kalerkantho

শুক্রবার । ২০ চৈত্র ১৪২৬। ৩ এপ্রিল ২০২০। ৮ শাবান ১৪৪১

সংকট-অর্জন নিয়েই ৪৯ বছরে জাবি

জাহাঙ্গীরনগর বিশ্ববিদ্যালয় প্রতিনিধি   

১২ জানুয়ারি, ২০২০ ০০:০০ | পড়া যাবে ৩ মিনিটে



সংকট-অর্জন নিয়েই ৪৯ বছরে জাবি

৪৯ বছরে পদার্পণ করছে বাংলাদেশের অন্যতম উচ্চশিক্ষা প্রতিষ্ঠান জাহাঙ্গীরনগর বিশ্ববিদ্যালয়। প্রাচ্যের অক্সফোর্ডখ্যাত ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের পরই এর অবস্থান। প্রতিষ্ঠার দীর্ঘ সময় পেরিয়ে গেলেও এখনো নানা সংকটে বিশ্ববিদ্যালয়টি। পর্যাপ্ত সুযোগ-সুবিধা থেকেও বঞ্চিত বিশ্ববিদ্যালয়টির শিক্ষার্থীরা। সংশ্লিষ্টরা বলছেন, অধিকতর উন্নয়ন প্রকল্প বাস্তবায়ন হলে সব সংকট অচিরেই দূর হবে।

১৯৭১ সালের ১২ জানুয়ারি জাহাঙ্গীরনগর মুসলিম বিশ্ববিদ্যালয় নামে প্রতিষ্ঠিত হয়ে চারটি বিভাগে ১৫০ জন শিক্ষার্থী নিয়ে একাডেমিক কার্যক্রম শুরু হয়। বর্তমানে বিশ্ববিদ্যালয়টিতে ছয়টি অনুষদে ৩৬টি বিভাগ এবং চারটি ইনস্টিটিউটে ১৩ হাজারের বেশি শিক্ষার্থী ও ৭৫০ জন শিক্ষক রয়েছেন। প্রতিষ্ঠার পর থেকে নানা সংকটে আটকা এই বিশ্ববিদ্যালয়। ৪৮ বছর পার করলেও এখনো হতে পারেনি পূর্ণাঙ্গ পাবলিক বিশ্ববিদ্যালয়। শিক্ষার্থীরা পাননি পর্যাপ্ত সুযোগ-সুবিধা। সেশনজট, আবাসন সংকট, মাদক, র‌্যাগিং সমস্যা, শিক্ষক-শ্রেণিকক্ষের স্বল্পতা, গ্রন্থাগারে আসন সংকট, পরিবহনের অপ্রতুলতা, নামমাত্র চিকিৎসাকেন্দ্র, গবেষণায় অনগ্রসরতা, একাডেমিক ও প্রশাসনিক কাজের ধীরগতি, অপরিকল্পিত অবকাঠামো উন্নয়ন, পরিত্যক্ত সুইমিংপুল, শিক্ষকদের রাজনীতি ও ক্ষমতার দ্বন্দ্ব, ছাত্রসংগঠনগুলোর হল দখল, রাজনৈতিক দ্বন্দ্ব, ক্রীড়া ও সাংস্কৃতিক কর্মকাণ্ডকে গুরুত্ব না দেওয়া, বিভিন্ন বিভাগে প্রয়োজনীয় উপকরণ সংকট ইত্যাদি কারণে কাক্ষিত লক্ষ্য অর্জন করতে পারছে না বিশ্ববিদ্যালয়টি। ফলে ব্যাহত হচ্ছে শিক্ষার পরিবেশ। প্রতিষ্ঠার পর সমাবর্তন হয়েছে মাত্র পাঁচটি।

