kalerkantho

শুক্রবার । ০৬ ডিসেম্বর ২০১৯। ২১ অগ্রহায়ণ ১৪২৬। ৮ রবিউস সানি ১৪৪১     

আবরার হত্যাকাণ্ড

ভিন্নমত সহ্য করতে পারাই সবচেয়ে বড় মানবিক গুণ

বিশিষ্টজনদের মত

নিজস্ব প্রতিবেদক   

১৪ নভেম্বর, ২০১৯ ০০:০০ | পড়া যাবে ৩ মিনিটে



ভিন্নমত সহ্য করতে পারাই সবচেয়ে বড় মানবিক গুণ

বুয়েট শিক্ষার্থী আবরার হত্যাকাণ্ড সমালোচনা সহ্য করতে না পারার প্রবণতার সহিংস এবং নিষ্ঠুর বহিঃপ্রকাশ—এক বাক্যে এটাই বলছেন বিশিষ্টজনরা। তাঁদের মতে রাজনীতির ভেতর বিদ্যমান অসহিষ্ণু পরিবেশ বা ভিন্নমত সহ্য করতে না পারার প্রবণতাই ছাত্র বা তরুণসমাজকে প্রভাবিত করেছে। তাদের মতে অন্যের মতামতকে সহ্য করাই হচ্ছে গণতন্ত্রের মূলনীতি। এ ছাড়া মানবিক গুণাবলিসম্পন্ন মানুষ হতে হলে অবশ্যই ভিন্নমত বা সমালোচনা সহ্য করার মানসিক ভিত্তি তৈরি করতে হবে।

কলাম লেখক সৈয়দ আবুল মকসুদ কালের কণ্ঠকে বলেন, ভিন্নমত সহ্য না করার প্রবণতা প্রথমত শুরু হয়েছিল ধর্মীয়ভাবে। ধর্মের সমালোচনা করা যেত না। যা কালের বিবর্তনে এখন রাজনীতির মধ্যেও ঢুকে পড়েছে। কিন্তু এখন তো গণতান্ত্রিক সময়। গণতন্ত্রের মূলনীতিই হচ্ছে অন্যের মত প্রকাশ করতে দিতে হবে। কিছুকাল থেকে আমাদের দেশে দেখছি এর ব্যত্যয় ঘটছে। বিশেষ করে যখন যে দল ক্ষমতায় থাকে তখনই তারা নিজেদের কোনো সমালোচনা সহ্য করতে পারে না। ভিন্নমত সহ্য না করার অপসংস্কৃতি দিনে দিনে মারাত্মক হয়ে উঠছে। এটা গণতন্ত্রের মূলনীতির সরাসরি বরখেলাপ। যেটা এখন যুব বা তরুণসমাজের মধ্যেও ছড়িয়ে পড়েছে। কেবল আবরারই নয়, অন্য অনেক ঘটনা ঘটছে।

আবুল মকসুদ বলেন, নীতি আদর্শের সমালোচনা করাই যায়। যে কারো ভিন্নমত সহ্য করতেই হবে। কারো মতের সঙ্গে না মিললে সেটা নিজের মত তুলে ধরে খণ্ডন করতে হবে। কিন্তু কোনোভাবেই সহিংসতার আশ্রয় নেওয়া যাবে না।

আইনজীবী ড. শাহদীন মালিক কালের কণ্ঠকে বলেন, ‘আমাদের দেশে সমালোচনা শুধু সহ্য না করাই নয় বরং সমালোচনা করলে শাস্তিও দেওয়া হয়। এই প্রবণতা নেতৃস্থানীয় রাজনীতিকদের মধ্যেও লক্ষ করা যায়। সেই ধারার প্রসার ঘটছে ছাত্র ও তরুণদের মধ্যে। যারা এই রাজনীতির সঙ্গেও যুক্ত। স্বাভাবিকভাবেই ভিন্নমত বা সমালোচনা সহ্য করতে না পারা তরুণরা তাদের অভিব্যক্তি ঘটাচ্ছে সহিংসতা ও নৃসংতার মধ্য দিয়ে। আবরার হত্যাকাণ্ড এমনই সমালোচনা সহ্য করতে না পারা প্রবণতার সহিংস এবং নিষ্ঠুর বহিঃপ্রকাশ।’

তিনি বলেন, সমালোচনা ও ভিন্নমত সহ্য করা একজন মানুষের জন্য সবচেয়ে বড় মানবিক গুণাবলির অন্যতম। যে এই সমালোচনা বা ভিন্নমত সহ্য করতে পারে না তার কোনো গণতান্ত্রিক সমাজ বা দেশে বসবাসের যোগ্যতাও থাকে না। তাই নতুন প্রজন্মকে এ বিষয়টির ব্যাপারে অবশ্যই সচেতন থাকতে হবে।

মন্তব্য



সাতদিনের সেরা