kalerkantho

শনিবার । ০৭ ডিসেম্বর ২০১৯। ২২ অগ্রহায়ণ ১৪২৬। ৯ রবিউস সানি ১৪৪১     

পাওনা চেয়ে গ্রামীণফোনকে চিঠি

হাইকোর্টের নিষেধাজ্ঞার বিরুদ্ধে বিটিআরসির আবেদন

এবার রবিও হাইকোর্টে

নিজস্ব প্রতিবেদক   

২১ অক্টোবর, ২০১৯ ০০:০০ | পড়া যাবে ২ মিনিটে



গ্রামীণফোনের কাছে ১২ হাজার ৫৮০ কোটি টাকা দাবি করে বিটিআরসির দেওয়া চিঠির কার্যকারিতার ওপর হাইকোর্টের দেওয়া অন্তর্বর্তীকালীন নিষেধাজ্ঞার আদেশ স্থগিত চেয়ে আপিল বিভাগের চেম্বার বিচারপতির আদালতে আবেদন করা হয়েছে। বিটিআরসির পক্ষ থেকে গতকাল রবিবার এ আবেদন করা হয়। আজ সোমবার এ আবেদনের ওপর শুনানি হতে পারে বলে জানিয়েছেন বিটিআরসির আইনজীবী ব্যারিস্টার খন্দকার রেজা-ই-রাকিব।

গ্রামীণফোনের আবেদনের ধারাবাহিকতায় আরেক বেসরকারি মোবাইল অপারেটর কম্পানি রবি আজিয়াটা হাইকোর্টের দ্বারস্থ হয়েছে। ৮৬৭ কোটি ২৩ লাখ টাকা পাওনা চেয়ে বিটিআরসির দেওয়া চিঠির কার্যকারিতার ওপর নিষেধাজ্ঞা চেয়ে কম্পানিটি হাইকোর্টে আবেদন করেছে।

গত ১৭ অক্টোবর হাইকোর্ট এক আদেশে গ্রামীণফোনের কাছে ১২ হাজার ৫৮০ কোটি টাকা দাবি করে বাংলাদেশ টেলিযোগাযোগ নিয়ন্ত্রণ কমিশনের (বিটিআরসি) দেওয়া চিঠির কার্যকারিতার ওপর অন্তর্বর্তীকালীন নিষেধাজ্ঞা দেন। একই সঙ্গে গ্রামীণফোনের আবেদনের ওপর আগামী ৫ নভেম্বর শুনানির দিন ধার্য করেন।

এর আগে প্রায় ২৭টি খাতে ১২ হাজার ৫৭৯ কোটি ৯৫ লাখ টাকা (নিরীক্ষা আপত্তির দাবি) দাবি করে গ্রামীণফোনকে গত ২ এপ্রিল চিঠি দেয় বিটিআরসি। এই চিঠির বিরুদ্ধে ঢাকার নিম্ন আদালতে মামলা করে গ্রামীণফোন। মামলায় অর্থ আদায়ের ওপর অস্থায়ী নিষেধাজ্ঞা চেয়ে আবেদন করা হয়। গত ২৮ আগস্ট নিম্ন আদালত অস্থায়ী নিষেধাজ্ঞার আবেদন খারিজ করে দেন। এই আদেশের বিরুদ্ধে হাইকোর্টে আপিল করে গ্রামীণফোন। ওই আপিলটি শুনানির জন্য গ্রহণ করেছেন হাইকোর্ট। আগামী ৫ নভেম্বর আপিলের ওপর শুনানির জন্য দিন ধার্য করেছেন। একই সঙ্গে গ্রামীণফোনের কাছ থেকে টাকা আদায়ের ওপর দুই মাসের অন্তর্বর্তীকালীন নিষেধাজ্ঞা দেন। এদিকে গত ৩১ জুলাই ৮৬৭ কোটি ২৩ লাখ টাকা পাওনা চেয়ে রবিকে চিঠি দেয় বিটিআরসি। এই চিঠির বিষয়ে নিম্ন আদালতে মামলা (টাইটেল স্যুট) করে কম্পানিটি। একই সঙ্গে বিটিআরসির চিঠির কার্যকারিতার ওপর অস্থায়ী নিষেধাজ্ঞা চেয়ে আবেদন করা হয়। নিম্ন আদালত অস্থায়ী নিষেধাজ্ঞা চেয়ে রবির আবেদন খারিজ করে দেন। এই খারিজ আদেশের বিরুদ্ধে রবির করা আপিল শুনানির জন্য গ্রহণ করেছেন হাইকোর্ট।

মন্তব্য



সাতদিনের সেরা