kalerkantho

শনিবার । ১৪ ডিসেম্বর ২০১৯। ২৯ অগ্রহায়ণ ১৪২৬। ১৬ রবিউস সানি               

মোশাররফ বললেন

ভিসি মীজানুর রহমানের বক্তব্য ‘লজ্জাজনক’

নিজস্ব প্রতিবেদক   

২০ অক্টোবর, ২০১৯ ০০:০০ | পড়া যাবে ২ মিনিটে



বিএনপির স্থায়ী কমিটির সদস্য ড. খন্দকার মোশাররফ হোসেন বলেছেন, ‘পত্রিকায় দেখলাম, জবির (জগন্নাথ বিশ্ববিদ্যালয়) ভিসি মীজানুর রহমান ঘোষণা দিয়েছেন যুবলীগের সভাপতির দায়িত্ব যদি তাঁকে দেওয়া হয় তিনি ভিসির পদ ছেড়ে দেবেন। কী লজ্জা! সমাজের পচন কোন পর্যায়ে গিয়ে পৌঁছেছে। আমি আকাশ থেকে পড়েছি তাঁর এ অভিপ্রায়ের খবরে।’

শনিবার দুপুরে জাতীয় প্রেস ক্লাবের আবদুস সালাম হলে খালেদা জিয়া মুক্তি পরিষদের উদ্যোগে বিএনপি চেয়ারপারসনের মুক্তির দাবিতে আয়োজিত আলোচনাসভায় ড. মোশাররফ এ কথা বলেন।

ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের ভূতত্ত্ব বিভাগের সাবেক অধ্যাপক ড. মোশাররফ আরো বলেন, যে ভাইস চ্যান্সেলর ওই ধরনের যুবলীগ, ছাত্রলীগের নেতাদের শাসন করবেন, তাঁর চোখ রাঙানিতে বিশ্ববিদ্যালয় প্রকম্পিত থাকবে, সেই তিনি যুবলীগের দায়িত্ব নিতে চান। কী জন্য? যে যুবলীগের দায়িত্বে গেলে ক্যাসিনো চালানো যায়, হাজার হাজার কোটি টাকা লুট করার ব্যবস্থা আছে। চিন্তা করেন একজন ভাইস চ্যান্সেলরের লক্ষ্য কী হয়ে গেছে?’

ড. মোশাররফ বলেন, ‘আমি ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের ছাত্র ছিলাম, হলের ভিপি ছিলাম, তারপর ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের লেকচারার হয়েছি, অ্যাসিস্ট্যান্ট প্রফেসার, অ্যাসোসিয়েট প্রফেসার, প্রফেসার হয়েছি, বিভাগীয় চেয়ারম্যান সব হয়েছি। কোনো বিশ্ববিদ্যালয়ের কোনো ভাইস চ্যান্সেলর এ কথা বলতে পারেন, কোনো একটি রাজনৈতিক দলের অঙ্গসংগঠনের সভাপতি পদ যদি তাঁকে দেয় তাহলে ভাইস চ্যান্সেলরের পদ ছেড়ে দিতে পারেন। চিন্তা করেন!’

বিএনপির স্থায়ী কমিটির এই সদস্য বলেন, জাহাঙ্গীরনগর বিশ্ববিদ্যালয়ের ভাইস চ্যান্সেলর ছাত্রলীগ নেতাদের ঈদের বকশিশ দিয়েছেন এক কোটি ৮০ লাখ টাকা। তিনি বলেন, তাঁর কাছে কী টাকার গাছ আছে? না টাকা বানানোর মেশিন আছে? আজ সমাজের পচন কোথায় লেগেছে? সরকারের জবাবদিহিতার অভাবে এমন অবস্থা হয়েছে। তারা শুধু খালেদা জিয়াকে একা কারাগারে রাখে নাই। কারাগারে বন্দি করেছে এ দেশের গণতন্ত্রকে, জনগণের অধিকারকে, এ দেশের মানুষের বিবেককে, মানুষের মূল্যবোধকে। এই অবস্থা থেকে উত্তরণে আমাদের আন্দোলন-সংগ্রামের জন্য প্রস্তুতি নিতে হবে।

 

মন্তব্য



সাতদিনের সেরা