kalerkantho

সোমবার। ২৭ জানুয়ারি ২০২০। ১৩ মাঘ ১৪২৬। ৩০ জমাদিউল আউয়াল ১৪৪১     

বাজার অস্থির করা নিয়ে ওবায়দুল কাদের বললেন

ষড়যন্ত্রকারীদের বিরুদ্ধে কঠোর ব্যবস্থা আসছে

নিজস্ব প্রতিবেদক   

২০ নভেম্বর, ২০১৯ ০০:০০ | পড়া যাবে ২ মিনিটে



আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক ওবায়দুল কাদের বলেছেন, ‘দেশে চাল-লবণের পর্যাপ্ত মজুদ আছে। যারা বাজার অস্থির করতে ষড়যন্ত্র করছে, তাদের বিরুদ্ধে কঠোর ব্যবস্থা নেওয়া হবে।’ তিনি গত রাতে ধানমণ্ডিতে আওয়ামী লীগ সভাপতি শেখ হাসিনার রাজনৈতিক কার্যালয়ে এক সংবাদ সম্মেলনে এসব কথা বলেন। লবণের দাম নিয়ে সৃষ্ট গুজবের প্রেক্ষিতে আওয়ামী লীগের বক্তব্য জানাতে সংবাদ সম্মেলনটি ডাকেন ওবায়দুল কাদের।

ওবায়দুল কাদের বলেন, ‘লবণ-চালের সংকটের বিষয়টি স্রেফ গুজব। গুজব ছড়িয়ে দেশের রাজনীতিতে অস্থিতিশীলতা ডেকে আনার চক্রান্তের বিষয়টি আমরা তদন্ত করছি। আমরা পরিষ্কার বলতে চাই, যারা এটা করছে তাদের কারো রেহাই নেই। তাদের আইনের আওতায় আনা হবে।’

তিনি বলেন, ‘কোনো অসাধু ব্যবসায়ী লবণের দাম বেশি নিলে তার বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নেওয়া হবে।’

ওবায়দুল কাদের বলেন, ‘গুজব সৃষ্টি করে লবণের দাম বৃদ্ধির ষড়যন্ত্র করা হয়েছে। বাজারে অস্থিরতা ও অরাজকতা সৃষ্টির চেষ্টা চালানো হচ্ছে। এই অপচেষ্টা থেকে কেউ কেউ রাজনৈতিক ফায়দা তুলতে চাচ্ছে। সংকট সৃষ্টি করে তারা গুজব ছড়াচ্ছে। এই গুজবের ডালপালা গজাচ্ছে। আর এতে উসকানি দিচ্ছে একটি বিরোধী দল ও তাদের নেতারা। এটা পরিষ্কার, এই মহলটি দেশে অস্থিতিশীল পরিস্থিতি করতে চায়। এরই মধ্যে আওয়াজ তুলেছে তারা আগাম নির্বাচন চায়। মামাবাড়ির আবদারের মতো তাদের আগাম নির্বাচন চাওয়ার বক্তব্য প্রতিধ্বনিত হচ্ছে।’

চালের সংকটের বিষয়ে ওবায়দুল কাদের বলেন, ‘দেশে চালের যথেষ্ট মজুদ রয়েছে। দেশের মাথাপিছু চাহিদা অনুযায়ী দুই কোটি ৭৬ লাখ মেট্রিক টন চালের প্রয়োজন পড়ে। চালের কোনো সংকট এই মুহূর্তে নেই। উপরন্তু সরকারি খাদ্যগুদামে এখন ১৪ লাখ মেট্রিক টন মজুদ রয়েছে, যা অন্যান্য বছরের তুলনায় দ্বিগুণ।’

ওবায়দুল কাদের বলেন, ‘বাংলাদেশের কোথাও মোটা চালের দাম এক পয়সাও বাড়েনি। শুধু রাজধানীসহ কিছু কিছু জায়গায় চিকন চালের দাম বেড়েছে। সেটাও বেশি নয়। বাজার তদারকি করা হচ্ছে। অসাধু ব্যবসায়ীদের বিরুদ্ধে কঠোর শাস্তিমূলক ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে। যারা অপপ্রচারে লিপ্ত তাদের কাউকে ছাড় দেওয়া হবে না।’

নতুন সড়ক পরিবহন আইন কার্যকরের প্রতিবাদে ট্রাক-কাভার্ড ভ্যান মালিক সমিতির কর্মবিরতি প্রসঙ্গে ওবায়দুল কাদের বলেন, ‘তারা আমাদের স্বরাষ্ট্রমন্ত্রীর সঙ্গে আলোচনায় বসবেন। আমি আশা করব, তাঁদের সমস্যার সমাধান হয়ে যাবে।’

মন্তব্য



সাতদিনের সেরা