kalerkantho

সোমবার । ১৬ ডিসেম্বর ২০১৯। ১ পোষ ১৪২৬। ১৮ রবিউস সানি                         

ইকুরিয়ায় দুই দালালকে কারাদণ্ড ভ্রাম্যমাণ আদালতের

নতুন সড়ক আইন কার্যকরের পর ভ্রাম্যমাণ আদালতের ৬১৭ মামলা

নিজস্ব প্রতিবেদক ও কেরানীগঞ্জ প্রতিনিধি   

৫ ডিসেম্বর, ২০১৯ ০০:০০ | পড়া যাবে ২ মিনিটে



সড়ক পরিবহন আইন-২০১৮ কার্যকরের পর থেকে গতকাল বুধবার পর্যন্ত বাংলাদশে সড়ক পরিবহন কর্তৃপক্ষের (বিআরটিএ) ভ্রাম্যমাণ আদালত ৬১৭টি মামলা করেছেন ঢাকা ও এর আশপাশে। গতকাল ইকুরিয়ায় অভিযান চালিয়ে বিআরটিএ অফিসে দালালি করা দুজনকে কারাদণ্ড দিয়েছেন ভ্রাম্যমাণ আদালত।

জানা গেছে, কেরানীগঞ্জ উপজেলার ইকুরিয়ায় অবস্থিত বিআরটিএ কার্যালয়ে দুপুরে অভিযান চালান আদালত। অভিযানে দুই দালালকে আটক করে ১৫ দিন করে কারাদণ্ড দেওয়া হয়। এ দণ্ড দেন বিআরটিএ সদর ৪-এর নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট এস এম সামীরুল ইসলাম। কারাদণ্ডাদেশপ্রাপ্তরা হলেন কেরানীগঞ্জের হাসনাবাদ মোকামপাড়ার নাজিম উদ্দিনের ছেলে আব্দুর রাজ্জাক (৩০) ও একই এলাকার লোকমান হোসেনের ছেলে মো. রবিন (৩২)।

বিআরটিএ ইকুরিয়া কার্যালয় সূত্রে জানা গেছে, একজন সেবাপ্রত্যাশীর অভিযোগের ভিত্তিতে ওই দুই দালালকে আটক করেন আদালত। পরে তাঁদের জিজ্ঞাসাবাদের পর অভিযোগের সত্যতা পাওয়া গেলে দণ্ডবিধি ১৮৬০-এর ১৮৬ ধারার বিধান মতে ১৫ দিনের বিনাশ্রম কারাদণ্ড দেওয়া হয়।

গতকাল বিআরটিএর সাতটি ভ্রাম্যমাণ আদালত পরিচালনা করা হয় ইকুরিয়া, বনানী, শিশুমেলা, তেজগাঁও শিল্প এলাকা, খিলক্ষেত, জোয়ার সাহারা, ঢাকা-চট্টগ্রাম মহাসড়ক, সূত্রাপুর, মুগদা ও বিআরটিএ মিরপুর কার্যালয়ের সামনে। মামলা করা হয় ৫০টি। জরিমানা আদায় করা হয় ৫৫ হাজার ৭০০ টাকা।

নতুন সড়ক পরিবহন আইন কার্যকর হওয়ার পর গত ১৮ নভেম্বর থেকে গতকাল পর্যন্ত বিআরটিএ ঢাকায় অভিযান চালিয়ে ৬১৭টি মামলা করে। এ সময়ে জরিমানা আদায় করে সাত লাখ ২৪ হাজার ৬০০ টাকা। বিআরটিএর চেয়ারম্যান ড. কামরুল আহসান কালের কণ্ঠকে বলেন, ‘আমরা যেহেতু একটা সমঝোতার মাধ্যমে এগোতে চাই, সেহেতু আইনের কিছু ধারার কঠোর প্রয়োগ হবে না।’

মন্তব্য



সাতদিনের সেরা