kalerkantho

শনিবার । ০৭ ডিসেম্বর ২০১৯। ২২ অগ্রহায়ণ ১৪২৬। ৯ রবিউস সানি ১৪৪১     

আশুলিয়ায় খাল উদ্ধার অভিযানে ম্যাজিস্ট্রেটকে বাধা, চারজনের সাজা

নিজস্ব প্রতিবেদক, সাভার (ঢাকা)   

১৬ অক্টোবর, ২০১৯ ০০:০০ | পড়া যাবে ২ মিনিটে



রাজধানীর আশুলিয়ায় সরকারি জলাশয়ের অবৈধ দখলে থাকা ৫৬ শতাংশ ভূমি গতকাল মঙ্গলবার দখলমুক্ত করেছেন ভ্রাম্যমাণ আদালত। এ ছাড়া বিনোদন পার্ক ফ্যান্টাসি কিংডম সংলগ্ন এলাকায় নয়নজুলি খাল উদ্ধার অভিযানে বাধা দেওয়ার অভিযোগে ভ্রাম্যমাণ আদালত চার ব্যক্তিকে পৃথক ১৪ দিনের বিনাশ্রম কারাদণ্ড দিয়েছেন।

দুপুরে শুরু হওয়া অভিযানে আশুলিয়ার খেজুরবাগান এলাকায় লিজ হারবাল, শবনম ইয়াসমিন ও কসমোপলিটন নামে তিনটি কারখানার দখলে থাকা জলাশয়ের জমি উদ্ধারে অভিযান পরিচালিত হয়। নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট ও আশুলিয়া সহকারী অফিসার (ভূমি) ইবনে সাজ্জাদ জানান, আশুলিয়ার খেজুরবাগান ও পুকুরপাড় এলাকায় সরকারি জলাশয়ের অবৈধভাবে দখল করা জমি উদ্ধারে অভিযান পরিচালনা করা হয়। এ সময় কসমোপলিটন (সিপিএল) নামের একটি কারখানার দখলে থাকা ১৮ শতাংশ ভূমি দখলমুক্ত করা হয়। খাল ভরাট করে নির্মাণ করা বেশ কিছু আধাপাকা স্থাপনা গুঁড়িয়ে দেওয়া হয়। এ ছাড়া পুকুরপাড় এলাকার লিজ হারবাল ও শবনম ইয়াসমিন নামের অন্য দুটি কারখানার দখলে থাকা জলাশয়ের আরো ৩৮ শতাংশ ভূমি উদ্ধার করা হয়।

তিনি আরো জানান, বিকেলে নয়নজুলি খাল উদ্ধার অভিযানে গেলে স্থানীয় চার প্রভাবশালী ব্যক্তি উদ্ধারকাজে বাধা দেন। এ সময় তাঁদের আটক করে প্রত্যেককে পৃথক ১৪ দিনের বিনাশ্রম কারাদণ্ড দেওয়া হয়। তাঁরা হলেন জামগড়া এলাকার মোশারফ হোসেন, রুহুল আমিন, জসিম উদ্দিন ও কামাল চৌধুরী। সরকারি জলাশয় ও খাল দখল করে অবৈধভাবে স্থাপনা নির্মাণকারীদের বিরুদ্ধে নিয়মিত অভিযান পরিচালিত হবে বলেও জানান তিনি।

অভিযানে নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেটের সঙ্গে আশুলিয়া থানা পুলিশের কর্মকর্তা ও উপজেলা প্রশাসনের কর্মকর্তারা ছিলেন।

মন্তব্য



সাতদিনের সেরা