kalerkantho

শনিবার । ০৭ ডিসেম্বর ২০১৯। ২২ অগ্রহায়ণ ১৪২৬। ৯ রবিউস সানি ১৪৪১     

সৌদি-বাংলাদেশ হজচুক্তি সম্পন্ন

হজযাত্রীর কোটা ১০ হাজার বৃদ্ধি

নিজস্ব প্রতিবেদক   

৫ ডিসেম্বর, ২০১৯ ০০:০০ | পড়া যাবে ২ মিনিটে



বাংলাদেশি হজযাত্রীর কোটা ১০ হাজার বাড়িয়েছে সৌদি আরব সরকার। এর ফলে আগামী বছর বাংলাদেশ থেকে এক লাখ ৩৭ হাজার জন পবিত্র হজ পালনের সুযোগ পাবেন। চলতি বছর এ কোটা ছিল এক লাখ ২৭ হাজার।

গতকাল বুধবার সৌদি আরবের মক্কায় অনুষ্ঠিত দ্বিপক্ষীয় হজচুক্তিতে কোটা বৃদ্ধির বিষয়টি অন্তর্ভুক্ত হয়। বাংলাদেশের ধর্ম প্রতিমন্ত্রী অ্যাডভোকেট শেখ মো. আব্দুল্লাহ এবং সৌদি হজ ও ওমরাহ বিষয়ক মন্ত্রী ড. মোহাম্মদ সালেহ বিন তাহের বেনতেন চুক্তি স্বাক্ষর অনুষ্ঠানে নিজ নিজ দেশের নেতৃত্ব দেন। ধর্ম প্রতিমন্ত্রীর সঙ্গে সৌদি আরব সফররত তাঁর সহকারী একান্ত সচিব শেখ নাজমুল হক সৈকত কোটা বাড়ানোর এ তথ্য নিশ্চিত করেছেন।

সূত্র মতে, সৌদির সঙ্গে হজচুক্তির সময় বাংলাদেশের পক্ষ থেকে মুসলিম জনসংখ্যানুপাতে কোটা বৃদ্ধি করে এক লাখ ৪৮ হাজার করার প্রস্তাব দেওয়া হয়েছিল।

এদিকে বাংলাদেশের হজ এজেন্সিগুলোর এ বছরের জন্য আন্তর্জাতিক বিমান পরিবহন সংস্থার (আইএটিএ) সদস্য হওয়ার বাধ্যবাধকতা শিথিল করা হয়েছে। এ ছাড়া বেসরকারি হজ এজেন্সিপ্রতি সর্বনিম্ন ১০০ জন হজযাত্রী পাঠানোর নিয়ম বহাল রয়েছে। এ ছাড়া মিনা, মুজদালিফা ও আরাফায় সৌদি সার্ভিসের মান বৃদ্ধিরও প্রতিশ্রুতি দিয়েছে সৌদি পক্ষ।

বাংলাদেশের হজচুক্তি প্রতিনিধিদলের সদস্য হজ এজেন্সিস অ্যাসোসিয়েশন অব বাংলাদেশ—হাবের সভাপতি এম শাহাদাত হোসাইন তসলিম ফোনে হজচুক্তির বিষয়টি নিশ্চিত করেন। তিনি জানান, বাংলাদেশের অধিকাংশ প্রস্তাবই সৌদি সরকার গ্রহণ করেছে।

হজচুক্তি করতে ধর্মপ্রতিমন্ত্রী অ্যাডভোকেট শেখ মো. আব্দুল্লাহর নেতৃত্বে বাংলাদেশের একটি প্রতিনিধিদল গত সোমবার রাতে সৌদি আরবে পৌঁছায়।

মন্তব্য



সাতদিনের সেরা