kalerkantho

বুধবার । ১১ ডিসেম্বর ২০১৯। ২৬ অগ্রহায়ণ ১৪২৬। ১৩ রবিউস সানি     

ওবায়দুল কাদের বললেন

দুর্নীতিবাজ কাউন্সিলর মনোনয়ন পাবেন না

নিজস্ব প্রতিবেদক   

১৬ অক্টোবর, ২০১৯ ০০:০০ | পড়া যাবে ২ মিনিটে



দুর্নীতিবাজ কাউন্সিলর মনোনয়ন পাবেন না

আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক এবং সড়ক পরিবহন ও সেতু মন্ত্রী ওবায়দুল কাদের বলেছেন, যে কাউন্সিলরদের বিরুদ্ধে দুর্নীতির অভিযোগ পাওয়া গেছে, তাঁরা আগামীতে মনোনয়ন পাবেন না। এই কাউন্সিলরদের যাঁরা আশ্রয়-প্রশ্রয় দিচ্ছেন, তাঁদের বিরুদ্ধে কোনো ব্যবস্থা নেওয়া হবে কি না জানতে চাইলে সাংবাদিকদের তিনি আরো বলেন, ‘আপনারা তো ছাতার কথা বলছেন, ছাতা খোঁজা হচ্ছে। এ ব্যাপারে দুদককে তদন্ত করে ব্যবস্থা নিতে বলা হয়েছে।’

গতকাল মঙ্গলবার সচিবালয়ে নিজ কার্যালয়ে সাংবাদিকদের সঙ্গে মতবিনিময়ের সময় মন্ত্রী এসব কথা বলেন।

মন্ত্রী জানান, মাদক, সন্ত্রাস, ক্যাসিনো, চাঁদাবাজি, টেন্ডারবাজি ও ধান্ধাবাজির বিরুদ্ধে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার এই অভিযান চলবে। তৃণমূল থেকে কেন্দ্র পর্যন্ত বিতর্কিতদের বাদ দিয়ে নেতা বানানো হচ্ছে এবং হবে।

দলের নেতাকর্মীদের উদ্দেশে তিনি বলেন, ‘সবাইকে সতর্ক থাকতে হবে। বিতর্কিত ব্যক্তিরা যাতে কমিটিতে না আসতে পারেন। এ বিষয়ে প্রধানমন্ত্রীর নির্দেশনা রয়েছে।’

বুয়েটের শিক্ষার্থী আবরার ফাহাদ হত্যা প্রসঙ্গে ওবায়দুল কাদের বলেন, ‘আবরারের ঘটনার সাথে যারা জড়িত তাদের বিচার কী হবে তা আদালত বলতে পারবে। তবে আমার মতে তাদের মৃত্যুদণ্ড হওয়া উচিত।’

চট্টগ্রামে দ্রুত মেট্রো রেলের সম্ভাব্যতা যাচাই শুরু : এদিকে চট্টগ্রামে মেট্রো রেল নির্মাণের সম্ভাব্যতা যাচাই (ফিজিবিলিটি স্টাডি) দ্রুতই শুরু হবে বলে জানান ওবায়দুল কাদের। তিনি বলেন, ‘মাননীয় প্রধানমন্ত্রী আমাকে নির্দেশ দিয়েছেন চট্টগ্রামের মেট্রো রেল বা এমআরটি লাইনের ফিজিবিলিটি স্টাডি শুরু করার জন্য। তাঁর নির্দেশনা অনুযায়ী আমি মন্ত্রণালয়ের সচিব ও মেট্রো রেলের সাথে যাঁরা জড়িত, তাঁদের বলেছি অবিলম্বে ফিজিবিলিটি স্টাডি শুরু করতে।’

চট্টগ্রামে প্রস্তাবিত মেট্রো রেল প্রকল্পে তিনটি এমআরটি লাইন করার কথা বলা হয়েছে। এর মধ্যে কালুরঘাট থেকে বিমানবন্দর পর্যন্ত এমআরটি লাইন-১-এর দৈর্ঘ্য সাড়ে ২৬ কিলোমিটার (২০টি স্টেশন), সিটি গেট থেকে নিমতলা হয়ে শাহ আমানত সেতুর গোলচত্বর পর্যন্ত লাইন-২-এর দৈর্ঘ্য সাড়ে ১৩ কিলোমিটার (১২টি স্টেশন) এবং অক্সিজেন থেকে ফিরিঙ্গিবাজার ও পাঁচলাইশ থেকে এ কে খান পর্যন্ত লাইন-৩-এর দৈর্ঘ্য সাড়ে ১৪ কিলোমিটার (স্টেশন ১৫টি)। তিনটি লাইনের মোট দৈর্ঘ্য হবে সাড়ে ৫৪ কিলোমিটার, স্টেশন থাকবে মোট ৪৭টি। প্রতি কিলোমিটারে প্রায় এক হাজার ৫৪৫ কোটি টাকা সম্ভাব্য ব্যয় ধরা হয়েছে প্রস্তাবে।

মন্তব্য



সাতদিনের সেরা