kalerkantho

মঙ্গলবার । ২৮ জানুয়ারি ২০২০। ১৪ মাঘ ১৪২৬। ২ জমাদিউস সানি ১৪৪১     

ফখরুল বললেন

ভারত থেকে কিছু আদায়ের ক্ষমতা এ সরকারের নেই

নিজস্ব প্রতিবেদক   

১৭ নভেম্বর, ২০১৯ ০০:০০ | পড়া যাবে ২ মিনিটে



ভারত থেকে কিছু আদায়ের ক্ষমতা এ সরকারের নেই

বিএনপি মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর। ফাইল ছবি

বিএনপি মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর বলেছেন, ‘আমরা কখনো ভারতের বিরুদ্ধে কথা বলি না, ভারতের সঙ্গে আমাদের তো বিরোধ নেই। সমস্যাটা হচ্ছে আজকের এই সরকার। এ সরকার আমাদের সমস্যাগুলো নিয়ে ভারতের সঙ্গে কথা বলতে পারে না। সেই শক্তি, সেই বার্গেনিং ক্যাপাবিলিটি তাদের নেই। কারণ সে তাদের ওপর নির্ভর করে ক্ষমতায় টিকে থাকার জন্য। এটা হচ্ছে মূল কথা, এটা বাস্তবতা। এ সরকার যত দিন থাকবে, তত দিনই বাংলাদেশের স্বার্থ ক্ষুণ্ন হবে, বাংলাদেশ নিঃস্ব হয়ে যাবে।’

গতকাল শনিবার দুপুরে হোটেল পূর্বাণীতে অ্যাসোসিয়েশন অব ইঞ্জিনিয়ার্স, বাংলাদেশের (অ্যাব) উদ্যোগে ‘ফেনী নদীর পানি প্রত্যাহার চুক্তি : বাংলাদেশের সম্ভাব্য বিপর্যয়’ শীর্ষক সেমিনারে ফখরুল এ কথা বলেন। এতে রাজশাহী প্রকৌশল ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়ের (রুয়েট) পুরকৌশল বিভাগের অধ্যাপক ড. মো. আখতার হোসেন তথ্যচিত্রের মাধ্যমে মূল প্রবন্ধ উপস্থাপন করেন।

ফখরুল বলেন, ‘ফেনী নদী বাংলাদেশের, এটা অভিন্ন নদী নয়। সেই ফেনী নদীর পানি নিয়ে যাচ্ছে অথচ আমাদের প্রধানমন্ত্রী বলছেন, খাওয়ার পানি চাইলে পানি দেব না? ভালো কথা, পানি দেবেন। তা আমার যে লাখ লাখ মানুষ তিস্তার অববাহিকায় তারা যে আজকে পুরোপুরিভাবে নিঃস্ব হয়ে যাচ্ছে, তাদের ফসল নষ্ট হয়ে যাচ্ছে, জীবন-জীবিকা ধবংস হয়ে যাচ্ছে, সে বিষয়ে আপনি (প্রধানমন্ত্রী) একটি কথাও বলবেন না? তিস্তার পানি দিচ্ছে না। আমি পানি পাব না কেন? সীমান্তে আমার লোকদের গুলি করে মেরে ফেলে দিচ্ছে—আপনারা বলছেন, এটা কমে এসেছে। আমরা তো কমতে দেখছি না।’

তিনি বলেন, ‘আমাদের সংবিধানে বলা আছে, যেকোনো চুক্তি সংসদে উপস্থাপন করতে হবে। সেখানে আলোচনা করতে হবে। সেটা কখনোই করা হয় না।’

ফখরুল বলেন, দেশের অর্থনীতির অবস্থা একদম ভঙ্গুর হয়ে পড়েছে। খুব বড়াই করে তারা (সরকার) বলছে, বাংলাদেশ রোল মডেল, সেই রোল মডেল এমন হয়েছে যে শুধু ঋণের ওপর তাদের টিকে থাকতে হচ্ছে। অর্থনীতিবিদরা অনেকে বলেই ফেলছেন, অর্থনীতির ভবিষ্যৎ কিন্তু খারাপ। আজকের পত্রিকায় দেখবেন, গার্মেন্টের রপ্তানি বহু কমে গেছে। বহু গার্মেন্ট ফ্যাক্টরি বন্ধ হয়ে যাচ্ছে। ভিয়েতনাম এগিয়ে যাচ্ছে। ম্যানুফ্যাকচারিং ইন্ডাস্ট্রিজ আজকে বাংলাদেশে হচ্ছে না। কৃষকরা ধানের দাম পান না, ধান করা বাদই দিয়ে দিয়েছে প্রায়।

মন্তব্য



সাতদিনের সেরা