kalerkantho

শুক্রবার । ০৬ ডিসেম্বর ২০১৯। ২১ অগ্রহায়ণ ১৪২৬। ৮ রবিউস সানি ১৪৪১     

আ. লীগে অন্তঃকলহ, শক্তিহীন বিএনপি

‘জাপা কার্যালয়ের সাইনবোর্ডের রং উঠে সাদা হয়ে গেছে’

লিমন বাসার, বগুড়া   

২১ অক্টোবর, ২০১৯ ০০:০০ | পড়া যাবে ২ মিনিটে



আ. লীগে অন্তঃকলহ, শক্তিহীন বিএনপি

বগুড়া আওয়ামী লীগের নেতৃত্বে শূন্যতা ও নিজেদের মধ্যকার কলহ আর ক্ষমতার দ্বন্দ্বে ভয়াবহ অবস্থা চলছে। বিএনপি দুর্গ হিসেবে পরিচিত বগুড়ায় এখন বলতে গেলে শক্তিহীন। সাংগঠনিক কর্মকাণ্ড না থাকায় অস্তিত্ব হারাতে বসেছে বিরোধী দল জাতীয় পার্টি (জাপা)।

আওয়ামী লীগ : ১৯৯৪ থেকে ২০১৯ সাল পর্যন্ত বগুড়া জেলা আওয়ামী লীগের সভাপতির দায়িত্ব পালন করতে গিয়ে মমতাজ উদ্দিন দলের ভেতর শক্তিশালী একটি বলয় সৃষ্টি করেছিলেন। তাঁর মৃত্যুর পর দল এখন কয়েকটি ভাগে বিভক্ত। তাঁর বিরোধীপক্ষের অভিযোগ, তিনি জেলা কমিটিতে নিজের অনুসারীদের বেশি করে স্থান দিতে গিয়ে অনেক কনিষ্ঠ নেতাকে অতিমূল্যায়ন করেছেন। এতে অনেক জ্যেষ্ঠ নেতা যোগ্যতা অনুযায়ী পদ পাননি। মমতাজ উদ্দিনের মৃত্যুর পর অনেকেই তাঁর ছোট ছেলে বগুড়া চেম্বার অব কমার্স অ্যান্ড ইন্ডাস্ট্রির সভাপতি মাসুদুর রহমান মিলনের কাছে ভিড়েছেন। এ কারণে এই মুহূর্তে দলে কোনো চেইন অব কমান্ড নেই।

জেলা আওয়ামী লীগের সহসভাপতি রেজাউল করিম মন্টু বলেন, সুযোগসন্ধানীরা দলকে শেষ করে ফেলছে। সাধারণ সম্পাদক মজিবর রহমান মনে করেন, দলকে শৃঙ্খলায় আনতে শক্ত হাতে হাল ধরতে হবে এবং সে অনুযায়ী পরিকল্পনাও প্রয়োজন।

বিএনপি : বিএনপির কেন্দ্রীয় সদস্য ও জেলার শীর্ষ নেতা ব্যবসায়ী শোকরানা দল ছেড়েছেন। আরো অনেকেই ছাড়বেন বলে শোনা যাচ্ছে। দলের বিশাল একটি অংশের নেতাকর্মীরা এখন নিষ্ক্রিয়। যাঁরা আন্দোলন-সংগ্রামে নেতৃত্ব দিয়ে মামলার পর মামলার আসামি হয়েছেন তাঁরা এখন দর্শক সারিতে। দলের চেয়ারপারসন খালেদা জিয়ার আসন বগুড়া-৬ (সদর) রক্ষা হলেও বিএনপির নিজ দুর্গে দিন যত যাচ্ছে যেন ক্ষয়ে যাচ্ছে শক্তি আর সমর্থক। আগের মতো আর দলীয় কার্যালয়ে নেতাকর্মীদের পদচারণ নেই।

জাতীয় পার্টিতে কোন্দল : দলীয় কোন্দল পিছু ছাড়ছে না জাতীয় পার্টির। দলের জেলা শাখার সম্মেলন হয়েছে ২০১৬ সালের ৭ এপ্রিল। এরপর দুই সদস্যের কমিটি দিয়েই দুই বছরের মেয়াদ শেষ হয়েছে; কিন্তু পূর্ণাঙ্গ কমিটি হয়নি। এমনকি একটি সাংগঠনিক সভা পর্যন্ত হয়নি।

আগামীকাল পড়ুন : বগুড়ার আইন-শৃঙ্খলা পরিস্থিতি

মন্তব্য



সাতদিনের সেরা