kalerkantho

শুক্রবার । ২৪ জানুয়ারি ২০২০। ১০ মাঘ ১৪২৬। ২৭ জমাদিউল আউয়াল ১৪৪১     

আসক কার্যালয়ে রাজউকের ভ্রাম্যমাণ আদালতের অভিযান

নিজস্ব প্রতিবেদক   

১৫ নভেম্বর, ২০১৯ ০০:০০ | পড়া যাবে ২ মিনিটে



মানবাধিকারবিষয়ক বেসরকারি সংস্থা আইন ও সালিশ কেন্দ্রের রাজধানী লালমাটিয়ার প্রধান কার্যালয়ে আকস্মিক অভিযান চালিয়েছেন রাজউকের ভ্রাম্যমাণ আদালত। এ অভিযানে সংস্থাটিকে আবাসিক এলাকায় নিজেদের কার্যালয় রাখার কারণে দুই লাখ টাকা জরিমানা করা হয়েছে। সেই সঙ্গে নির্দেশ দেওয়া হয়েছে কার্যালয় ছেড়ে দেওয়ার। গতকাল বিকেলে এই অভিযান পরিচালনা করা হয়।

অভিযান বিষয়ে সংস্থাটি বলছে, বৈধ কাগজপত্র দেখানোর পরেও আদালত তা বিবেচনা না করে জরিমানা করেছেন। ভবন মালিকের রাজউকের নকশাবহির্ভূত গ্যারেজের অংশবিশেষে অভিযান করতে এসে এমনটা করা হয়েছে। অভিযানের সময় ভ্রাম্যমাণ আদালতের নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট জেসমিন আক্তার আসক কেন আবাসিক এলাকায় অফিস পরিচালনা করছে তা জানতে চান। পরে আসকের পক্ষ থেকে তথ্য-উপাত্ত উপস্থাপন করা হয় এবং বলা হয়, ভাড়াটিয়া হিসেবে সব শর্ত মেনেই তাদের কার্যালয় চলছে।

এ বিষয়ে আসকের নির্বাহী পরিচালক শীপা হাফিজা বলেন, ‘প্রথমত, আইনে আছে আবাসিক এলাকায় অলাভজনক প্রতিষ্ঠান হতে পারবে। তাই আসককে জরিমানা করার যুক্তি নেই। দ্বিতীয়ত, এখানে জরিমানা যদি করতে হয় প্রথমে মালিককে জরিমানা করার কথা। কিন্তু আমাদের তথ্য-উপাত্ত আমলে না নিয়ে জরিমানা এবং আগামী দুই মাসের মধ্যে কার্যালয় সরানোর কথা বলা হয়েছে।’

সংস্থাটির এক বিবৃতিতে বলা হয়েছে, আসক সুবিধাবঞ্চিত মানুষের সহজগম্যতা নিশ্চিত করার জন্য লালমাটিয়া এলাকায় দীর্ঘদিন অফিস পরিচালনা করে আসছে। লালমাটিয়া এলাকায় অনেক ব্যবসায়ী প্রতিষ্ঠান, শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানসহ নানা ধরনের সেবামূলক প্রতিষ্ঠানের কার্যক্রম চলছে। যে ধারায় জরিমানা করা হয়েছে সেটি আসকের জন্য প্রযোজ্য নয়। রাজউকের নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট ইমারত নির্মাণ আইন ১৯৫২ এর ৩(ক) ধারা মতে আসককে আগামী দুই মাসের মধ্যে কার্যালয় ছেড়ে দেওয়ার জন্য নির্দেশ প্রদানের পাশাপাশি দুই লাখ টাকা জরিমানা করে তাত্ক্ষণিকভাবে দেওয়ার নির্দেশ দেন।

মন্তব্য



সাতদিনের সেরা