kalerkantho

শনিবার । ০৭ ডিসেম্বর ২০১৯। ২২ অগ্রহায়ণ ১৪২৬। ৯ রবিউস সানি ১৪৪১     

ছাত্র হত্যায় ‘মা জানেন না তিনি বাদী’

সেই মাকে ডেকে নিয়ে থানায় সংবাদ সম্মেলন

আঞ্চলিক প্রতিনিধি, ময়মনসিংহ   

২০ অক্টোবর, ২০১৯ ০০:০০ | পড়া যাবে ২ মিনিটে



ময়মনসিংহের ঈশ্বরগঞ্জে নিহত স্কুলছাত্রের ‘মায়ের অজান্তে তাঁকে বাদী করে হত্যা মামলা দায়েরের’ ঘটনায় এবার সেই শোকগ্রস্ত মাকে দিয়ে থানার কক্ষে সংবাদ সম্মেলন করালেন ঈশ্বরগঞ্জ থানার ওসি আহম্মেদ কবির। এবার নিহত ছাত্র জায়দুল ইসলামের (১৬) মা নুরেজা পারভীন জানালেন, ছেলে আহত হওয়ার পর তিনিই হত্যাচেষ্টার মামলার বাদী হয়েছিলেন। অথচ এর আগে মামলাটি দায়েরের খবর শুনে তিনি সাংবাদিকদের জানিয়েছিলেন, তিনি ছেলের চিকিৎসার কারণে ঢাকার থাকার কারণে ছেলে হত্যা বা হত্যাচেষ্টার কোনো মামলা দায়ের করেননি এবং কোনো কাগজেও স্বাক্ষর করেননি। গতকাল শনিবার থানার কক্ষে সংবাদ সম্মেলনে ওসি নিজেই ওই মায়ের হয়ে অনেক প্রশ্নের উত্তর দেন।

অভিযোগ রয়েছে, মামলাটি ভিন্ন খাতে নেওয়া এবং প্রকৃত অপরাধীদের আড়াল করতে একটি রাজনৈতিক পক্ষ পুলিশকে দিয়ে তড়িঘড়ি করে মামলাটি দায়ের করায়, যাতে নিহত জায়দুলের মায়ের অজান্তেই তাঁকে বাদী করা হয়। ওই রাজনৈতিক পক্ষের উদ্দেশ্য নিজেদের অনুসারীদের বাঁচানো এবং প্রতিপক্ষ ও নিরপরাধ কিছু ব্যক্তিকে ফাঁসানো। তবে ওসি এ ঘটনা অস্বীকার করে বলেছেন, মা-ই মামলা দায়ের করেছেন। এ নিয়ে কালের কণ্ঠে গত শুক্রবার ‘নিহতের মা জানেন না তিনি মামলার বাদী’ শিরোনামে একটি সংবাদ প্রকাশ হয়। মামলাটি এভাবে দায়ের করতে গিয়ে জায়দুলের মা নুরেজা পারভীনের নামও ভুল করে নুরজাহান বলে উল্লেখ করা হয়।

গতকাল সংবাদ সম্মেলনে নিহত জায়দুলের মা, ভাই ও খালাসহ বেশ কয়েকজন উপস্থিত থাকলেও নিহতের বাবাকে দেখা যায়নি। প্রায় আধাঘণ্টাব্যাপী এই সম্মেলনে ওসি আহম্মেদ কবির নিজ চেয়ারে বসা ছিলেন। পাশে ছিলেন নুরেজা বেগমসহ অন্যরা। এ সময় ওসিকে নিহতের মাকে সাংবাদিকদের রাখা বিভিন্ন প্রশ্নের জবাবে সহায়তা করতে দেখা গেছে।

মন্তব্য



সাতদিনের সেরা