শিক্ষার্থীরা মনে করছেন, বর্তমানে এই বিশ্ববিদ্যালয়ের সবচেয়ে বড় সমস্যা সেশনজট। অধিকাংশ বিভাগেই রয়েছে সেশনজট। শিক্ষক ও শ্রেণিকক্ষ সংকট, বিভাগীয় শিক্ষকদের সমন্বয়ের অভাবে বেশির ভাগ বিভাগে এই সেশনজট সৃষ্টি হয়েছে। অভিযোগ রয়েছে, শিক্ষকরা বেসরকারি বিশ্ববিদ্যালয় ও সান্ধ্যকালীন ক্লাস নিতে বেশি সময় ব্যয় করছেন। সঠিক সময়ে ক্লাস ও পরীক্ষা, উত্তরপত্র মূল্যায়ন না করায় স্নাতক (সম্মান) ও স্নাতকোত্তর শেষ করতে অনেক বিভাগের সাত থেকে সাড়ে সাত বছর লেগে যাচ্ছে। এর মধ্যে অর্থনীতি, ফার্মেসি, পাবলিক হেল্থ অ্যান্ড ইনফরমেটিকস্, নগর ও অঞ্চল পরিকল্পনা এবং আইন ও বিচার বিভাগের অবস্থা বেহাল। আইন ও বিচার বিভাগ প্রতিষ্ঠার সাত বছর পার হলেও বিভাগটি এখনো পায়নি নিজস্ব শ্রেণিকক্ষসহ আনুষঙ্গিক সুযোগ-সুবিধা।

জাহাঙ্গীরনগর বিশ্ববিদ্যালয় প্রত্যাশার কতটুকু পূরণ করতে পেরেছে জানতে চাইলে জার্নালিজম অ্যান্ড মিডিয়া স্টাডিজ বিভাগের স্নাতকোত্তর শিক্ষার্থী দেবজ্যোতি ঘোষ বলেন, ‘এ কথা সত্য, প্রতিষ্ঠার ৪৮ বছর পার করলেও জাহাঙ্গীরনগর বিশ্ববিদ্যালয়ের অর্জন এখনো যথেষ্ট নয়। তবে নারীর ক্ষমতায়নে বিশ্ববিদ্যালয়টি অনন্য নজির স্থাপন করেছে। দেশের পাবলিক বিশ্ববিদ্যালয়গুলোর মধ্যে নির্বাচিত প্রথম নারী উপাচার্য বর্তমানে টানা দ্বিতীয় মেয়াদে দায়িত্ব পালন করছেন। প্রথম নারী রেজিস্ট্রার আমাদের।’

বিশ্ববিদ্যালয়ের উপ-উপাচার্য (শিক্ষা) অধ্যাপক ড. নুরুল আলম বলেন, ‘আমি মনে করি আর দশটা বিশ্ববিদ্যালয় থেকে খুব দ্রুত আমরা এগিয়েছি, উন্নতি করছি। আগামী দুই থেকে তিন বছরের মধ্যে বর্তমান উপাচার্যের নেতৃত্বে আমরা আরো এগিয়ে যাব। শুরুতে আমাদের যেসব সমস্যা ছিল, সেগুলো আমরা কাটিয়ে উঠতে পেরেছি। একেবারে প্রথম দিকে কিন্তু আমাদের আবাসন সংকট ছিল না। পরে শিক্ষার্থীর সংখ্যা বাড়লে এবং অন্যান্য কারণে আবাসন সমস্যা সৃষ্টি হয়েছে। সেটি উত্তরণের জন্য আমরা বিভিন্ন পদক্ষেপ নিয়েছি। লাইব্রেরি, শ্রেণিকক্ষ, শিক্ষক সংকট নিরসনে আমরা কাজ করছি। সামনের দিনগুলোতে বিশ্ববিদ্যালয়কে  সেশনজট, র‌্যাগিং ও মাদকমুক্ত করার প্রক্রিয়া চলছে। আর আমাদের বর্তমান বিশ্ববিদ্যালয় র‍্যাংকিং দেখলে দেখবেন, দেশে আমাদের অবস্থান দ্বিতীয়। গবেষণায়ও আমাদের বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষকরা যথেষ্ট ভালো করছেন।’

মন্তব্য



সাতদিনের সেরা