kalerkantho

বুধবার । ২২ জানুয়ারি ২০২০। ৮ মাঘ ১৪২৬। ২৫ জমাদিউল আউয়াল ১৪৪১     

বঙ্গবন্ধু প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়

যৌন হয়রানির অভিযোগে শিক্ষকের শাস্তি দাবি

বশেমুরবিপ্রবি প্রতিনিধি   

২১ নভেম্বর, ২০১৯ ০০:০০ | পড়া যাবে ২ মিনিটে



গোপালগঞ্জের বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়ের (বশেমুরবিপ্রবি) বিদেশি ছাত্রীকে যৌন নির্যাতনে অভিযুক্ত সমাজবিজ্ঞান বিভাগের প্রভাষক হুমায়ুন কবিরের দৃষ্টান্তমূলক শাস্তির দাবিতে আবারও মানববন্ধন করেছেন শিক্ষার্থীরা। গতকাল বুধবার সকালে বিশ্ববিদ্যালয়ের প্রশাসনিক ভবনের সামনে ঘণ্টাব্যাপী মানববন্ধনে কৃষিবিজ্ঞান বিভাগসহ বিভিন্ন বিভাগের ও বিদেশি শিক্ষার্থীরা অংশ নেন।

মানববন্ধনে অংশ নেওয়া কৃষিবিজ্ঞান বিভাগের শিক্ষার্থী মো. ইয়ামিন হোসেন কালের কণ্ঠকে বলেন, ‘আমরা কল রেকর্ডিংসহ কিছু প্রমাণ পেয়েছি, যাতে হুমায়ুন কবির স্যারের অপরাধ প্রমাণ হয়ে যায়। তিনি অভিযুক্ত হলে অতিদ্রুত তাঁর শাস্তির দাবি জানাই। ২৫ নভেম্বরের মধ্যে আমরা ওই ঘটনার বিচারের কোনো অগ্রগতি না পেলে আন্দোলনে নামতে বাধ্য হব।’

জানতে চাইলে বিশ্ববিদ্যালয়ের প্রক্টর রাজিউর রহমান বলেন, আজ বৃহস্পতিবার তদন্ত রিপোর্ট জমা দেওয়া হবে। এরই মধ্যে হুমায়ুন কবিরের সহকারী প্রক্টর পদ স্থগিত করা হয়েছে।

সাবেক উপাচার্যের বিষয়ে দুদকের অনুসন্ধান

এদিকে বশেমুরবিপ্রবির সাবেক উপাচার্য খন্দকার নাসির উদ্দিনের দুর্নীতি ও অনিয়মের অভিযোগ বিষয়ে অনুসন্ধান শেষে গতকাল ক্যাম্পাস ছেড়ে গেছেন দুদকের পরিচালক শেখ মো. ফানাফিল্যাহ। মঙ্গল ও বুধবার ক্যাম্পাসের সার্বিক অবস্থা পর্যবেক্ষণ করেন পরিচালক। যৌন নির্যাতনে অভিযুক্ত সিএসই বিভাগের সাবেক চেয়ারম্যান সহকারী অধ্যাপক আক্কাস আলী, সাবেক উপাচার্যের ভাতিজা ও সেকশন অফিসার থেকে সহকারী অধ্যাপক হওয়া আন্তর্জাতিক সম্পর্ক বিভাগের সাবেক চেয়ারম্যান খন্দকার মাহমুদ পারভেজসহ বিশ্ববিদ্যালয়ের অন্যান্য বিভাগের শিক্ষক, কর্মকর্তা-কর্মচারীদের সঙ্গে পৃথক বৈঠক করেন। সাবেক উপাচার্যের আমলের বিভিন্ন তথ্য-উপাত্ত, ফাইলসহ প্রয়োজনীয় নথি পর্যবেক্ষণ করেন। পরে তিনি শিক্ষার্থীদের বিভিন্ন অভিযোগ শোনেন। বৈঠক শেষে বিভিন্ন বিভাগের শ্রেণিকক্ষ, গবেষণাকক্ষ পরিদর্শন এবং বিশ্ববিদ্যালয়ের নির্মাণাধীন অবকাঠামো ঘুরে দেখেন।

বিশ্ববিদ্যালয়ের রেজিস্ট্রার মো. নূরউদ্দিন আহমেদ কালের কণ্ঠকে বলেন, ‘দুদক পরিচালককে আমরা সব ধরনের কাগজপত্র দিয়ে সহায়তা করার চেষ্টা করছি।’

মন্তব্য



সাতদিনের সেরা