kalerkantho

শুক্রবার । ২২ নভেম্বর ২০১৯। ৭ অগ্রহায়ণ ১৪২৬। ২৪ রবিউল আউয়াল ১৪৪১     

রাশেদ চৌধুরীর বিচারসংক্রান্ত কাগজ যাচ্ছে ওয়াশিংটনে

কূটনৈতিক প্রতিবেদক   

৯ নভেম্বর, ২০১৯ ০০:০০ | পড়া যাবে ২ মিনিটে



রাশেদ চৌধুরীর বিচারসংক্রান্ত কাগজ যাচ্ছে ওয়াশিংটনে

বঙ্গবন্ধুর ঘাতকদের অন্যতম রাশেদ চৌধুরীর বিচারসংক্রান্ত কাগজপত্র যুক্তরাষ্ট্রকে দেবে বাংলাদেশ। যুক্তরাষ্ট্রে অবস্থানরত রাশেদ চৌধুরীকে ফেরত পাঠানোর অনুরোধের পরিপ্রেক্ষিতে দক্ষিণ ও মধ্য এশিয়াবিষয়ক মার্কিন ভারপ্রাপ্ত অ্যাসিস্ট্যান্ট সেক্রেটারি অ্যালিস জে ওয়েলস গত সপ্তাহে বাংলাদেশকে রাশেদ চৌধুরীর বিচারসংক্রান্ত কাগজপত্র পাঠাতে বলেছেন।

ঢাকায় পররাষ্ট্রমন্ত্রী ড. এ কে আব্দুল মোমেনের সঙ্গে সাক্ষাতে অ্যালিস ওয়েলস বলেন, ওই কাগজপত্র পেলে পরীক্ষা-নিরীক্ষা করে যুক্তরাষ্ট্র বাংলাদেশকে তাঁর অবস্থান জানাবে।

কূটনৈতিক সূত্রগুলো বলছে, রাশেদ চৌধুরীকে ফেরত পাঠাতে যুক্তরাষ্ট্রের প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্পকে চিঠি পাঠিয়েছেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা। পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের কাছেও রাশেদ চৌধুরীর ব্যাপারে তথ্য রয়েছে। যুক্তরাষ্ট্র যেহেতু রাশেদ চৌধুরীর বিচারসংক্রান্ত তথ্য চেয়েছে তাই সরকারের সংশ্লিষ্ট বিভাগগুলোর মতামত নিয়েই তা পাঠানো হবে।

জানা গেছে, রাশেদ চৌধুরী যুক্তরাষ্ট্রে রাজনৈতিক আশ্রয়ে আছেন। এক দশকের বেশি সময় ধরে বাংলাদেশ রাশেদ চৌধুরীকে ফেরত পাঠাতে যুক্তরাষ্ট্রকে অনুরোধ জানিয়ে আসছে। বাংলাদেশ বলছে, আইনের শাসন প্রতিষ্ঠা এবং আদালতের রায় কার্যকর করার জন্য রাশেদ চৌধুরীর দেশে আসা প্রয়োজন। ঘাতক রাশেদ চৌধুরীর বিরুদ্ধে বাংলাদেশে মৃত্যুদণ্ডাদেশ রয়েছে। যুক্তরাষ্ট্রের অনেক অঙ্গরাজ্যে মৃত্যুদণ্ড ব্যবস্থা চালু থাকায় বাংলাদেশে রাশেদ চৌধুরীর বিরুদ্ধে আদালতের রায় তাঁকে ফেরত পাঠানোর ক্ষেত্রে বাধা নয় বলেই মনে করেন সংশ্লিষ্ট কূটনীতিক ও কর্মকর্তারা। এ ছাড়া যুক্তরাষ্ট্রে রাশেদ চৌধুরীর রাজনৈতিক আশ্রয় বাতিলেরও সুযোগ আছে বলে তাঁদের ধারণা। তাঁদের মতে, বঙ্গবন্ধুর ঘাতক রাশেদ চৌধুরীকে ফেরত পাঠাতে যুক্তরাষ্ট্রের রাজনৈতিক সদিচ্ছা প্রয়োজন।

মন্তব্য



সাতদিনের সেরা