kalerkantho

মঙ্গলবার । ১২ নভেম্বর ২০১৯। ২৭ কার্তিক ১৪২৬। ১৪ রবিউল আউয়াল ১৪৪১     

দুদকের ফাঁদ-অভিযান

ঘুষের টাকাসহ ধরা কর কর্মকর্তাসহ ৩

সাবেক এসআইসহ মোট ছয়জন গ্রেপ্তার

কালের কণ্ঠ ডেস্ক   

৬ নভেম্বর, ২০১৯ ০০:০০ | পড়া যাবে ৩ মিনিটে



ঘুষের টাকাসহ ধরা কর কর্মকর্তাসহ ৩

ঘুষের টাকাসহ তিনজনকে হাতেনাতে ধরেছে দুর্নীতি দমন কমিশন (দুদক)। এ ছাড়া দুদকের মামলায় গ্রেপ্তার হয়েছেন আরো তিনজন। গ্রেপ্তার হওয়া ব্যক্তিদের মধ্যে আছেন আয়কর পরিদর্শক, সার্ভেয়ার, সরকারি পাটকলের মহাব্যবস্থাপক (জিএম) ও পুলিশের সাবেক উপপরিদর্শক (এসআই)।

চট্টগ্রামে ঘুষের ২০ হাজার টাকাসহ আয়কর পরিদর্শক মো. রেজাউল করিমকে হাতেনাতে ধরেছে দুদক। গতকাল মঙ্গলবার বিকেল সোয়া ৪টার দিকে নগরের আগ্রাবাদ এলাকায় কর অফিস থেকে তাঁকে গ্রেপ্তার করা হয়। মো. রেজাউল করিম কর অঞ্চল-২-এর আওতাধীন সার্কেল ৩১-এর ইনকাম ট্যাক্স ইন্সপেক্টর পদে কর্মরত। খুলনার রাষ্ট্রায়ত্ত পাটকল খালিশপুর জুটমিলের জিএম ও প্রকল্পপ্রধান গোলাম মোস্তফা কামালকে ঘুষের টাকাসহ হাতেনাতে আটক করেন দুদক কর্মকর্তারা। গতকাল দুপুরে নিজ অফিস থেকে তাঁকে আটক করা হয়। দিনাজপুরে ঘুষের ২০ হাজার টাকাসহ জেলা পরিষদের সার্ভেয়ার মো. আল আমিনকে আটক করা হয়েছে। দুদক সমন্বিত জেলা কার্যালয় গতকাল সকালে জেলা পরিষদে অভিযান চালিয়ে তাঁকে আটক করে। বিস্তারিত জানিয়েছেন চট্টগ্রাম, খুলনা ও ময়মনসিংহ থেকে আমাদের নিজস্ব প্রতিবেদক এবং দিনাজপুর থেকে প্রতিনিধি।

দুদক সমন্বিত জেলা কার্যালয় চট্টগ্রাম-১-এর উপপরিচালক লুত্ফুল কবির চন্দন বলেন, ‘এক ব্যক্তির ইনকাম ট্যাক্সের ফাইল বাবদ ২০ হাজার টাকা ঘুষ দাবি করেন রেজাউল। খবর পেয়ে দুদক টিম ঘুষের টাকাসহ হাতেনাতে তাঁকে গ্রেপ্তার করে।’ তাঁর বিরুদ্ধে আগে থেকেই ঘুষ গ্রহণের অভিযোগ ছিল বলে তিনি জানান।

দুদক কর্মকর্তারা জানান, খালিশপুর মিলের প্রকল্পপ্রধান গোলাম মোস্তফা কামাল চলতি বছরের ৮ এপ্রিল নিরাপত্তা প্রহরী মো. নুরুল ইসলাম বাবুসহ চারজনকে পদোন্নতি প্রদান করে জনপ্রতি ২০ হাজার টাকা করে মোট হিসাবে ৮০ হাজার টাকা ঘুষ গ্রহণ করেন। এর মধ্যে বাবু ভারপ্রাপ্ত গার্ড কমান্ডার হন। গত ঈদুল আজহার সময় মোস্তফা কামাল বাবুকে সরিয়ে দেওয়ার ভয়ভীতি দেখিয়ে আবারও ১০ হাজার টাকা ঘুষ নেন। সম্প্রতি মোস্তফা কামাল ফের বাবুর কাছে ২০ হাজার টাকা দাবি করেন। তা নাহলে বাবুর স্থলে নতুন লোক নেওয়ার হুমকি দেওয়া হয়। এ পরিস্থিতিতে বাবু দুর্নীতি দমন কমিশনের কর্মকর্তাদের শরণাপন্ন হন। তাঁদের পরামর্শে মোস্তফা কামালকে ১০ হাজার টাকা ঘুষ দেন বাবু। গতকাল দুদক কর্মকর্তারা ‘ফাঁদ’ পেতে ১০ হাজার টাকাসহ ওই কর্মকর্তাকে আটক করেন।

দুদক সমন্বিত জেলা কার্যালয়ের সহকারী পরিচালক মো. শাওন মিয়া বলেন, দুদক প্রধান কার্যালয়ের নির্দেশনার পরিপ্রেক্ষিতে গতকাল দুপুরে ফাঁদ মামলা পরিচালনার মাধ্যমে মোস্তফা কামালকে আটক করা হয়। এ ঘটনায় মামলাসহ আইনগত ব্যবস্থা নেওয়া হবে।

জানা আয়বহির্ভূত ৬৫ লাখ টাকার সম্পদের তথ্য গোপন করার মামলায় ময়মনসিংহে পুলিশের অবসরপ্রাপ্ত এসআই আব্দুল জলিলকে গ্রেপ্তার করেছে দুদক। দুদক সূত্রে জানা যায়, গত ২৫ ফেব্রুয়ারি ময়মনসিংহ দুদক কার্যালয়ের সহকারী পরিচালক এ কে এম বজলুল রশীদ কোতোয়ালি থানায় একটি মামলা করেন। মামলায় সাবেক এসআই আব্দুল জলিলের বিরুদ্ধে ৬৫ লাখ টাকার সম্পদের তথ্য গোপন করার অভিযোগ আনা হয়। ওই মামলায়ই তাঁকে গতকাল বিকেলে গ্রেপ্তার করে দুদক।

অবৈধ সম্পদ অর্জন এবং সম্পদের তথ্য গোপনের মামলায় ময়মনসিংহে সাবেক কর পরিদর্শক মোকসেদ আলীকে (৬৫) গ্রেপ্তার করেছে দুদক। গতকাল দুপুরে শহরের চামড়া গুদাম এলাকায় নিজ বাসা থেকে তাঁকে গ্রেপ্তারের পর আদালতের নির্দেশে জেলহাজতে পাঠানো হয়।

মন্তব্য



সাতদিনের সেরা