kalerkantho

রবিবার। ১৭ নভেম্বর ২০১৯। ২ অগ্রহায়ণ ১৪২৬। ১৯ রবিউল আউয়াল ১৪৪১     

সেন্ট মার্টিনসে নিরাপদে আছে পর্যটকরা

টেকনাফ (কক্সবাজার) প্রতিনিধি   

১০ নভেম্বর, ২০১৯ ০০:০০ | পড়া যাবে ২ মিনিটে



কক্সবাজারের সেন্ট মার্টিনস দ্বীপে আটকা পড়া দেড় হাজার পর্যটক নিরাপদে আছে বলে প্রশাসনের পক্ষ থেকে জানানো হয়েছে। ঘূর্ণিঝড় বুলবুলের প্রভাবে বঙ্গোসাগর উত্তাল থাকায় টেকনাফ-সেন্ট মার্টিনস নৌপথে গত শুক্রবার থেকে পর্যটকবাহী জাহাজ চলাচল বন্ধ করে দেওয়ায় তারা আটকা পড়ে।

খোঁজ নিয়ে জানা যায়, প্রথম দিকে ফিরতে না পেরে আটকা পড়া পর্যটকরা কিছুটা উৎকণ্ঠায় ছিল। প্রশাসনের তদারকিতে তারা এখন সেখানে নিরাপদ অবস্থানে রয়েছে। উপজেলা প্রশাসন, ইউনিয়ন পরিষদ, হোটেল-মোটেল ও রেস্টুরেন্ট ব্যবসায়ীদের পক্ষ থেকে তাদের সার্বক্ষণিক সব ধরনের সুবিধা দেওয়া হচ্ছে।

ঘূর্ণিঝড় বুলবুল উপকূলের দিকে এগিয়ে আসার পরিপ্রেক্ষিতে আবহাওয়া দপ্তর থেকে মোংলা, পায়রা ও চট্টগ্রাম বন্দরে মহাবিপদ সংকেত দেখাতে বলা হয়েছে। কক্সবাজার উপকূলে ৪ নম্বর হুঁশিয়ারি সংকেত বহাল রাখা হয়েছে।

টেকনাফ উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা মো. সাইফুল ইসলাম সাংবাদিকদের জানান, সেন্ট মার্টিনসে আটকা পড়া পর্যটকদের ব্যাপারে নিয়মিত খোঁজখবর রাখা হচ্ছে। সেখানে তাদের থাকা-খাওয়ার ব্যাপারে যাতে কোনো অসুবিধা না হয় সে ব্যাপারে সংশ্লিষ্ট প্রতিষ্ঠানগুলোকে যাবতীয় সহযোগিতা দেওয়ার জন্য বলা হয়েছে। আবহাওয়া স্বাভাবিক হলে পর্যটকদের ফিরিয়ে আনার উদ্যোগ নেওয়া হবে।

সেন্ট মার্টিনস ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান নূর আহমদ কালের কণ্ঠকে বলেন, দ্বীপে আটকা পড়া পর্যটকদের নিরাপদে রাখতে সব ধরনের তদারকি করা হচ্ছে। দ্বীপে অবস্থিত সব আবাসিক হোটেল ও রেস্টুরেন্ট ব্যবসায়ীদের এ বিষয়ে প্রয়োজনীয় নির্দেশনা দেওয়া হয়েছে। এ ছাড়া আটকা পড়া পর্যটকদের থাকা-খাওয়ায় সর্বোচ্চ আর্থিক ছাড় দিতে বলা হয়েছে।

মন্তব্য



সাতদিনের সেরা