kalerkantho

রবিবার । ০৮ ডিসেম্বর ২০১৯। ২৩ অগ্রহায়ণ ১৪২৬। ১০ রবিউস সানি ১৪৪১     

চেয়ারম্যান-মেম্বারদের উদ্দেশে রাষ্ট্রপতি

জেলা সদরে থেকে নেতাগিরি চলবে না

নিজস্ব প্রতিবেদক, হাওরাঞ্চল ও কিশোরগঞ্জ প্রতিনিধি   

১৪ অক্টোবর, ২০১৯ ০০:০০ | পড়া যাবে ২ মিনিটে



রাষ্ট্রপতি মো. আবদুল হামিদ হাওর এলাকায় কর্মরত সরকারি কর্মকর্তাদের কার্যদিবসগুলোতে নিজ নিজ কর্মস্থলে থাকার আহ্বান জানিয়েছেন। তিনি স্থানীয় জনপ্রতিনিধিদেরও একই আহ্বান জানিয়ে বলেন, ‘জেলা সদরে থেকে নেতাগিরি করা চলবে না। যাঁরা এলাকায় থাকতে পারবেন, তাঁরাই চেয়ারম্যান-মেম্বার হবেন।’ গতকাল রবিবার বিকেলে কিশোরগঞ্জের ইটনা উপজেলা সদরের ‘আবদুল হামিদ সরকারি কলেজ’ মাঠে এক সুধী সমাবেশে তিনি এ আহ্বান জানান।

স্থানীয় এমপি ও রাষ্ট্রপতিপুত্র রেজওয়ান আহাম্মদ তৌফিকের সভাপতিত্বে নাগরিক কমিটি আয়োজিত সমাবেশে অন্যান্যের মধ্যে বক্তব্য দেন জেলা পরিষদ চেয়ারম্যান অ্যাডভোকেট মো. জিল্লুর রহমান, পাবলিক প্রসিকিউটর অ্যাডভোকেট শাহ আজিজুল হক, ইটনা রাষ্ট্রপতি আবদুল হামিদ সরকারি কলেজের অধ্যক্ষ ইসলাম উদ্দিন, ইটনা উপজেলা পরিষদ চেয়ারম্যান চৌধুরী কামরুল হাসান, ইটনা আওয়ামী লীগ সভাপতি ইসমাইল হোসেন, রায়টুটী ইউনিয়ন পরিষদ চেয়ারম্যান ফয়সাল কবির।

প্রধান অতিথির বক্তব্যে লেখাপড়ার গুণগত মান বাড়ানোর তাগিদ দিয়ে সমাবেশে উপস্থিত শিক্ষার্থীদের উদ্দেশে রাষ্ট্রপতি বলেন, ‘এমন ছাত্র হও, যেন দেশবাসী তোমাদের নিয়ে গর্ব করতে পারে। তিনি তাঁর বক্তব্যে হাওরে প্রাকৃতিক দুর্যোগে একমাত্র ফসল বোরো চাষাবাদের সংকট কাটাতে স্বল্প জীবনকালের ধানের জাত উদ্ভাবনের জন্য কৃষি বিজ্ঞানীদের প্রতি আহ্বান জানান। এ সময় তিনি হাওরে ধান ও মাছ গবেষণা ইনস্টিটিউট স্থাপনের ঘোষণা দেন।

হাওর নিয়ে নিজের স্বপ্নের কথা বলতে গিয়ে সুধী সমাবেশে রাষ্ট্রপতি বলেন, ‘হাওরের প্রতিটি ইউনিয়ন থেকে উপজেলা সদরে যাতায়াতের জন্য একদিন ফ্লাইওভার হবে। প্রতিটি উপজেলায় ক্যাডেট কলেজের আদলে একটি করে মডেল স্কুল হবে। মিঠামইনে ক্যান্টনমেন্ট হলে উন্নতমানের স্কুল-কলেজ হবে। সেখানে হাওরের ছেলেমেয়েরা লেখাপড়া করবে।’ তিনি হাওরে কর্মরত সরকারি কর্মকর্তা-কর্মচারী, চিকিৎসক, কলেজশিক্ষকসহ সবাইকে নিজ নিজ কর্মস্থলে অবস্থান করে সেবাদানের তাগিদ দেন। রাষ্ট্রপতি বলেন, ‘বহু নেতাও কিশোরগঞ্জ সদরে গিয়ে বাসাবাড়ি করে থাকেন। জেলা সদরে থেকে নেতাগিরি করা চলবে না। যাঁরা এলাকায় থাকতে পারবেন, তাঁরাই চেয়ারম্যান-মেম্বার হবেন।’

সমাবেশ শুরুর আগে রাষ্ট্রপতি মো. আবদুল হামিদ সরকারি কলেজ চত্বরে তাঁর স্ত্রীর নামে ‘রাশিদা খানম ছাত্রীনিবাস’ ও বাদলা আবদুল হামিদ সেতুর ভিত্তিপ্রস্তর স্থাপন করেন। রাষ্ট্রপতি আজ সোমবার অষ্টগ্রাম উপজেলায় এক সুধী সমাবেশে ভাষণ দেবেন।

 

মন্তব্য



সাতদিনের সেরা