kalerkantho

মঙ্গলবার । ৫ ফাল্গুন ১৪২৬ । ১৮ ফেব্রুয়ারি ২০২০। ২৩ জমাদিউস সানি ১৪৪১

লঞ্চের কেবিনে কিশোরী ধর্ষণ

বেতাগী ও রাজাপুরে দলবদ্ধ যৌনপীড়ন
আলাদা ঘটনায় গ্রেপ্তার ৬

কালের কণ্ঠ ডেস্ক   

২৩ জানুয়ারি, ২০২০ ০০:০০ | পড়া যাবে ৪ মিনিটে



লঞ্চের কেবিনে কিশোরী ধর্ষণ

কথিত প্রেমিকের বিরুদ্ধে এক কিশোরীকে কৌশলে চাঁদপুরের লঞ্চের কেবিনে তুলে একাধিকবার ধর্ষণের অভিযোগ উঠেছে। ফতুল্লা পুলিশ তাঁকে গ্রেপ্তার করেছে।  বরগুনার  বেতাগীতে এক কিশোরী এবং ঝালকাঠির রাজাপুরে এক মাদরাসাছাত্রীকে দলবদ্ধ ধর্ষণের অভিযোগ উঠেছে। রাজাপুরের ঘটনায় অভিযুক্ত দুজনকে গ্রেপ্তার করা হয়েছে। এদিকে ঝিনাইদহের কালীগঞ্জ, ফরিদপুরের বোয়ালমারী, সিরাজগঞ্জের সলঙ্গায় ধর্ষণের অভিযোগে তিনজনকে গ্রেপ্তার করেছে পুলিশ। এ ব্যাপারে প্রতিনিধিদের পাঠানো খবর :

নারায়ণগঞ্জ : বেড়াতে নেওয়ার কথা বলে লঞ্চের কেবিনে কিশোরীকে একাধিকবার ধর্ষণের অভিযোগে কথিত প্রেমিক সালাউদ্দিনকে (৩০) গ্রেপ্তার করেছে ফতুল্লা মডেল থানা পুলিশ। সালাউদ্দিনকে গতকাল বুধবার দুপুরে আদালতে পাঠায় পুলিশ। এর আগে গত মঙ্গলবার রাতে ভুক্তভোগী ওই কিশোরী বাদী হয়ে ফতুল্লা মডেল থানায় মামলা করলে ওই দিন রাতেই পুলিশ সালাউদ্দিনকে গ্রেপ্তার করে। সালাউদ্দিন চাঁদপুর পৌর এলাকার উত্তর জিটি রোডের সিদ্দিক আলীর ছেলে।  পুলিশ ও ভুক্তভোগী কিশোরী জানায়, ফতুল্লার এনায়েতনগর এলাকার একটি হোসিয়ারিতে কাজ করত ওই কিশোরী। সেখানেই সালাউদ্দিনের সঙ্গে তার পরিচয় হয়। এরপর তিন বছর ধরে তাঁদের প্রেম চলে। এর মধ্যে সালাউদ্দিনের সঙ্গে বিয়ের কথাও হয়। গত ১১ জানুয়ারি সকালে ফতুল্লার পঞ্চবটি বাসস্ট্যান্ডে তাকে তাঁর প্রেমিক আসতে বলেন। এরপর সেখান থেকে কৌশলে তাকে ঢাকার সদরঘাট এলাকায় নিয়ে একটি লঞ্চে উঠতে বলেন। কিশোরী লঞ্চে উঠতে গড়িমসি করলে সালাউদ্দিন আশ্বাস দেন গ্রামের বাড়িতে নিয়ে তাঁকে বিয়ে করবেন। এরপর চাঁদপুরগামী একটি লঞ্চের কেবিনে নিয়ে তাঁকে ধর্ষণ করেন সালাউদ্দিন। পরবর্তী সময়ে চাঁদপুর থেকে ফিরে আসার পথেও সালাউদ্দিন তাকে ফের যৌন নির্যাতন করেন।

বেতাগী (বরগুনা) : বেতাগীতে ওরস মাহফিল থেকে ডেকে নিয়ে তিন বন্ধু মিলে এক কিশোরীকে দলবদ্ধ ধর্ষণের অভিযোগ পাওয়া গেছে।

