kalerkantho

শনিবার । ২১ চৈত্র ১৪২৬। ৪ এপ্রিল ২০২০। ৯ শাবান ১৪৪১

নবাবগঞ্জে কৃষি জমি ধ্বংস করে ইটভাটার রাস্তা!

অমিতাভ অপু, দোহার-নবাবগঞ্জ (ঢাকা) প্রতিনিধি   

২৪ জানুয়ারি, ২০২০ ০০:০০ | পড়া যাবে ২ মিনিটে



ঢাকার নবাবগঞ্জের নয়নশ্রী ইউনিয়নের ঘোষপাড়া গ্রামে কৃষি জমির ওপর দিয়ে ইটভাটার জন্য রাস্তা নির্মাণের অভিযোগ উঠেছে।

জানা যায়, ‘এনবিসি’ নামে কৃষি জমিতে গড়ে তোলা ওই ইটভাটার মালিক নয়নশ্রী ইউনিয়ন পরিষদের সাবেক চেয়ারম্যান পলাশ চৌধুরী ও শিকারীপাড়ার ইউপি চেয়ারম্যান আলীমোর রহমান খান পিয়ারাসহ কয়েকজন। গত বছর থেকে ভাটার কাজ শুরু হয়। এ বছর ভাটায় যাতায়াতের জন্য কৃষি জমি নষ্ট করে চলছে সড়ক নির্মাণের কাজ। অজুহাত দেওয়া হচ্ছে, নয়নশ্রী ও শিকারীপাড়া ইউনিয়নের সংযোগ সড়ক হিসেবে রাস্তা নির্মাণ করা হচ্ছে।

অভিযোগ উঠেছে, আলীমোর রহমান খান পিয়ারা নির্মাণাধীন রাস্তাকে ইউনিয়ন পরিষদের রাস্তা বলে কৃষি জমির সর্বনাশ করছেন। জমি হারানো ক্ষুব্ধ মানুষজন বাধা দিতে গেলে তাদের হুমকি দেওয়া হচ্ছে। এতে স্থানীয়দের মধ্যে চরম উত্তেজনা বিরাজ করছে।

সম্প্রতি ঢাকার পার্শ্ববর্তী এলাকা ও উপজেলায় থাকা ইটভাটা বন্ধে সরকার কঠোর অবস্থানে রয়েছে। একই সঙ্গে কৃষি জমিতে ইটভাটা না করার নির্দেশনা থাকলেও তা মানছেন না এনবিসির মালিকরা।

নয়নশ্রী ইউনিয়ন পরিষদের সাবেক চেয়ারম্যান পলাশ চৌধুরী বলেন, সব ধরনের নিয়ম-কানুন মেনে সরকারি অনুমোদন নিয়েই ইটভাটাটি তৈরি করা হয়েছে। আশপাশের কোনো কৃষি জমি কেটে ইটভাটায় বা রাস্তার কাজে ব্যবহার করা হচ্ছে না। পুকুরের মাটি কেটে ব্যবহার করা হচ্ছে। এ ছাড়া সাপ্লাই কম্পানির কাছ থেকে মাটি কিনে ভাটায় ব্যবহার করা হচ্ছে। ইটভাটার জন্য কৃষি জমির ওপর দিয়ে আলাদা কোনো রাস্তা নির্মাণ করা হচ্ছে না। ইটভাটার পাশ দিয়ে এক ইউনিয়ন থেকে আরেক ইউনিয়নে যাতায়াতের সংযোগ সড়ক হচ্ছে।

গতকাল বৃহস্পতিবার এ বিষয়ে জানতে শিকারীপাড়া ইউনিয়ন পরিষদ চেয়ারম্যান আলীমোর রহমানের সঙ্গে মোবাইল ফোনে একাধিকবার যোগাযোগের চেষ্টা করা হলেও তাঁকে পাওয়া যায়নি।

উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা এইচ এম সালাউদ্দিন মনজু বলেন, ‘এ বিষয়ে কেউ লিখিত বা মৌখিক অভিযোগ করেনি। তাই বিষয়টি আমার জানা নেই। স্থানীয়রা লিখিত অভিযোগ করলে তা আমলে নিয়ে প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা নেওয়া হবে।’

মন্তব্য



সাতদিনের সেরা