kalerkantho

সোমবার । ১৮ নভেম্বর ২০১৯। ৩ অগ্রহায়ণ ১৪২৬। ২০ রবিউল আউয়াল ১৪৪১     

দুই ইয়াবা কারবারি নিহত

টেকনাফে ‘বন্দুকযুদ্ধ’

টেকনাফ (কক্সবাজার) প্রতিনিধি   

২১ অক্টোবর, ২০১৯ ০০:০০ | পড়া যাবে ২ মিনিটে



কক্সবাজারের টেকনাফে আলাদা ‘বন্দুকযুদ্ধে’ দুই যুবক নিহত হয়েছেন। তাঁরা হলেন—টেকনাফ সদর ইউনিয়নের ডেইলপাড়া গ্রামের আব্দুল আজিজ (২৪) ও হোয়াইক্যং ইউনিয়নের কাঞ্জনপাড়া গ্রামের মো. রহিম উদ্দীন (৩৭)। পুলিশ ও বিজিবির দাবি, তাঁরা দুজনই চিহ্নিত ইয়াবা কারবারি। গত শনিবার রাত ও রবিবার ভোরে কথিত এই বন্দুকযুদ্ধের ঘটনা দুটি ঘটে। ঘটনাস্থল থেকে ইয়াবা ও অস্ত্র উদ্ধার করেছে পুলিশ ও বিজিবি।

টেকনাফ থানার ওসি প্রদীপ কুমার দাস জানান, গত শনিবার বিকেলে ইয়াবা কারবারি আব্দুল আজিজকে আটকের পর তাঁর স্বীকারোক্তির ভিত্তিতে তাঁকে নিয়ে মেরিন ড্রাইভ সড়কের মহেশখালীয়াপাড়া নৌ-ঘাটে ইয়াবা ও অস্ত্র উদ্ধারে যায় পুলিশ। সেখানে তাঁর সহযোগীরা পুলিশকে লক্ষ করে গুলি চালিয়ে তাঁকে ছিনিয়ে নেওয়ার চেষ্টা করে। এ সময় পুলিশও আত্মরক্ষার্থে পাল্টা গুলি চালায়। উভয়পক্ষের গোলাগুলিতে আটক ব্যক্তি গুলিবিদ্ধ হলে তাঁকে উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে নেওয়া হয়। সেখানে কর্তব্যরত চিকিৎসক তাঁকে মৃত ঘোষণা করেন।

পুলিশের দাবি, এ ঘটনায় তাদের তিন সদস্য আহত হয়েছেন। ঘটনাস্থল থেকে একটি এলজি, সাত রাউন্ড তাজা কার্তুজ ও তিন হাজার পিস ইয়াবা ট্যাবলেট উদ্ধার করা হয়।

এদিকে গতকাল রবিবার ভোরে উপজেলার হোয়াইক্যং ইউনিয়নের উনচিপ্রাং নাফ নদের সীমান্তে বর্ডার গার্ড বাংলাদেশের (বিজিবি) সদস্যদের সঙ্গে ইয়াবা পাচারকারীদের বন্দুকযুদ্ধের ঘটনা ঘটে। এতে  হোয়াইক্যং কাঞ্জরপাড়া গ্রামের রহিম উদ্দীন  নিহত হন।

টেকনাফ-২ বিজিবি ব্যাটালিয়নের অধিনায়ক লেফট্যানেন্ট কর্নেল মোহাম্মদ ফয়সল হাসান খান জানান, মিয়ানমার থেকে ইয়াবার চালান আসার খবরে বিজিবির একটি টহল দল উনচিপ্রাং নাফ নদের সীমান্তে অবস্থান নেয়। এ সময় মিয়ানমারের দিক থেকে আসা একটি নৌকা থামার সংকেত দিলে নৌকায় থাকা লোকজন বিজিবি সদস্যদের লক্ষ করে গুলি চালায়। পাল্টা গুলিতে এক ব্যক্তিকে গুলিবিদ্ধ অবস্থায় উদ্ধার করে উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে নিয়ে গেলে কর্তব্যরত চিকিৎসক তাঁকে মৃত ঘোষণা করেন।

 

মন্তব্য



সাতদিনের সেরা