kalerkantho

শনিবার । ২৩ জ্যৈষ্ঠ ১৪২৭ । ৬ জুন ২০২০। ১৩ শাওয়াল ১৪৪১

অটোরিকশায় নাকাল রংপুর শহর

লাইসেন্স আছে ৫২০০টির চলে ৩০ হাজারের বেশি

নিজস্ব প্রতিবেদক, রংপুর   

৮ জানুয়ারি, ২০২০ ০০:০০ | পড়া যাবে ৩ মিনিটে



লাইসেন্স আছে ৫২০০টির চলে ৩০ হাজারের বেশি

রংপুর নগরের ব্যস্ততম সড়কগুলো যানজটমুক্ত করতে ফোর লেনে রূপান্তরের পরও নগরবাসী সুবিধা পাচ্ছে না। বরং অপরিকল্পিত নগরায়ণ আর অবৈধ অটোরিকশা এবং ফুটপাতে হকারদের দখলদারি আরো বেড়েছে। নগরে চলাচলের জন্য সিটি করপোরেশন থেকে পাঁচ হাজার ২০০টি বৈধ লাইসেন্স দেওয়া হলেও চলাচল করছে ৩০ হাজারের বেশি অটোরিকশা। অবৈধভাবে চলাচল করছে প্রায় ২৫ হাজার অটোরিকশা। এ কারণে যানজটের কবলে পড়ে বাড়ছে নগরবাসীর ভোগান্তি। অন্যদিকে অদক্ষ ও অযোগ্য চালকের কারণে প্রায়ই ঘটছে দুর্ঘটনা।

অভিযোগ রয়েছে, নগরীতে নকল অ্যাপস তৈরি করে একই নম্বরের হাজার হাজার ব্যাটারিচালিত অটোরিকশা চলাচল করছে। এক শ্রেণির অসাধু মালিক সড়কে ব্যাটারিচালিত অটো চালিয়ে নগরীকে যানজটের নগরে পরিণত করেছে। ফলে নগরীর যানজট কোনোভাবেই নিয়ন্ত্রণ করা যাচ্ছে না। ট্রাফিক বিভাগ গত এক সপ্তাহে একই নম্বর এবং একই অ্যাপস ব্যবহারকারী কমপক্ষে ১০টি অটোরিকশা জব্দ করেছে। সিটি করপোরেশনের এক শ্রেণির অসাধু ব্যক্তি কম্পিউটারের দোকানের সঙ্গে আঁতাত করে নকল অ্যাপস তৈরি করে অটোচালকদের কাছে বিক্রি করছে। তবে নকল অ্যাপস ব্যবহারকারী অটোরিকশা জব্দ হলেও যারা নকল অ্যাপস তৈরি করে সরবরাহ করছে তাদের এখন পর্যন্ত চিহ্নিত করতে পারেনি ট্রাফিক বিভাগ ও সিটি করপোরেশন।

নগরবাসীর অভিযোগ, ব্যস্ততম মডার্ন মোড়, পার্কের মোড়, কলেজ রোড-লালবাগ, শাপলা চত্বর, গ্র্যান্ড হোটেল মোড়, জাহাজ কোম্পানী মোড়, সুপারমার্কেট ট্রাফিক মোড়, সিটি বাজার, কাচারীবাজার জিরো পয়েন্ট, মেডিক্যাল মোড়, সাতমাথা মোড়, মাহিগঞ্জ, কেন্দ্রীয় বাস টার্মিনাল রোডে প্রতিদিনই কোনো না কোনো সময় ভয়াবহ যানজটের গ্যাঁড়াকলে পড়তে হয়। শুধু তা-ই নয়, ট্রাফিক পুলিশের দুর্বল ব্যবস্থাপনা, প্রায় ২৫ হাজার অবৈধ অটোরিকশার দৌরাত্ম্য আর দখলদারদের কবলে চলাচলের রাস্তাটুকু চলে যাওয়ায় এই ভোগান্তি সহসাই পিছু ছাড়ছে না। নগরীর প্রধান সড়কগুলোর দুই ধারের ৫৮ ফুট ফোর লেন সড়কের প্রায় পুরোটাই অটোরিকশা আর হকারদের দখলে থেকে যায়। এ কারণে ভয়াবহ যানজট এখন যেন এই নগরীর নিত্যসঙ্গী।

মহানগর ট্রাফিক পুলিশের পরিদর্শক দেলোয়ার হোসেন নগরীতে নকল অ্যাপস ব্যবহার করে অটোরিকশা চলাচলের বিষয়টি স্বীকার করে জানান, প্রায়ই অভিযান চালিয়ে নকল অ্যাপস (লাইসেন্স) ব্যবহারকারী অটোরিকশা জব্দ করা হচ্ছে। সেগুলো থানায় জমা করা হচ্ছে। খুব দ্রুত জব্দ করা অটোরিকশার মালিকদের বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নেওয়া হবে। সিটি করপোরেশনের লাইসেন্স শাখার প্রধান শামীম হোসেন জানান, লাইসেন্স দেওয়ার বাইরে যারা নকল অ্যাপ ব্যবহার অথবা অন্য কোনো অবৈধ উপায়ে অটো চালাচ্ছে তাদের বিরুদ্ধে সিটি করপোরেশন অভিযান চালাচ্ছে।

এ ব্যাপারে যোগাযোগ করা হলে রংপুর সিটি করপোরেশনের মেয়র মোস্তাফিজার রহমান মোস্তফা বলেন, পুলিশ সহায়তা করলেই অবৈধ অটোরিকশার বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নেওয়া যাবে। সিটি করপোরেশন থেকে প্রায় পাঁচ হাজার ২০০ অটোরিকশার লাইসেন্স দেওয়া হয়েছে।

মন্তব্য



সাতদিনের সেরা