kalerkantho

মঙ্গলবার । ১০ ডিসেম্বর ২০১৯। ২৫ অগ্রহায়ণ ১৪২৬। ১২ রবিউস সানি     

রুমাকে নামার সময়ই দিলেন না বাসচালক

রাজধানীতে বাসচাপায় কর্মজীবী নারীর মৃত্যু সাত জেলায় সড়ক দুর্ঘটনায় আরো ১২ জনের মৃত্যু

কালের কণ্ঠ ডেস্ক   

১৩ নভেম্বর, ২০১৯ ০০:০০ | পড়া যাবে ৪ মিনিটে



রুমাকে নামার সময়ই দিলেন না বাসচালক

শরীয়তপুরের ডামুড্যায় গতকাল যাত্রীবাহী বাস নিয়ন্ত্রণ হারিয়ে পাশের পুকুরে পড়ে গেলে দুজনের মুত্যৃ হয়। ছবি : কালের কণ্ঠ

রাজধানীর শান্তিনগরে গতকাল মঙ্গলবার সকালে ‘আল-মক্কা’ বাস থেকে নামছিলেন কানিজ ফাতেমা রুমা (৩০)। কিন্তু চালক হঠাৎ করে বাসের গতি বাড়িয়ে দেন। এতে করে বাসটি রুমার পায়ের ওপর দিয়ে চলে যায়। এরপর ঢাকা মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালে নেওয়া হয় তাঁকে। সেখানে দুপুরে মৃত্যু হয় এই কর্মজীবী নারীর।

শরীয়তপুরের ডামুড্যা, ঝিনাইদহের চণ্ডীপুর ও গোয়ালপাড়া, ফরিদপুরের ভাঙ্গা ও মধুখালী, ঢাকার ধামরাই, গাইবান্ধার সাদুল্যাপুর, চট্টগ্রামের কাপ্তাই, নোয়াখালীর বেগমগঞ্জ এবং সাতক্ষীরার নিউ মার্কেট এলাকায় সড়ক দুর্ঘটনায় ১২ জনের মৃত্যু হয়েছে। এর মধ্যে ডামুড্যায় দুর্ঘটনাকবলিত বাসের যাত্রীদের উদ্ধার করতে গিয়ে মৃত্যু হয়েছে আরেকজনের। টাঙ্গাইলের মধুপুরে বাস খাদে পড়ে আহত হয়েছে ৩৫ জন। নিজস্ব প্রতিবেদক ও প্রতিনিধিদের খবরে বিস্তারিত—

ঢাকা : কানিজ ফাতেমা রুমা (৩০) স্বামী শফিকুল ইসলামের সঙ্গে কদমতলীর দক্ষিণ দনিয়ার শাহি মসজিদের পাশের একটি বাসায় ভাড়া থাকতেন। শফিকুল শিক্ষকতা করেন। রুমা চাকরি করতেন শান্তিনগরের কোয়ান্টাম ব্লাড ব্যাংকের ল্যাবে। তাঁর বাবা আবুল ইসলামের বাসা মিরপুরের পল্লবীতে। গতকাল সকালে বাবার বাসা থেকে রুমা কাকরাইলে কর্মস্থলের উদ্দেশে বেরিয়েছিলেন।

শফিকুল ইসলাম বলেন, ‘আল-মক্কা বাসে রুমা শান্তিনগর যাচ্ছিল। সকাল ৯টার দিকে শান্তিনগরে নামার সময় বাসটি একেবারে না থেমে চলন্ত অবস্থায় ছিল। সে সময় চালক আচমকা জোরে চালাতে শুরু করলে রুমা পড়ে যায়। পরে বাসটি তার পায়ের ওপর দিয়ে চলে যায়।’

ডিএমপির উপকমিশনার মাসুদুর রহমান জানান, ‘এ ঘটনায় মামলা প্রক্রিয়াধীন। অভিযুক্তদের গ্রেপ্তারের চেষ্টা চলছে।’

এর আগে গত ২৭ আগস্ট রাজধানীর বাংলামোটর এলাকায় যাত্রীবাহী বাসের চাপায় পা হারান কৃষ্ণা রায় (৫২) নামের এক নারী। তিনি বাংলাদেশ অভ্যন্তরীণ নৌপরিবহন করপোরেশনের (বিআইডাব্লিউটিসি) সহকারী ব্যবস্থাপক।

