kalerkantho

বৃহস্পতিবার । ২৩ জানুয়ারি ২০২০। ৯ মাঘ ১৪২৬। ২৬ জমাদিউল আউয়াল ১৪৪১          

আড়াইহাজারে গৃহবধূকে গলা কেটে হত্যা

আড়াইহাজার (নারায়ণগঞ্জ) প্রতিনিধি   

১০ অক্টোবর, ২০১৯ ০০:০০ | পড়া যাবে ২ মিনিটে



নারায়ণগঞ্জের আড়াইহাজারে পারিবারিক কলহের জের ধরে এক গৃহবধূকে গলা কেটে হত্যার অভিযোগ পাওয়া গেছে তাঁর স্বামীর বিরুদ্ধে। গত মঙ্গলবার রাতে উপজেলার গোপালদীর উত্তর কলাগাছিয়া এলাকায় এ ঘটনা ঘটে।

নিহত সালেহা (২৮) উত্তর কলাগাছিয়া এলাকার হাছেন আলীর মেয়ে এবং মোবারক হোসেনের স্ত্রী। ঘটনার পর থেকে মোবারক হোসেন পলাতক আছেন। তিনি নরসিংদীর খাদিমারচর এলাকার খালেক মিয়ার ছেলে।

পুলিশ ও নিহত সালেহার পারিবারিক সূত্রে জানা গেছে, মোবারক হোসেন স্ত্রী সালেহা ও দুই সন্তানকে নিয়ে সালেহার বাবার বাড়িতে ঘরজামাই হিসেবে থাকতেন। তিনি দীর্ঘদিন বেকার থাকার কারণে কয়েক বছর আগে সালেহা সৌদি আরবে কাজ করতে যান। আড়াই বছর সেখানে চাকরি করে গত রোজার ঈদের আগে দেশে ফিরে আসেন তিনি। গতকাল সৌদি থেকে সালেহার পাঠানো টাকা নিয়ে তাঁদের মধ্যে ঝগড়া হয়। পরে রাতের খাবার খেয়ে সালেহা ঘুমিয়ে পড়লে মোবারক ধারালো ছুরি দিয়ে তাঁকে গলা কেটে হত্যা করেন। এ সময় পাশে শোয়া দুই ছেলেমেয়ে সালেহার চিৎকারে উঠে গেলে মোবারক পালিয়ে যায়। পরে পরিবারের অন্য সদস্যরা পুলিশে খবর দিলে পুলিশ ঘটনাস্থল থেকে লাশ উদ্ধার করে নারায়ণগঞ্জ মর্গে পাঠায়।

এ ঘটনায় সালেহার বাবা হাছেন আলী আড়াইহাজার থানায় মোবারককে আসামি করে হত্যা মামলা দায়ের করেছেন। তিনি জানান, মোবারক প্রায়ই তাঁর মেয়েকে মারধর করতেন এবং হত্যার হুমকি দিতেন।

এ ব্যাপারে আড়াইহাজার থানার ওসি নজরুল ইসলাম বলেন, ‘মোবারককে গ্রেপ্তার করতে পারলে হত্যার রহস্য বেরিয়ে আসবে। তাঁকে গ্রেপ্তারের চেষ্টা চলছে।’

মন্তব্য



সাতদিনের সেরা