kalerkantho

বুধবার । ২২ জানুয়ারি ২০২০। ৮ মাঘ ১৪২৬। ২৫ জমাদিউল আউয়াল ১৪৪১     

পবিত্র ঈদে মিলাদুন্নবী (সা.) উদ্যাপিত

নিজস্ব প্রতিবেদক   

১২ নভেম্বর, ২০১৯ ০০:০০ | পড়া যাবে ২ মিনিটে



যথাযথ মর্যাদা ও ধর্মীয় ভাবগম্ভীর পরিবেশের মধ্য দিয়ে রবিবার সারা দেশে পবিত্র ঈদে মিলাদুন্নবী (সা.) উদ্যাপিত হয়েছে। বিশ্বনবী হজরত মুহাম্মদ (সা.)-এর জন্ম ও মৃত্যুর এ দিনটি উদ্‌যাপন উপলক্ষে সারা দেশের মসজিদে মসজিদে বিশেষ ইবাদত-বন্দেগি ও মিলাদ মাহফিলের আয়োজন করা হয়। বিভিন্ন রাজনৈতিক, সামাজিক ও ধর্মীয় সংগঠন দিনটিতে জশনে জুলুস, আলোচনাসভা ও দোয়া মাহফিলসহ নানা কর্মসূচির আয়োজন করে।

পবিত্র ঈদে মিলাদুন্নবী (সা.) উপলক্ষে ইসলামিক ফাউন্ডেশনের উদ্যোগে শনিবার থেকে শুরু হয়েছে পক্ষকালব্যাপী অনুষ্ঠানমালা। ধর্ম মন্ত্রণালয়ের সচিব আনিছুর রহমান আনুষ্ঠানিকভাবে এ অনুষ্ঠানমালার উদ্বোধন করেন। পক্ষকালব্যপী অনুষ্ঠানমালার মধ্যে রয়েছে, বায়তুল মোকাররমে ওয়াজ মাহফিল, সেমিনার, ইসলামী ক্যালিগ্রাফি ও মহানবী (সা.)-এর জীবনীভিত্তিক পোস্টার ও গ্রন্থ প্রদর্শনী, ইসলামী বইমেলা, ইসলামী সাংস্কৃতিক প্রতিযোগিতা, ক্বিরআত ও হামদ-নাত মাহফিল, রাসুল (সা.)-এর শানে স্বরচিত কবিতা পাঠের আসর ইত্যাদি।

ঈদে মিলাদুন্নবী (সা.) উপলক্ষে রবিবার বঙ্গভবনে মিলাদ ও দোয়া মাহফিল অনুষ্ঠিত হয়। বঙ্গভবনের দরবার হলে আয়োজিত এ মিলাদে রাষ্ট্রপতি মো. আবদুল হামিদ অংশ নেন। এ ছাড়া প্রধান বিচারপতি সৈয়দ মাহমুদ হোসেন, মন্ত্রিপরিষদের সদস্য, জাতীয় সংসদের ডেপুটি স্পিকার, প্রধান নির্বাচন কমিশনার (সিইসি), সুপ্রিম কোর্টের বিচারপতি, হাইকোর্ট বিভাগের বিচারপতি, মন্ত্রিপরিষদসচিব, তিন বাহিনীর প্রধান এবং ঊর্ধ্বতন বেসামরিক ও সামরিক কর্মকর্তারা মাহফিলে উপস্থিত ছিলেন।

বঙ্গভবন জামে মসজিদের পেশ ইমাম মাওলানা সাইফুল কবীরের পরিচালনায় মিলাদ শেষে মোনাজাতে দেশের শান্তি-সমৃদ্ধি ও মুসলিম উম্মাহর কল্যাণ কামনা করা হয়।

ঈদে মিলাদুন্নবী (সা.) উপলক্ষে রবিবার আশেকানে গাউছিয়া রহমানিয়া মইনিয়া সহিদিয়া মাইজভাণ্ডারীর উদ্যোগে রাজধানীর গুলিস্তানে কাজী বশির মিলনায়তনে আলোচনাসভা অনুষ্ঠিত হয়। 

এ উপলক্ষে সৈয়দ মজিবুল বশর আল হাছানী আল-মাইজভাণ্ডারীর নেতৃত্বে রাজধানীর শাহজাহানপুর থেকে জশনে জুলুসের শোভাযাত্রা বের করা হয়। 

পবিত্র ঈদে মিলাদুন্নবী (সা.)-এর তাৎপর্য তুলে ধরে শনিবার রাষ্ট্রপতি মো. আবদুল হামিদ ও প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা আলাদা বাণী প্রদান করেন।

মন্তব্য



সাতদিনের সেরা