kalerkantho

বুধবার । ১১ ডিসেম্বর ২০১৯। ২৬ অগ্রহায়ণ ১৪২৬। ১৩ রবিউস সানি     

মেডিক্যাল শিক্ষার্থীর ঝুলন্ত লাশ উদ্ধার

দুই দিন ধরে নিখোঁজ ছিলেন ফরিদপুর মেডিক্যালের শিক্ষার্থী নয়ন চন্দ্রনাথ

নিজস্ব প্রতিবেদক, ফরিদপুর   

১৭ নভেম্বর, ২০১৯ ০০:০০ | পড়া যাবে ২ মিনিটে



মেডিক্যাল শিক্ষার্থীর ঝুলন্ত লাশ উদ্ধার

এমবিবিএস কোর্সের চূড়ান্ত পরীক্ষা চলছিল ফরিদপুর মেডিক্যাল কলেজের পঞ্চম বর্ষের শিক্ষার্থী নয়ন চন্দ্রনাথের (২৪)। তিনটি পরীক্ষা দিয়েছিলেন। আর বাকি ছিল তিনটি পরীক্ষা। এরপর ডাক্তার হওয়ার বিষয়টি হতো কেবলই সময়ের ব্যাপার, কিন্তু পারলেন না। মানসিক অবসাদে ভোগা এ শিক্ষার্থী নিজের কাছেই হেরে গেলেন। দুই দিন নিখোঁজ থাকার পর গতকাল শনিবার নয়নের ঝুলন্ত লাশ উদ্ধার করা হয়েছে। ধারণা করা হচ্ছে, তিনি আত্মহত্যা করেছেন।

এই ঘটনায় কোনো পক্ষ থেকে অভিযোগ করা হয়নি। এর পরও ময়নাতদন্তে মৃত্যুর প্রকৃত কারণ জানার পর সে অনুযায়ী আইনি ব্যবস্থা নেওয়া হবে বলে জানিয়েছে পুলিশ। ফরিদপুর কোতোয়ালি থানার দ্বিতীয় কর্মকর্তা (সেকেন্ড অফিসার) বেলাল হোসেন জানান, এ ঘটনায় থানায় অপমৃত্যুর মামলা হয়েছে।

নয়নের মৃত্যুশোকে গতকাল ফরিদপুর মেডিক্যাল কলেজের সব ক্লাস বন্ধ রাখা হয়। আজ রবিবার সকালে শিক্ষক ও শিক্ষার্থীদের কালো ব্যাজ ধারণ এবং দুপুরে ক্যাম্পাসে শোকসভার আয়োজন করা হয়েছে।

নয়ন ফেনী জেলার দাগনভূঞা উপজেলার আজিজ-ফাজিলপুর গ্রামের মৃত দিলীপ চন্দ্রনাথের ছেলে। তিন ভাই ও এক বোনের মধ্যে তিনি সবার ছোট। গতকাল দুপুরে তাঁর মৃতদেহ গ্রামের বাড়িতে পাঠিয়ে দেওয়া হয়।

গতকাল সকাল সাড়ে ৯টার দিকে ফরিদপুর সদর উপজেলার কৈজুরী ইউনিয়নের পশরা গ্রামে ঢাকা-বরিশাল বাইপাস সড়কের পাশে একটি করাতকলের কাঠের সঙ্গে গলায় রশি বাঁধা ঝুলন্ত অবস্থায় নয়ন চন্দ্রনাথের মৃতদেহ উদ্ধার করা হয়।

কলেজের সিসি ক্যামেরার ফুটেজ বলছে, গত বৃহস্পতিবার সকাল পৌনে ৯টার দিকে মেডিক্যাল কলেজের ছাত্রাবাস থেকে বের হন নয়ন। তিনি মোবাইল ফোন ও মানিব্যাগ রুমে রেখে যান। এর পর থেকে তাঁর খোঁজ না পাওয়ায় কলেজ কর্তৃপক্ষ বিকেলে কোতোয়ালি থানায় সাধারণ ডায়েরি (জিডি) করে।

 

মন্তব্য



সাতদিনের সেরা