kalerkantho

শুক্রবার । ১৩ ডিসেম্বর ২০১৯। ২৮ অগ্রহায়ণ ১৪২৬। ১৫ রবিউস সানি          

পিতার কাছে দুই লাখ টাকা না পেয়ে

চাচাতো ভাইয়ের গলায় ছুরি ধরে মুক্তিপণ দাবি

মুন্সীগঞ্জ প্রতিনিধি   

১৭ অক্টোবর, ২০১৯ ০০:০০ | পড়া যাবে ২ মিনিটে



পিতার কাছে দুই লাখ টাকা চেয়ে না পেয়ে চাচাতো ভাইয়ের গলায় ছুরি ধরে জিম্মি করে ফিল্মি স্টাইলে মুক্তিপণ দাবি করে এলাকায় আতঙ্কের সৃষ্টি করে অপূর্ব মণ্ডল শুভ (২৭) নামের এক যুবক। গতকাল চাঞ্চল্যকর এ ঘটনা ঘটে মুন্সীগঞ্জের লৌহজং উপজেলার মেদিনীমণ্ডল ইউনিয়নের মাওয়া সুপারমার্কেট এলাকায়। পুলিশ অভিযান চালিয়ে জিম্মি নিপু মণ্ডলকে (১৭) উদ্ধার ও অপূর্বকে আটক করে। উপজেলার মেদিনীমণ্ডল আনোয়ার চৌধুরী উচ্চ বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক নারায়ণ চন্দ্র মণ্ডলের পুত্র অপূর্ব প্রায়ই টাকার জন্য জন্মদাতা পিতাকে মারধর করে বলে জানা গেছে।

এ ঘটনায় পুত্রের হাতে মারাত্মক আহত হয়েছেন শিক্ষক নারায়ণ চন্দ্র। তাঁকে উন্নত চিকিৎসার জন্য ঢাকায় পাঠানো হয়েছে। গতকাল বুধবার সকালে মেদিনীমণ্ডল ইউনিয়নের মাওয়া সুপারমার্কেটের দক্ষিণ পাশে নারায়ণ চন্দ্রের ভাড়াটে বাসায় এ ঘটনা ঘটে। এ সময় আশপাশের শত শত লোক জড়ো হয়ে যায় নারায়ণ চন্দ্রের বাসা ঘিরে। দীর্ঘ আট ঘণ্টা ধরে চলা এই জিম্মি নাটক ও পুলিশি উদ্ধার অভিযান প্রত্যক্ষ করে স্থানীয়রা।

পুলিশ ও প্রত্যক্ষদর্শীরা জানায়, গতকাল সকাল সাড়ে ৫টার সময় টাঙ্গাইল থেকে মাওয়ায় আসে অপূর্ব। পরে তার বাবা নারায়ণ চন্দ্র মণ্ডলের কাছে দুই লাখ টাকা চায় সে। কিন্তু টাকা দিতে রাজি না হওয়ায় কাচের গ্লাস দিয়ে আঘাত করে পিতা নারায়ণ চন্দ্রের মাথা ফাটিয়ে দেয় সে। এ সময় অনেক মারধরের পরও নারায়ণ চন্দ্র কিছুতেই টাকা দিতে রাজি হননি। একপর্যায়ে অপূর্ব তার চাচাতো ভাই নিপু মণ্ডলের গলায় ধারালো অস্ত্র ধরে টাকা দাবি করে। এ সময় ফিল্মি স্টাইলে চাচাতো ভাইকে জিম্মি করে একটি ঘরে নিয়ে যায় সে। এরপর দরজা বন্ধ করে দিয়ে হুমকি দেয়—টাকা না পেলে নিপুর গলা কেটে ফেলবে সে। স্থানীয়রা লৌহজং থানায় খবর দিলে পুলিশ সকাল সাড়ে ১১টায় ঘটনাস্থলে পৌঁছে। এরপর দীর্ঘ দুই ঘণ্টা নানা কৌশলে চেষ্টার পর দুপুর দেড়টার দিকে তারা নিপুকে উদ্ধার করে অপূর্বর খপ্পর থেকে। এ সময় আটক করা হয় অপূর্বকে।

মন্তব্য



সাতদিনের সেরা