kalerkantho

মঙ্গলবার । ২১ জানুয়ারি ২০২০। ৭ মাঘ ১৪২৬। ২৪ জমাদিউল আউয়াল ১৪৪১     

সর্বদলীয় ছাত্র ঐক্য-৯০

রংপুরে রাঙ্গার বিরুদ্ধে তৃতীয় দিনের মতো মানববন্ধন

রংপুর অফিস   

১৪ নভেম্বর, ২০১৯ ০০:০০ | পড়া যাবে ৩ মিনিটে



শহীদ নূর হোসেনকে নিয়ে আপত্তিকর মন্তব্যের প্রতিবাদে জাতীয় পার্টির মহাসচিব মসিউর রহমান রাঙ্গার বিরুদ্ধে তৃতীয় দিনের মতো গতকাল বুধবারও রংপুরে মানববন্ধন ও বিক্ষোভ সমাবেশ হয়েছে। গতকাল সকাল ১১টায় নগরীর কাচারিবাজারে সর্বদলীয় ছাত্র ঐক্যের ব্যানারে নব্বইয়ের স্বৈরাচারবিরোধী আন্দোলনে নেতৃত্ব দেওয়া বিভিন্ন ছাত্রসংগঠনের নেতাদের অংশগ্রহণে এ মানববন্ধন অনুষ্ঠিত হয়।

এ সময় বক্তারা বলেন, শহীদ নূর হোসেনকে নিয়ে কটূক্তি করে জাতীয় পার্টির মহাসচিব মসিউর রহমান রাঙ্গা শুধু শহীদ নূর হোসেনের পরিবার ও গণতন্ত্রকে অপমান করেননি, তিনি রংপুর অঞ্চলের সহজ-সরল মানুষকে অপমান করেছেন। এই কটূক্তির জন্য শুধু বিবৃতি দিয়ে ক্ষমা চাইলে দেশের মানুষ রাঙ্গাকে ক্ষমা করবে না। এ জন্য জাতীয় সংসদে দাঁড়িয়ে এবং নূর হোসেনের মায়ের কাছে সরাসরি হাজির হয়ে ক্ষমা চাইতে হবে। দ্রুত ক্ষমা না চাইলে আন্দোলনের মাধ্যমে তাঁকে প্রতিহত এবং রংপুরে প্রবেশ করতে দেওয়া হবে না বলে ঘোষণা দেন তাঁরা। এ ছাড়া রাঙ্গার অবৈধ সম্পদ অনুসন্ধানে দুদকের হস্তক্ষেপ কামনা করেন বক্তারা।

সাবেক ছাত্রনেতা ও রংপুর মহানগর আওয়ামী লীগের সভাপতি সাফিউর রহমান সফির সভাপতিত্বে মানববন্ধনে বক্তব্য দেন রংপুর মহানগর আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক সাবেক ছাত্রনেতা তুষার কান্তি মণ্ডল, সাবেক ছাত্রনেতা ও রংপুর মহানগর বিএনপির সাধারণ সম্পাদক শহীদুল ইসলাম মিজু, সাবেক ছাত্রনেতা আনিছুর রহমান লাকু, বাসদ নেতা কমরেড আব্দুল কুদ্দুস, জাসদ নেতা গৌতম রায়, ওয়ার্কার্স পার্টির নেতা মাজিরুল ইসলাম লিটন, শিক্ষক নেতা সাফিয়ার রহমান, ডা. সৈয়দ মামুনার রশীদ, শহীদ মুক্তিযোদ্ধার সন্তান দেবদাস ঘোষ দেবু, সাবেক ছাত্রনেতা নওশাদ রশীদ, আজিজুল ইসলাম, ওবায়দুর রহমান ময়না, অ্যাডভোকেট দিলশাদ ইসলাম মুকুল, সাংবাদিক নেতা রফিক সরকার ও আবেদুল হাফিজ, সাবেক ছাত্রনেতা শহীদুর ইসলাম খুররম প্রমুখ।

দুপুর ২টায় রংপুর কোর্ট চত্বরে একই দাবিতে মানববন্ধন করে মুক্তিযুদ্ধের চেতনায় বিশ্বাসী আইনজীবী পরিষদ। এ সময় রাঙ্গাকে রংপুরে অবাঞ্ছিত ঘোষণার দাবিতে বক্তব্য দেন রংপুর জেলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক অ্যাডভোকেট রেজাউল করিম রাজু, সহসভাপতি ও সাবেক এমপি অ্যাডভোকেট হোসনে আরা লুত্ফা ডালিয়া, বঙ্গবন্ধু আইনজীবী পরিষদের কেন্দ্রীয় সদস্য অ্যাডভোকেট নির্মল চন্দ্র মাহাতা, নারী ও শিশু নির্যাতন দমন কোর্ট-১ এর পিপি অ্যাডভোকেট রফিক হাসনাইন, সিনিয়র আইনজীবী রফিকুল ইসলাম মুকুল, আব্দুর রহমান প্রমুখ।

মন্তব্য



সাতদিনের সেরা