kalerkantho

শনিবার । ০৭ ডিসেম্বর ২০১৯। ২২ অগ্রহায়ণ ১৪২৬। ৯ রবিউস সানি ১৪৪১     

ঢাকা-চট্টগ্রাম ও চট্টগ্রাম-সিলেট

আট ঘণ্টা বন্ধ ট্রেন চলাচল

নিজস্ব প্রতিবেদক   

১৩ নভেম্বর, ২০১৯ ০০:০০ | পড়া যাবে ২ মিনিটে



কসবায় দুর্ঘটনার পর প্রায় আট ঘণ্টা বন্ধ থাকে ঢাকা-চট্টগ্রাম ও চট্টগ্রাম-সিলেট পথের ট্রেন চলাচল। দুর্ঘটনাকবলিত ট্রেনের বগিগুলো সরিয়ে মূল লাইন মেরামত করার পর সকাল সাড়ে ১১টার দিকে ট্রেন চলাচল স্বাভাবিক হয়। সামনের দিকের অক্ষত ১২টি বগি নিয়ে সকাল ১১টার দিকে চট্টগ্রামে পৌঁছায় উদয়ন। সকাল পৌনে ১১টার দিকে তূর্ণা নিশীথা ঢাকার উদ্দেশে ছেড়ে যায়।

রেলপথ বন্ধ থাকায় ঢাকা-চট্টগ্রাম ও চট্টগ্রাম-সিলেট পথের আটটি ট্রেনের চলাচল বিঘ্নিত হয়। রেলওয়ে সূত্র জানায়, এর মধ্যে কোনো ট্রেনের যাত্রা বাতিল করা হয়নি। চট্টগ্রাম থেকে ঢাকামুখী সুবর্ণ এক্সপ্রেস নির্দিষ্ট সময়ে ছাড়ে। সকাল ১০টায় ঢাকামুখী কর্ণফুলী এক্সপ্রেস চট্টগ্রাম রেলস্টেশন থেকে ছাড়ে।

তূর্ণার ইঞ্জিনে ক্ষতি, দুমড়ে যায় উদয়নের তিন বগি

কসবায় ট্রেন দুর্ঘটনায় তূর্ণা নিশীথার তেমন ক্ষতি হয়নি। তবে উদয়ন এক্সপ্রেস ট্রেনের পেছনের তিনটি বগি দুমড়েমুচড়ে যায়। গত সোমবার রাত ৯টার দিকে সিলেট থেকে চট্টগ্রামের উদ্দেশে ছেড়েছিল উদয়ন। উদয়ন ছাড়াও পাহাড়িকা সিলেট-চট্টগ্রাম পথে চলাচল করে। উদয়ন ও পাহাড়িকার যাত্রা শুরু হয়েছিল ১৪টি বগি নিয়ে। বিগত বছরগুলোতে বগি কমানো হচ্ছিল। শেষ পর্যন্ত ট্রেন দুটিতে ৯টি করে বগি লাগানো হয়। সাবেক অর্থমন্ত্রী আবুল মাল আবদুল মুহিতের আধা সরকারিপত্রের পরিপ্রেক্ষিতে ট্রেনগুলোয় বগি বাড়ানো হয়। তবে সেই বগিগুলো ছিল নড়বড়ে।

মন্তব্য



সাতদিনের সেরা