kalerkantho

বৃহস্পতিবার । ০৫ ডিসেম্বর ২০১৯। ২০ অগ্রহায়ণ ১৪২৬। ৭ রবিউস সানি ১৪৪১     

ডেঙ্গু পরিস্থিতি

নতুন আক্রান্ত ৯৭ রোগী হাসপাতালে

কালের কণ্ঠ ডেস্ক   

১৬ নভেম্বর, ২০১৯ ০০:০০ | পড়া যাবে ২ মিনিটে



ডেঙ্গু আক্রান্ত হয়ে হাসপাতালে ভর্তি হওয়া নতুন রোগীর সংখ্যা কমে আসছে। গতকাল শুক্রবার সকাল ৮টা পর্যন্ত ২৪ ঘণ্টায় সারা দেশে ৯৭ জন নতুন রোগী হাসপাতালে ভর্তি হয়েছে।

তাদের মধ্যে ৩৪ জনকে ঢাকার বিভিন্ন হাসপাতালে এবং ৬৩ জনকে দেশের অন্যান্য হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে। স্বাস্থ্য অধিদপ্তরের হেলথ ইমার্জেন্সি অপারেশন সেন্টার ও কন্ট্রোল রুমের বরাত দিয়ে ইউএনবি এ তথ্য জানিয়েছে।

বর্তমানে দেশের হাসপাতালগুলোতে ডেঙ্গু আক্রান্ত ৬২৩ জন রোগী ভর্তি আছে। তাদের মধ্যে ঢাকায় চিকিৎসা নিচ্ছে ২৭৬ জন।

রোগতত্ত্ব, রোগ নিয়ন্ত্রণ ও গবেষণা ইনস্টিটিউট (আইইডিসিআর) এ পর্যন্ত ১৭৯টি মৃত্যু পর্যালোচনা করেছে এবং তাদের মধ্যে ১১২ জনের মৃত্যু ডেঙ্গুজনিত বলে নিশ্চিত করেছে।

চট্টগ্রামে আবারও বাড়ছে : চট্টগ্রাম থেকে আমাদের নিজস্ব প্রতিবেদক জানান, চট্টগ্রামে আবারও দেখা দিয়েছে ডেঙ্গুর প্রাদুর্ভাব। গত ২৪ ঘণ্টায় বাংলাদেশ ইনস্টিটিউট অব ট্রপিক্যাল অ্যান্ড ইনফেকশাস ডিজিজেস (বিআইটিআইডি) হাসপাতালে ভর্তি হয়েছে ৯ জন ডেঙ্গু রোগী।

বিআইটিআইডি হাসপাতালের কর্মকর্তারা জানান, ঘূর্ণিঝড় বুলবুলের পর ডেঙ্গু আক্রান্ত রোগীর সংখ্যা বেড়েছে। গত ছয় দিনে এ হাসপাতালে ২৯ জন রোগী ভর্তি হয়েছে। সব রোগীই ৯ নম্বর উত্তর পাহাড়তলী ওয়ার্ডের বিশ্ব কলোনি এলাকার।

বিআইটিআইডির ক্লিনিক্যাল ট্রপিক্যাল মেডিসিন বিভাগের প্রধান ডা. মামনুর রশিদ বলেন, ‘চট্টগ্রামে ডেঙ্গুর প্রাদুর্ভাব কমে এলেও হঠাৎ করে ঘূর্ণিঝড়-পরবর্তী গত কয়েক দিনে রোগীর সংখ্যা বেড়েছে। সব রোগীই চট্টগ্রামের নির্দিষ্ট একটি এলাকার।’

তিনি আরো বলেন, এ বছর বিআইটিআইডিতে ভর্তি হয়ে চিকিৎসা নিয়েছে ১৪৬ জন রোগী। তাছাড়া বহির্বিভাগে চিকিৎসা নিয়েছেন ২০ জন। তবে সম্প্রতি এ সংখ্যা আবারও ঊর্ধ্বমুখী হচ্ছে।

৯ নম্বর উত্তর পাহাড়তলী ওয়ার্ডের ডেঙ্গু পরিস্থিতি সম্পর্কে জানতে যোগাযোগ করা হলে ওয়ার্ড কাউন্সিলর জহিরুল আলম জসিম বলেন, ঘূর্ণিঝড় শুরু হওয়ার আগেও বিভিন্নভাবে পুরো ওয়ার্ডে ডেঙ্গু প্রতিরোধে সচেতনতামূলক কার্যক্রম পরিচালনা করা হয়েছে।

মন্তব্য



সাতদিনের সেরা