উপজেলার হোসনাবাদ ইউনিয়নের জলিসা বাজারসংলগ্ন মীরা বাড়িতে গত মঙ্গলবার রাতে ওরসের আয়োজন ছিল। মাহফিলে ওই কিশোরীটি যায়। রাত  সাড়ে ৮টার দিকে কিশোরীর সঙ্গে কথা আছে বলে একই এলাকার বারেক হাওলাদারের ছেলে নাইম হোসেন (১৮) কৌশলে ডেকে নিয়ে যান। এ সময় একই এলাকার অন্য দুই বন্ধু মোতালেব হাওলাদারের ছেলে সাগর হাওলাদার (১৭) ও নুরুল হকের ছেলে নাইম (১৯) একজোট হয়ে কিশোরীকে বাগানে নিয়ে ধর্ষণ করেন।

ঝালকাঠি ও রাজাপুর : রাজাপুরে ষষ্ঠ শ্রেণির এক মাদরাসাছাত্রীকে (১২) দলবদ্ধ ধর্ষণের অভিযোগ পাওয়া গেছে। এ ঘটনার সঙ্গে জড়িত থাকার অভিযোগে সাগর খান (১৮) ও হেমায়েত খলিফা (৪০) নামের দুজনকে গত মঙ্গলবার রাতে গ্রেপ্তার করেছে পুলিশ। নির্যাতিতার পরিবার জানায়, গত রবিবার সকালে ওই কিশোরীর মা স্থানীয় একটি ক্লিনিকে যান। কিশোরী একা বাড়ির সামনে দাঁড়িয়ে ছিল। এ সময় জোর করে প্রতিবেশী জালাল হাওলাদার ও সাগর খান স্থানীয় হেমায়েত খলিফার বাড়িতে নিয়ে যান। ওই বাড়িতে কেউ না থাকার সুযোগে তিনজন মিলে দলবদ্ধ ধর্ষণ করেন। পুলিশ রাতেই অভিযুক্ত দুজনকে গ্রেপ্তার করে। 

কালীগঞ্জ (ঝিনাইদহ) : কালীগঞ্জে এক প্রতিবন্ধী নারীকে (২৪) ধর্ষণের অভিযোগে আল-আমিন (২৫) নামে এক যুবককে গ্রেপ্তার করেছে পুলিশ। গতকাল বুধবার ভোরে উপজেলার জলকার মাঝদিয়া গ্রাম থেকে তাঁকে গ্রেপ্তার করা হয়। গত  মঙ্গলবার দুপুরে কালীগঞ্জের জলকর মাঝদিয়া গ্রামের একটি মাঠে ছাগল চরাতে যান ওই নারী। সেখানে থেকে একটি বাঁশ বাগানে নিয়ে আল-আমিন তাঁকে ধর্ষণ করেন।

ফরিদপুর : বোয়ালমারীর ময়না ইউনিয়নের বান্দুগ্রাম এলাকা থেকে শিশু ধর্ষণচেষ্টা মামলার আসামি নাজিম বিশ্বাসকে (৩৮) গ্রেপ্তার করেছেন র‌্যাব-৮ ফরিদপুর সদস্যরা। গত মঙ্গলবার সন্ধ্যায় বোয়ালমারীর বান্দুগ্রামে সাবেক মেয়র শুকুর শেখের ইটভাটার কাছ থেকে তাঁকে গ্রেপ্তার করা হয়।

উল্লাপাড়া (সিরাজগঞ্জ) : টাঙ্গাইলের মির্জাপুরের গোড়াই গ্রাম থেকে গতকাল বুধবার বাসচালক শাহীন আলম (২৬) নামের এক ধর্ষককে গ্রেপ্তার করেছে সলঙ্গা থানা পুলিশ। তিনি সিরাজগঞ্জের কামারখন্দের শ্যামপুর গ্রামের আসলাম হোসেনের ছেলে।

সখীপুর (টাঙ্গাইল) : সখীপুরে লুৎফর রহমান (৪০) নামের এক ব্যবসায়ীর বিরুদ্ধে সপ্তম শ্রেণিতে পড়ুয়া এক ছাত্রীকে ধর্ষণচেষ্টার অভিযোগে মামলা হয়েছে। গত সোমবার রাতে ওই ছাত্রীর মা বখাটে লুৎফর রহমানকে একমাত্র আসামি করে সখীপুর থানায় মামলা করেন। অভিযুক্ত লুৎফর রহমান উপজেলার কচুয়া ভূইয়াপাড়া গ্রামের শামসু মিয়ার ছেলে। গত শুক্রবার রাতে রাস্তায় একা পেয়ে ওই ছাত্রীকে ধর্ষণের চেষ্টা করেন লুৎফর।

মন্তব্য



সাতদিনের সেরা