kalerkantho

রবিবার । ০৮ ডিসেম্বর ২০১৯। ২৩ অগ্রহায়ণ ১৪২৬। ১০ রবিউস সানি ১৪৪১     

কালিয়াকৈরে বিএনপি অফিসসহ শতাধিক স্থাপনা উচ্ছেদ

কালিয়াকৈর (গাজীপুর) প্রতিনিধি   

২০ অক্টোবর, ২০১৯ ০০:০০ | পড়া যাবে ২ মিনিটে



গাজীপুরের কালিয়াকৈর উপজেলা বিএনপির কার্যালয়সহ শতাধিক স্থাপনা উচ্ছেদ করা হয়েছে। গতকাল শনিবার কালিয়াকৈর বাজার এলাকায় উপজেলা প্রশাসন এবং সড়ক ও জনপথ বিভাগের যৌথ উদ্যোগে ভ্রাম্যমাণ আদালত পরিচালনা করে এসব স্থাপনা উচ্ছেদ করা হয়।

ভ্রাম্যমাণ আদালত সূত্রে জানা যায়, ঢাকা-টাঙ্গাইল মহাসড়কের কালিয়াকৈর বাজার এলাকায় দীর্ঘদিন ধরে সড়ক ও জনপথের জমি দখল করে বিএনপির দলীয় কার্যালয়সহ অবৈধ স্থাপনা গড়ে তোলা হয়। গতকাল শনিবার সকাল থেকে উপজেলা প্রশাসন এবং সড়ক ও জনপথ বিভাগের যৌথ উদ্যোগে কালিয়াকৈর বাজার এলাকায় ভ্রাম্যমাণ আদালতের অভিযান পরিচালনা করা হয়। এ সময় সওজের জায়গায় গড়ে তোলা কালিয়াকৈর বাজার এলাকায় উপজেলা বিএনপির দলীয় কার্যালয়সহ শতাধিক অবৈধ স্থাপনা উচ্ছেদ করা হয়। সড়ক ও জনপথ বিভাগের যুগ্ম সচিব ও আইন কর্মকর্তা মাহবুব রহমান ফারুকীর নেতৃত্বে এ অভিযান পরিচালনা করা হয়। এ সময় উপস্থিত ছিলেন উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা কাজী হাফিজুল আমীন, উপজেলা সহকারী কমিশনার (ভূমি) ইশতিয়াক আহম্মেদসহ সড়ক ও জনপথ বিভাগ এবং উপজেলা প্রশাসনের কর্মকর্তা-কর্মচারীরা।

এদিকে উপজেলা বিএনপির কেন্দ্রীয় অফিস ভাঙচুরের ঘটনায় ক্ষোভ প্রকাশ করেছেন উপজেলা ও পৌর বিএনপির নেতাকর্মীরা। তাঁদের দাবি, বিএনপির অফিস সরকারি জমিতে পড়েনি। এ ছাড়া বিনা নোটিশে বিএনপির অফিস ভাঙচুর করা হয়েছে। এ বিষয়ে আইনগত পদক্ষেপ নেওয়া হবে বলেও জানান তাঁরা।

কালিয়াকৈর পৌর বিএনপির সভাপতি হুমায়ন কবির খান বলেন, ২০০১ সালে শ্রীফলতলী জমিদারের কাছ থেকে ওই জমি লিখিতভাবে লিখে নিয়ে উপজেলা বিএনপির অফিস নির্মাণ করা হয়েছে। ওই অফিস সড়ক ও জনপথের জমি তা আমাদের কেউ বলেনি বা নোটিশ করে জানায়নি। হঠাৎ করে আজকে অভিযান চালিয়ে বিএনপির কেন্দ্রীয় দলীয় অফিস গুঁড়িয়ে দেওয়া হয়েছে। এটা বিএনপির প্রতি ষড়যন্ত্রের বহিঃপ্রকাশ। আমি এ ঘটনার তীব্র নিন্দা জানাচ্ছি।

কালিয়াকৈর উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা কাজী হাফিজুল আমীন বলেন, বিএনপির অফিস সড়ক ও জনপথ বিভাগের জায়গায়। সড়ক ও জনপথ বিভাগের পক্ষ থেকে তাদের বারবার নোটিশ দেওয়া হয়েছে।

মন্তব্য



সাতদিনের সেরা