kalerkantho

বুধবার । ২০ নভেম্বর ২০১৯। ৫ অগ্রহায়ণ ১৪২৬। ২২ রবিউল আউয়াল ১৪৪১     

প্রেমের টানে ঘর ছেড়ে বিপাকে

ব্রাহ্মণবাড়িয়া প্রতিনিধি   

৮ নভেম্বর, ২০১৯ ০০:০০ | পড়া যাবে ২ মিনিটে



অনলাইনে মাস ছয়েক ধরে পরিচয়। এরপর প্রেম। বিয়ের আশায় ঘর ছেড়েছিল ছয় দিন হলো। এখন প্রেমিকের খোঁজ মিলছে না। পরিবার থেকেও বিচ্ছিন্ন। নিজের ভবিষ্যৎ নিয়েই এখন উদ্বিগ্ন হয়ে উঠেছে মেয়েটি।

তার সঙ্গে কথা হলো গতকাল বৃহস্পতিবার দুপুরে। ব্রাহ্মণবাড়িয়ার আখাউড়া উপজেলার মনিয়ন্দ গ্রামের জঙ্গু মিয়ার বাড়িতে আছে সে। তার প্রেমিকের নাম পারভেজ। বাড়িতে গিয়ে তাকে পাওয়া যায়নি।

মেয়েটি জানায়, তার বাড়ি দাউদকান্দি উপজেলার বালিয়াগাঁও গ্রামে। পরিবার নিয়ে থাকে চট্টগ্রামে। গার্মেন্টে চাকরি করত। মাস ছয়েক আগে অনলাইন যোগাযোগ মাধ্যম ইমোতে পরিচয় হয় আখাউড়ার মনিয়ন্দ গ্রামের জামাল মিয়ার ছেলে পারভেজ মিয়ার সঙ্গে। প্রেম শুরু হয়। এর মধ্যেই মাস দুয়েক আগে মেয়েটির বিয়ে হয়ে যায়। তার পরও সম্প্রতি বিয়ের সিদ্ধান্ত নেয় পারভেজ ও মেয়েটি। গত রবিবার মেয়েটিকে নিয়ে ব্রাহ্মণবাড়িয়ার কসবা উপজেলার লতুয়ামোড়া এলাকার ইকবাল হোসেনের বাসায় ওঠে পারভেজ। সঙ্গে তার দুই সহযোগীও ছিল। মেয়েটির কাছ থেকে টাকা নিয়ে যায় তারা। একপর্যায়ে মেয়েটির কাছে থাকা স্বর্ণালংকারগুলোও নিয়ে যেতে চায়। এতে মেয়েটির সন্দেহ হয়।

মেয়েটি বলে, ‘পরে ইকবাল হোসেন আমাকে মনিয়ন্দে তাঁর শ্বশুরবাড়িতে নিয়ে আসেন। ওই বাড়ির পাশেই পারভেজের বাড়ি। সেখানে আনার পর থেকে পারভেজ পালিয়ে গেছে।’

মো. ইকবাল হোসেন বলেন, ‘মেয়েটির পরিবারের লোকজন আসছে।’ এলাকার যুবক এম কে সোহেল বলেন, ‘ছেলেটি মাত্র এইচএসসিতে পড়ে। অন্যদিকে মেয়েটির আরেকটি বিয়ে হয়েছে। এ অবস্থায় তাদের বিয়ে দেওয়াও কঠিন হয়ে পড়েছে।’ গতকাল দুপুরে বাড়িতে গেলে পারভেজের ভাই সাগর মিয়া এ বিষয়ে কোনো কথা বলতে রাজি হননি। মেয়েটির এভাবে চলে আসা নিয়ে তিনি ক্ষোভ প্রকাশ করেন।

মন্তব্য



সাতদিনের সেরা