ট্র ও বিচার বিভাগীয় সহযোগিতার ক্ষেত্রে উভয় পক্ষই পাসপোর্ট, ওয়ার্কিং ভিসা এবং অন্যান্য ভ্রমণসংক্রান্ত কাগজপত্র প্রদান ত্বরান্বিত করতে একমত হয়েছে। সৌদিপক্ষ প্রবাসী কল্যাণ ও বৈদেশিক কর্মসংস্থান মন্ত্রণালয় এবং জনশক্তি, কর্মসংস্থান ও প্রশিক্ষণ ব্যুরোর (বিএমইটি) সঙ্গে কাজ করার বিষয়ে তাদের আগ্রহ প্রকাশ করেছে।

সৌদিপক্ষ সৌদি ফান্ড ফর ডেভেলপমেন্ট (এসএফডি) এবং বাংলাদেশ কেন্দ্রীয় ব্যাংকের মধ্যে সহযোগিতা জোরদার করার জন্য আগ্রহ প্রকাশ করেছে। উভয় পক্ষ বাংলাদেশি ব্যাবসায়িক খাতে সুবিধাভোগীদের আর্থিক সহায়তা দিতে সৌদি এক্সপোর্ট প্রগ্রাম (এসইপি) জোরদার করার মাধ্যমে পারস্পরিক সুবিধার বিষয়ে এবং যৌথ অনুষ্ঠানের আয়োজন সম্পর্কে আলোচনা করেছে।

বাংলাদেশ বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি, জ্বালানি ও বিদ্যুৎ, চিকিৎসাবিজ্ঞান এবং প্রকৌশলসহ বিভিন্ন শাখায় বাংলাদেশি শিক্ষার্থীদের আরো বেশি বৃত্তি দেওয়ার জন্য সৌদি আরবের কাছে অনুরোধ করেছে।

উভয় পক্ষ বাংলাদেশে কৃষি ও মাছ চাষের ক্ষেত্রে বিভিন্ন প্রকল্পের জন্য বিনিয়োগের সুযোগ এবং সম্ভাব্যতা যাচাইয়ের বিষয়ে আলোচনা করেছে। উভয় পক্ষ শ্রমসংক্রান্ত বিষয়ে সংশ্লিষ্ট কমিটিতে সহযোগিতা অব্যাহত রাখতে সম্মত হয়েছে।

আলোচনা শেষে বাংলাদেশ ও সৌদি আরব উভয়ই দেশের প্রতিনিধিরা পারস্পরিক সহযোগিতা আরো জোরদার করতে সম্মত হয়েছে। বাংলাদেশ-সৌদি আরব যৌথ কমিশনের ১৪তম অধিবেশন রিয়াদে অনুষ্ঠিত হবে। সূত্র : বাসস।

মন্তব্য



সাতদিনের সেরা