kalerkantho

শুক্রবার । ০৬ ডিসেম্বর ২০১৯। ২১ অগ্রহায়ণ ১৪২৬। ৮ রবিউস সানি ১৪৪১     

টাঙ্গাইলে মা-মেয়েকে গলা কেটে হত্যা

টাঙ্গাইল প্রতিনিধি   

১৪ অক্টোবর, ২০১৯ ০০:০০ | পড়া যাবে ২ মিনিটে



টাঙ্গাইল শহরের ভাল্লুককান্দি এলাকায় গত শনিবার রাতে মা এবং তাঁর চার বছরের মেয়েকে কুপিয়ে ও গলা কেটে হত্যা করেছে দুর্বৃত্তরা। তারা হলো টাঙ্গাইল শহরের ব্যবসায়ী আলামিনের স্ত্রী সাত মাসের অন্তঃসত্ত্বা লাকী বেগম (২২) ও তাঁর চার বছরের মেয়ে আলিফা। পুলিশ ধারণা করছে, টাকার জন্য পরিচিতরা এ হত্যাকাণ্ড ঘটাতে পারে। এ ঘটনায় গতকাল বিকেলে লাকী বেগমের বাবা হাসমত আলী বাদী হয়ে টাঙ্গাইল মডেল থানায় মামলা করেছেন। মামলায় কোনো আসামির নাম উল্লেখ করা হয়নি। হত্যায় ব্যবহৃত অস্ত্র উদ্ধারের জন্য বিকেলে আলামিনের বাড়ির সামনের পুকুরে তল্লাশি চালিয়েছে পুলিশ।

লাকীর স্বামী আলামিন জানান, টাঙ্গাইল শহরের আসাদ মার্কেটে তাঁর মোবাইল ফোন ফ্যাক্স ও বিকাশের দোকান আছে। দোকান থেকে বাড়ি ফিরতে প্রায়ই তাঁর মাঝরাত হয়ে যেত। রাতে বাড়ি ফেরার পথে তিনি ফোন দিলে স্ত্রী বাড়ির গেট খুলে দিতেন। গত শনিবার রাত ১২টার পর তিনি বাড়ির কাছাকাছি যাওয়ার পর স্ত্রীকে ফোন দিলে কোনো সাড়া পাওয়া যায়নি। বাড়ির সামনে গিয়ে দেখেন গেট খোলা। ঘরের ভেতরে উচ্চ শব্দে টেলিভিশন চলছে। তিনি বাড়ির ভেতরে ঢুকতেই প্রথমে রক্তাক্ত অবস্থায় তাঁর মেয়ে আলিফাকে মাটিতে পড়ে থাকতে দেখে চিৎকার দিয়ে প্রতিবেশীদের ডাকেন। প্রতিবেশীরা আসার পর দেখেন বাড়ির উঠানে রক্তাক্ত অবস্থায় তাঁর স্ত্রী লাকীও পড়ে আছেন।

প্রতিবেশীরা জানায়, ওই বাড়িতে আলামিন স্ত্রী ও মেয়ে নিয়ে থাকতেন। তাঁর মেয়ে স্থানীয় কচুয়াডাঙ্গা সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ে প্রথম শ্রেণিতে পড়ত। ঘটনার রাতে আলামিনের চিৎকার শুনে তারা এগিয়ে গিয়ে দেখে স্ত্রী ও কন্যাশিশুর গলা কাটা লাশ পড়ে আছে। পরে টাঙ্গাইল থানায় খবর দিলে পুলিশ এসে লাশ উদ্ধার করে।

আলামিনের স্বজনরা জানায়, হত্যার পর দুর্বৃত্তরা ঘরের একটি ড্রয়ার খুলে প্রায় আট লাখ টাকা লুট করে নিয়ে যায়। সেই ড্রয়ারে রক্তের দাগ লেগে আছে। অন্য কোনো ড্রয়ার খোলা হয়নি। বিকাশের টাকার জন্য এ হত্যাকাণ্ড ঘটতে পারে।

মন্তব্য



সাতদিনের সেরা