kalerkantho

শনিবার । ২১ চৈত্র ১৪২৬। ৪ এপ্রিল ২০২০। ৯ শাবান ১৪৪১

জিদনিকে ডোবায় ফেলেন তারই বাবা!

আমতলী (বরগুনা) প্রতিনিধি   

১৯ জানুয়ারি, ২০২০ ০০:০০ | পড়া যাবে ২ মিনিটে



বরগুনার আমতলীতে ডোবার পানিতে ফেলে শিশু জিদানকে হত্যার রহস্য উন্মোচন হয়েছে। গত বৃহস্পতিবার রাতে ৪০ দিন বয়সী এই শিশুকে ডোবায় ফেলেন তারই বাবা জাহাঙ্গীর সিকদার। পুলিশের নিবিড় জিজ্ঞাসাবাদে জাহাঙ্গীর ঘটনার দায় স্বীকার করেছেন বলে নিশ্চিত করেছেন আমতলী থানার ওসি আবুল বাশার। পুলিশ ও স্থানীয় সূত্রে জানা গেছে, জাহাঙ্গীর সিকদার-সীমা দম্পতির ঘরে সোহাগী (৯) ও জান্নাতী (৬) নামের দুই কন্যাসন্তান ছিল। জাহাঙ্গীর খুব করে চাইছিলেন, এবার যেন তাঁদের ছেলেসন্তান হয়। তবে তাঁর সেই আকাঙ্ক্ষা পূরণ হয়নি। এবারও কন্যাসন্তান, নাম রাখা হয় জিদনি। তবে তাকে কিছুতেই মেনে নিতে পারছিলেন না জাহাঙ্গীর। শেষ পর্যন্ত পানিতে ফেলে জিদনিকে হত্যা করেন তিনি। স্থানীয় সূত্রে জানা গেছে, গত ৮ ডিসেম্বর জাহাঙ্গীর-সীমার ঘরে আসে শিশুকন্যা জিদনি। ঘটনার দিন গত বৃহস্পতিবার রাতে জাহাঙ্গীর তিন সন্তানকে নিয়ে ঘরের মধ্যে শুয়ে ছিলেন। এ সময় স্ত্রী সীমা বেগম ও শাশুড়ি পারুল বেগম বসতঘরের বাইরে বসে চাল পরিষ্কার করছিলেন। কাজ শেষে রাত ১১টার দিকে ঘরে প্রবেশ করেন মা সীমা বেগম ও নানী পারুল বেগম। এ সময় জিদনিকে দেখতে না পেয়ে তাঁরা চিৎকার দেন। তখন ঘরের পেছনের দরজা খোলা ছিল। পরে প্রতিবেশী ও বাড়ির লোকজন ঘরের পেছনের ডোবায় কাঁথাবালিশ ও বিছানাপত্রসহ জিদনির মরদেহ দেখতে পায়।

মন্তব্য



সাতদিনের সেরা