kalerkantho

মঙ্গলবার । ৫ ফাল্গুন ১৪২৬ । ১৮ ফেব্রুয়ারি ২০২০। ২৩ জমাদিউস সানি ১৪৪১

কুমিল্লা বিশ্ববিদ্যালয়ের সমাবর্তনে রাষ্ট্রপতি

ছাত্রদের মাদকের বিরুদ্ধে প্রতিরোধ গড়তে হবে

কুমিল্লা বিশ্ববিদ্যালয় প্রতিনিধি   

২৮ জানুয়ারি, ২০২০ ০০:০০ | পড়া যাবে ২ মিনিটে



ছাত্রদের মাদকের বিরুদ্ধে প্রতিরোধ গড়তে হবে

রাষ্ট্রপতি মো. আবদুল হামিদ গতকাল কুমিল্লা বিশ্ববিদ্যালয়ের সমাবর্তনে অর্থমন্ত্রী আ হ ম মুস্তফা কামালকে ক্রেস্ট প্রদান করেন। ছবি : পিআইডি

মাদক রুখতে ছাত্রসমাজকে এর বিরুদ্ধে প্রতিরোধ সংগ্রাম গড়ে তোলার আহ্বান জানিয়েছেন রাষ্ট্রপতি মো. আবদুল হামিদ। গতকাল সোমবার কুমিল্লা বিশ্ববিদ্যালয়ের প্রথম সমাবর্তনে সভাপতির বক্তব্যে তিনি এ আহ্বান জানিয়েছেন। 

রাষ্ট্রপতি বলেন, ‘একটা সময়ে কুমিল্লা পড়ালেখায় পুরো দেশে এক নম্বর ছিল। এখন অবাধে মাদক সেবন চলে। মাদক প্রবেশের রাস্তাগুলোর মধ্যে কুমিল্লা অন্যতম। আমি কুমিল্লার সবাইকে বলতে চাই, ১৯৭১ সালের মুক্তিযুদ্ধে ছাত্রসমাজের বড় অবদান ছিল। অনেক ত্যাগের বিনিময়ে আমরা স্বাধীনতা অর্জন করেছি। এখন নতুন করে আবার সংগ্রাম করতে হবে। নেশাজাতীয় দ্রব্যের বিরুদ্ধে ছাত্রসমাজকে অগ্রণী ভূমিকা পালনের আহ্বান জানাচ্ছি।’  

রাষ্ট্রপতি সমাবর্তনে গ্র্যাজুয়েটদের উদ্দেশে বলেন, ‘তোমরা আজ দেশের উচ্চতর মানবসম্পদ। দেশের ভবিষ্যৎ উন্নয়ন ও অগ্রগতি নির্ভর করছে তোমাদের ওপর। তোমাদের জ্ঞান, মেধা ও প্রজ্ঞা হবে দেশের উন্নয়নের প্রধান চালিকাশক্তি। সব সময় সত্য ও ন্যায়কে সমুন্নত রাখবে। নৈতিকতা ও দৃঢ়তা দিয়ে দুর্নীতি ও অন্যায়ের প্রতিবাদ করবে। তোমাদের কাছে জাতির প্রত্যাশা, কখনো অর্জিত ডিগ্রির মর্যাদা, ব্যক্তিগত সম্মানবোধ ও নৈতিকতাকে ভূলুণ্ঠিত করবে না।’

স্বাগত বক্তব্যে বিশ্ববিদ্যালয়ের উপাচার্য অধ্যাপক ড. এমরান কবির চৌধুরী বলেন, শিক্ষা মানুষের চেতনা  ও নৈতিকতার বিকাশ ঘটায়। একটি বিশ্ববিদ্যালয়ের অন্যতম প্রধান কাজ হলো শিক্ষার্থীদের সুপ্ত প্রতিভা ও প্রচ্ছন্ন শক্তি, লুকায়িত সামর্থ্য ও যোগ্যতার প্রসার ঘটিয়ে মানবসম্পদে পরিণত করা। কুমিল্লা বিশ্ববিদ্যালয় শিক্ষার্থীদের সে রকম করে গড়ে তুলতে নিরলস কাজ করে যাচ্ছে।      

সমাবর্তন বক্তা অর্থমন্ত্রী আ হ ম মুস্তফা কামাল বলেন, ‘বঙ্গবন্ধুর কারণে আমরা এ দেশ পেয়েছি। আর তাই সবাইকে সব সময় তাঁকে মনেপ্রাণে ধারণ করতে হবে। এ বিশ্ববিদ্যালয়কে প্রধানমন্ত্রী অনেক টাকার বাজেট দিয়েছেন। ভবিষ্যতে এখানে আরো বরাদ্দ দেওয়া হবে।’

মন্তব্য



সাতদিনের সেরা