ডামুড্যা : দুর্ঘটনাটি ঘটে গতকাল সকাল ৯টার দিকে, খেজুরতলা এলাকায় ডামুড্যা-শরীয়তপুর সড়কে। সেখানে চালক নিয়ন্ত্রণ হারিয়ে ফেললে একটি বাস সড়কের পাশের পুকুরে পড়ে যায়। তাতে নিহত হন দুজন। আহতদের উদ্ধার করতে গিয়ে হার্ট অ্যাটাকে মৃত্যু হয় আরেকজনের। নিহতরা হলেন সিড্যা গ্রামের কামরুজ্জামান মাহমুদ মুন্সী (৪৫) ও দক্ষিণ ডামুড্যা গ্রামের ইয়াকুব পাইক (৮০)। উদ্ধারে গিয়ে মৃত্যু হয় জুলহাস মোল্যার (২৮)।

নোয়াখালী : দুর্ঘটনাটি ঘটে গতকাল সকাল ১০টার দিকে বেগমগঞ্জের গাবুয়া এলাকায়। সেখানে যাত্রীবাহী বাসের চাপায় ইয়াছিন (৩৫) নামের এক যুবকের মৃত্যু হয়। তিনি সেনবাগ উপজেলার কাবিলপুর ইউনিয়নের আজিজপুর গ্রামের বাসিন্দা এবং ইউনিয়ন যুবদলের সাধারণ সম্পাদক ছিলেন। তিনি মোটরসাইকেলে করে যাচ্ছিলেন।

ধামরাই : ব্যাটারিচালিত ভ্যান চালাতে গিয়ে রাজু সূত্রধর নামের এক ছাত্রের মৃত্যু হয়। সে সুয়াপুর গ্রামের শ্যামলাল সূত্রধরের ছেলে। স্বজনরা জানায়, ফার্নিচার দোকানের সামনে ভ্যানটি রাখা ছিল। রাজু সেটি চালাতে গিয়ে নিয়ন্ত্রণ হারিয়ে ইউনিয়ন পরিষদসংলগ্ন পুকুরে পড়ে যায়।

ফরিদপুর : গতকাল সকালে ভাঙ্গা উপজেলার চান্দ্রা ইউনিয়নের তারাইল বাসস্ট্যান্ড এলাকায় মোটরসাইকেলের ধাক্কায় দেলোয়ার তালুকদার (৬০) নামের এক পথচারীর মৃত্যু হয়। এদিকে গতকাল সন্ধ্যায় জেলার মধুখালীতে পিকআপচাপায় অটোভ্যানের দুই যাত্রী নিহত ও চারজন আহত হয়েছেন। বাগাট উচ্চ বিদ্যালয়ের সামনে এ দুর্ঘটনায় নিহতরা হলেন উপজেলার কোড়কদী ইউনিয়নের কোড়কদী গ্রামের অযোধ্যা পালের স্ত্রী দিপালী পাল (৬০) ও একই গ্রামের সঞ্জয় পালের ছেলে জয়পাল (১০)। আহত গীতা পাল, টেপি পাল, ঝিনুক পাল ও ঐশিক পালকে ফরিদপুর মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে।

মধুপুর : ধনবাড়ী উপজেলায় বিনিময় পরিবহনের যাত্রীবাহী বাস উল্টে খাদে পড়ে গেলে ৩৫ যাত্রী আহত হয়। গতকাল সকালে ধনবাড়ীর সমতকুড় এলাকায় এ দুর্ঘটনা ঘটে।

চট্টগ্রাম : নগরীর কাপ্তাই রাস্তার ‘মাথা সড়কে’ মাইক্রোবাসের ধাক্কায় তানিয়া আক্তার (১০) নামে এক শিশু নিহত হয়েছে। সে নোয়াখালীর লক্ষ্মীপুরের কমলনগর থানার বাসিন্দা দুলাল মিয়ার মেয়ে।

 

মন্তব্য



সাতদিনের সেরা